বিনা খরচে ক্লাস করা যাবে অনডিমান্ড টিউটরিং প্ল্যাটফর্ম ‘পড়াই’তে

বিনা খরচে অনলাইনে ক্লাসের আয়োজন করেছে অনডিমান্ড টিউটরিং প্ল্যাটফর্ম ‘পড়াই’ (www.porai.net)। প্রতিদিনই চলবে এই ফ্রি ক্লাস। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে আগামী ১ মার্চ, ২০২২ থেকে শুরু হয়ে প্রতিদিন সন্ধ্যা ৬টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত চলবে এই কার্যক্রম। আপাতত ৮ম থেকে ১২শ শ্রেণীর শিক্ষার্থীরা পদার্থবিজ্ঞান, রসায়নবিজ্ঞান, জীববিজ্ঞান, সাধারণ ও উচ্চতর গণিত, ইংরেজি এবং হিসাববিজ্ঞানের ক্লাস করতে পারবে “পড়াই” প্ল্যাটফর্মে। ক্লাস করতে এখন নিবন্ধন চলছে।

পড়াই-এর অপারেশন ম্যানেজার মোঃ জুনায়িদুল ইসলাম বলেন, পড়াই মূলত একটি অনডিমান্ড টিউটরিং প্ল্যাটফর্ম। যেখানে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের পাঠ্যবই সংক্রান্ত যেকোনো সমস্যার তড়িৎ সমাধান পাওয়া যাবে। একজন শিক্ষার্থী পড়াই প্ল্যাটফর্মে এসে তার সমস্যা নিয়ে অভিজ্ঞ শিক্ষকের সঙ্গে ওয়ান-টু-ওয়ান আলোচনা করার সুযোগ পাবে। তিনি আরও বলেন, পড়াই প্রথাগত টিউশনির ব্যবস্থাটিকে সম্পূর্ণ নতুন আঙ্গিকে সকল শিক্ষার্থীর জন্য উন্মুক্ত করতে যাচ্ছে। ধরা যাক পরীক্ষার আগের রাতে একজন স্কুল শিক্ষার্থী একটি গাণিতিক সমস্যায় পড়েছে। এখন সে শিক্ষক পাবে কোথায়? আধ ঘণ্টার জন্য তাকে কে পড়াবে? পড়াইতে এ সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করা হয়েছে উবার বা ফুডপান্ডার মডেলে। শিক্ষার্থীদের এই চাহিদাই পূরণ করবে “পড়াই”। সমস্যা ও সময় উল্লেখ করে পড়াইতে পোস্ট দিলে ওই সময় যে অভিজ্ঞ শিক্ষক ফ্রি থাকবেন বা পড়াতে পারবেন তারা বিডে অংশ নেবেন। শিক্ষার্থী তার পছন্দমতো শিক্ষক বেছে নিতে পারবে। এমনকি প্রথম তিন মিনিট পরীক্ষামূলক ক্লাসও করতে পারবে। ভালো না লাগলে শিক্ষক বদলের সুযোগও আছে।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর শিক্ষাকে আরও সহজে শিক্ষার্থীদের ঘরে পৌঁছানোর কাজটিই করার চেষ্টা করছে “পড়াই”। ২০২২ সালে যে শিক্ষার্থী ৮ম শ্রেণীতে পড়ছে সে কি জ্যামিতি আর বীজগণিতের মূল ব্যাপার যা কিনা তার ৬ষ্ঠ বা ৭ম শ্রেণিতে জানার কথা ছিল, সেটি কি ঠিক ভাবে জানতে পেরেছে? পরিসংখ্যান বলে এই মহামারীতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দীর্ঘদিন বন্ধ থাকাতে স্কুল-কলেজের প্রায় তিন-চতুর্থাংশ শিক্ষার্থী সংশ্লিষ্ট শ্রেণির প্রান্তিক যোগ্যতা অর্জনে পিছিয়ে আছে। তারা শিখন ঘাটতি নিয়েই বর্তমান ক্লাস করছে। শিক্ষার্থীদের এই সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যেই “পড়াই” প্ল্যাটফর্মটির যাত্রা শুরু হচ্ছে।

পড়াই ডট নেটে শিক্ষার বিষয়বস্তু শুধু স্কুল-কলেজের পাঠ্যক্রমে সীমাবদ্ধ নয়। প্রোগ্রামিং ও ইংরেজির বিভিন্ন কোর্স যেমন- টোফেল, আইইএলটিএস, জিআরই-ও থাকবে। এছাড়া মানুষিক স্বাস্থ্য, যোগব্যায়াম, রান্নার প্রশিক্ষণ, ভিসা ফরম পূরণসহ আরও কিছু সেবা নেওয়ার ব্যবস্থা রয়েছে এখানে। সব মিলিয়ে তিন শতাধিক বিষয়বস্তু যুক্ত হচ্ছে সাইটটিতে।

বর্তমানে বিনা খরচে শিক্ষার্থীর প্রয়োজনীয় বিষয়ের সমস্যার সমাধান পেতে নিবন্ধন চলছে। এই প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে অনলাইনে যেকেউ যেকোনও সময় পড়তে পারবে। নিবন্ধনের জন্য ভিজিট করুন www.porai.net এবং ফেসবুক পেজ fb.com/porai.net। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।

রবিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২২ , ১৪ ফাল্গুন ১৪২৮, ২৫ রজব ১৪৪৩

বিনা খরচে ক্লাস করা যাবে অনডিমান্ড টিউটরিং প্ল্যাটফর্ম ‘পড়াই’তে

image

বিনা খরচে অনলাইনে ক্লাসের আয়োজন করেছে অনডিমান্ড টিউটরিং প্ল্যাটফর্ম ‘পড়াই’ (www.porai.net)। প্রতিদিনই চলবে এই ফ্রি ক্লাস। স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে আগামী ১ মার্চ, ২০২২ থেকে শুরু হয়ে প্রতিদিন সন্ধ্যা ৬টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত চলবে এই কার্যক্রম। আপাতত ৮ম থেকে ১২শ শ্রেণীর শিক্ষার্থীরা পদার্থবিজ্ঞান, রসায়নবিজ্ঞান, জীববিজ্ঞান, সাধারণ ও উচ্চতর গণিত, ইংরেজি এবং হিসাববিজ্ঞানের ক্লাস করতে পারবে “পড়াই” প্ল্যাটফর্মে। ক্লাস করতে এখন নিবন্ধন চলছে।

পড়াই-এর অপারেশন ম্যানেজার মোঃ জুনায়িদুল ইসলাম বলেন, পড়াই মূলত একটি অনডিমান্ড টিউটরিং প্ল্যাটফর্ম। যেখানে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের পাঠ্যবই সংক্রান্ত যেকোনো সমস্যার তড়িৎ সমাধান পাওয়া যাবে। একজন শিক্ষার্থী পড়াই প্ল্যাটফর্মে এসে তার সমস্যা নিয়ে অভিজ্ঞ শিক্ষকের সঙ্গে ওয়ান-টু-ওয়ান আলোচনা করার সুযোগ পাবে। তিনি আরও বলেন, পড়াই প্রথাগত টিউশনির ব্যবস্থাটিকে সম্পূর্ণ নতুন আঙ্গিকে সকল শিক্ষার্থীর জন্য উন্মুক্ত করতে যাচ্ছে। ধরা যাক পরীক্ষার আগের রাতে একজন স্কুল শিক্ষার্থী একটি গাণিতিক সমস্যায় পড়েছে। এখন সে শিক্ষক পাবে কোথায়? আধ ঘণ্টার জন্য তাকে কে পড়াবে? পড়াইতে এ সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করা হয়েছে উবার বা ফুডপান্ডার মডেলে। শিক্ষার্থীদের এই চাহিদাই পূরণ করবে “পড়াই”। সমস্যা ও সময় উল্লেখ করে পড়াইতে পোস্ট দিলে ওই সময় যে অভিজ্ঞ শিক্ষক ফ্রি থাকবেন বা পড়াতে পারবেন তারা বিডে অংশ নেবেন। শিক্ষার্থী তার পছন্দমতো শিক্ষক বেছে নিতে পারবে। এমনকি প্রথম তিন মিনিট পরীক্ষামূলক ক্লাসও করতে পারবে। ভালো না লাগলে শিক্ষক বদলের সুযোগও আছে।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর শিক্ষাকে আরও সহজে শিক্ষার্থীদের ঘরে পৌঁছানোর কাজটিই করার চেষ্টা করছে “পড়াই”। ২০২২ সালে যে শিক্ষার্থী ৮ম শ্রেণীতে পড়ছে সে কি জ্যামিতি আর বীজগণিতের মূল ব্যাপার যা কিনা তার ৬ষ্ঠ বা ৭ম শ্রেণিতে জানার কথা ছিল, সেটি কি ঠিক ভাবে জানতে পেরেছে? পরিসংখ্যান বলে এই মহামারীতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দীর্ঘদিন বন্ধ থাকাতে স্কুল-কলেজের প্রায় তিন-চতুর্থাংশ শিক্ষার্থী সংশ্লিষ্ট শ্রেণির প্রান্তিক যোগ্যতা অর্জনে পিছিয়ে আছে। তারা শিখন ঘাটতি নিয়েই বর্তমান ক্লাস করছে। শিক্ষার্থীদের এই সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যেই “পড়াই” প্ল্যাটফর্মটির যাত্রা শুরু হচ্ছে।

পড়াই ডট নেটে শিক্ষার বিষয়বস্তু শুধু স্কুল-কলেজের পাঠ্যক্রমে সীমাবদ্ধ নয়। প্রোগ্রামিং ও ইংরেজির বিভিন্ন কোর্স যেমন- টোফেল, আইইএলটিএস, জিআরই-ও থাকবে। এছাড়া মানুষিক স্বাস্থ্য, যোগব্যায়াম, রান্নার প্রশিক্ষণ, ভিসা ফরম পূরণসহ আরও কিছু সেবা নেওয়ার ব্যবস্থা রয়েছে এখানে। সব মিলিয়ে তিন শতাধিক বিষয়বস্তু যুক্ত হচ্ছে সাইটটিতে।

বর্তমানে বিনা খরচে শিক্ষার্থীর প্রয়োজনীয় বিষয়ের সমস্যার সমাধান পেতে নিবন্ধন চলছে। এই প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে অনলাইনে যেকেউ যেকোনও সময় পড়তে পারবে। নিবন্ধনের জন্য ভিজিট করুন www.porai.net এবং ফেসবুক পেজ fb.com/porai.net। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি।