গার্মেন্টসে নিরাপদ কর্মপরিবেশ নিশ্চিতের দাবি

মাসের ৭ তারিখের মধ্যে গার্মেন্টস শ্রমিকদের বেতন ও শ্রমিকদের জন্য নিরাপদ কর্মপরিবেশ নিশ্চিত করার দাবি জানিয়েছে জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশন। কোন গার্মেন্টসে রানা প্লাজা বা তাজরীনের মতো ঘটনা যেন না ঘটে, সে বিষয়ে সরকারকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছে সংগঠনটি। গতকাল রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত এক সমাবেশে এসব দাবি জানান তারা।

সমাবেশে জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি আমিরুল হক আমিন বলেন, ‘গার্মেন্টস শিল্পে অনিয়ম ও অব্যবস্থাপনার জন্য শ্রমিকদের জীবন দিতে হয়। এর জন্য গার্মেন্টস মালিকেরা দায়ী। মালিকদের জিজ্ঞাসা করতে চাই, রানা প্লাজায় কেন আমাদের ১ হাজার ১৩৮ জন শ্রমিক ভাইবোনের জীবন দিতে হলো। তারা তো কাজ করতে এসেছিলেন। কিন্তু তারা আজকে নাই কেন? বায়ারদের জিজ্ঞেস করতে চাই তারা অর্ডার দেয়ার আগে রানা প্লাজার বিল্ডিং নিরাপদ কি-না, তা দেখল না কেন।’

রানা প্লাজাসহ সব গার্মেন্টস মালিকের সঙ্গে সরকারের যোগাযোগ আছে, তাই শ্রমিক হত্যা বা অনিয়ম নিয়ে কোন ব্যবস্থা নেয়া হয় না জানিয়ে আমিরুল হক বলেন, ‘মালিকদের অব্যবস্থাপনার কারণে হাজার হাজার শ্রমিকের মৃত্যু হয়। কিন্তু কোন ব্যবস্থা নেয়া হয় না। রানা প্লাজার মালিককে শ্রমিক হত্যার দায়ে কেন ফাঁসিতে ঝোলানো হলো না? কারণ এসব গার্মেন্টস মালিকের সঙ্গে সরকারের যোগাযোগ আছে।’

গার্মেন্টস শ্রমিকদের সব বকেয়া পাওনাসহ প্রত্যেক মাসের মজুরি মাসের ৭ তারিখের মধ্যে পরিষদ করতে হবে জানিয়ে বক্তারা সমাবেশে আরও জানান, গার্মেন্টস বাংলাদেশের প্রধানতম শিল্প। এখানে লক্ষ লক্ষ শ্রমিক-কর্মী কাজ করেন। তাদের নিরাপদ কর্মপরিবেশ নিশ্চিত করতে না পারলে এই শিল্পের যথাযথ বিকাশ ঘটানো সম্ভব না।

সমাবেশ আরও বক্তব্য রাখেন ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় নেতা আরিফা আক্তার, রফিকুল ইসলাম রফিক, নাসিমা আক্তার, মো. কবির হোসেন, মিসেস ইসরাত জাহান ইলা, মো. ফরিদুল ইসলাম, মো. রবিউল ইসলাম, একতা গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক কামরুল হাসানসহ প্রমুখ।

image

জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশন গতকাল রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত এক সমাবেশে গার্মেন্টসে নিরাপদ কর্মপরিবেশ নিশ্চিতের দাবি জানায় - সংবাদ

আরও খবর
মাত্রাতিরিক্ত কীটনাশক ব্যবহার প্রাকৃতিক জীববৈচিত্র্যে ফেলছে বিরূপ প্রভাব
জিঞ্জিরায় পাকিস্তান বাহিনীর গণহত্যা
সমতাভিত্তিক দেশ-সমাজ প্রতিষ্ঠার অঙ্গীকারে যাত্রা শুরু হয়
কোরীয় উপদ্বীপে পরমাণু নিরস্ত্রীকরণে সমর্থন দিবে বাংলাদেশ
বাংলাদেশের সামুদ্রিক নিরাপত্তায় বিশেষ সফটওয়্যার দিতে চায় ইউরোপীয় ইউনিয়ন
মাঠ গরমের ষড়যন্ত্র করছে বিএনপি কাদের
আবৃত্তি শিল্পী হাসান আরিফের মৃত্যু
পরিকল্পনা ছাড়া বিভিন্ন প্রকল্পের কাজের কারণে যানজট সৃষ্টি হচ্ছে মেয়র আতিক
দৌলতদিয়া ঘাট, নিত্য ভোগান্তি ও দুর্ভোগ

শনিবার, ০২ এপ্রিল ২০২২ , ১৯ চৈত্র ১৪২৮ ২৯ শাবান ১৪৪৩

গার্মেন্টসে নিরাপদ কর্মপরিবেশ নিশ্চিতের দাবি

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশন গতকাল রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত এক সমাবেশে গার্মেন্টসে নিরাপদ কর্মপরিবেশ নিশ্চিতের দাবি জানায় - সংবাদ

মাসের ৭ তারিখের মধ্যে গার্মেন্টস শ্রমিকদের বেতন ও শ্রমিকদের জন্য নিরাপদ কর্মপরিবেশ নিশ্চিত করার দাবি জানিয়েছে জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশন। কোন গার্মেন্টসে রানা প্লাজা বা তাজরীনের মতো ঘটনা যেন না ঘটে, সে বিষয়ে সরকারকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছে সংগঠনটি। গতকাল রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত এক সমাবেশে এসব দাবি জানান তারা।

সমাবেশে জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি আমিরুল হক আমিন বলেন, ‘গার্মেন্টস শিল্পে অনিয়ম ও অব্যবস্থাপনার জন্য শ্রমিকদের জীবন দিতে হয়। এর জন্য গার্মেন্টস মালিকেরা দায়ী। মালিকদের জিজ্ঞাসা করতে চাই, রানা প্লাজায় কেন আমাদের ১ হাজার ১৩৮ জন শ্রমিক ভাইবোনের জীবন দিতে হলো। তারা তো কাজ করতে এসেছিলেন। কিন্তু তারা আজকে নাই কেন? বায়ারদের জিজ্ঞেস করতে চাই তারা অর্ডার দেয়ার আগে রানা প্লাজার বিল্ডিং নিরাপদ কি-না, তা দেখল না কেন।’

রানা প্লাজাসহ সব গার্মেন্টস মালিকের সঙ্গে সরকারের যোগাযোগ আছে, তাই শ্রমিক হত্যা বা অনিয়ম নিয়ে কোন ব্যবস্থা নেয়া হয় না জানিয়ে আমিরুল হক বলেন, ‘মালিকদের অব্যবস্থাপনার কারণে হাজার হাজার শ্রমিকের মৃত্যু হয়। কিন্তু কোন ব্যবস্থা নেয়া হয় না। রানা প্লাজার মালিককে শ্রমিক হত্যার দায়ে কেন ফাঁসিতে ঝোলানো হলো না? কারণ এসব গার্মেন্টস মালিকের সঙ্গে সরকারের যোগাযোগ আছে।’

গার্মেন্টস শ্রমিকদের সব বকেয়া পাওনাসহ প্রত্যেক মাসের মজুরি মাসের ৭ তারিখের মধ্যে পরিষদ করতে হবে জানিয়ে বক্তারা সমাবেশে আরও জানান, গার্মেন্টস বাংলাদেশের প্রধানতম শিল্প। এখানে লক্ষ লক্ষ শ্রমিক-কর্মী কাজ করেন। তাদের নিরাপদ কর্মপরিবেশ নিশ্চিত করতে না পারলে এই শিল্পের যথাযথ বিকাশ ঘটানো সম্ভব না।

সমাবেশ আরও বক্তব্য রাখেন ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় নেতা আরিফা আক্তার, রফিকুল ইসলাম রফিক, নাসিমা আক্তার, মো. কবির হোসেন, মিসেস ইসরাত জাহান ইলা, মো. ফরিদুল ইসলাম, মো. রবিউল ইসলাম, একতা গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক কামরুল হাসানসহ প্রমুখ।