রংপুরে পরকীয়ায় যুবককে বাসায় ডেকে হত্যা, দম্পতি আটক

রংপুরের কাউনয়ায় উপজেলার টেপামধূপুর গ্রামে পরকীয়ায় জেরে সাইদুল ইসলাম (২২) নামে এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা করে ঘরের ভেতরে মাটি চাপা দেয়া অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় পুলিশ গৃহবধূ বুলবুলি বেগম ও তার স্বামী রফিকুল ইসলামকে আটক করেছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কাউনিয়া থানার ওসি মাসুমুর রহমান। পুলিশ জানিয়েছে কাউনিয়া উপজেলার টেপামধূপুর ইউনিয়নের আজম খাঁ গ্রামের অজিমুদ্দিনের ছেলে সাইদুল ইসলাম গত শুক্রবার সন্ধ্যায় বাসা থেকে বের হয়ে যায়। এরপর রাতে আর বাসায় ফেরেনি। স্বজনরা রাতে বিভিন্ন স্থানে খোজ করেও তার সন্ধান পায়নি। গতকাল বেলা ১১টার দিকে পার্শ্ববর্তী রফিকুল ইসলামের বাড়ির উঠানে রক্ত পড়ে থাকতে দেখে এলাকাবাসি ও স্বজনরা পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে রফিকুলের শোবার ঘরে মাটি চাপা অবস্থায় সাইদুলের লাশ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ রফিকুল ইসলাম ও তার স্ত্রী বুলবুলি বেগমকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

পুলিশ জানায় লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। পুলিশ আরও জানায় নিহত সাইদুল ইসলামের ঘাড়ে ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে সাইদুলকে বাসায় ডেকে এনে কুপিয়ে হত্যা করে লাশ ঘরের মধ্যেই মাটি খুড়ে পুতে রাখা হয়েছে। এলাকাবাসি জানিয়েছে বুলবুলি বেগমের সঙ্গে নিহত সাইদুল ইসলামের পরকীয়া সম্পর্ক ছিল। বিষয়টি তার স্বামী রফিকুল ইসলাম জানতে পেরে তার স্ত্রী বুলবুলি বেগমকে দিয়ে মোবাইল ফোনে ডেকে এনে হত্যা করেছে। তাদের পরকীয়া প্রেমের বিষয়টি এলাকায় বেশ কিছুদিন ধরে সবার মুখে মুখেই ছিল। ফলে পরকীয়া প্রেমের কারণেই সাইদুলকে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে কাউনিয়া থানার ওসি মাসুমুর রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান প্রাথমিকভাবে পরকীয়া প্রেমের জেরে হত্যাকা-টি ঘটেছে বলে আমরা জেনেছি। ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে রফিকুল ইসলাম ও তার স্ত্রী বুলবুলি বেগমকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়। রফিকুল ইসলাম তার স্ত্রীর সঙ্গে অবৈধ সম্পর্ক গড়ে তোলার ঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে সাইদুলকে হত্যা করেছে বলে জানিয়েছে সে কারণে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তবে বুলবুলি বেগমকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে তার ঘটনার সঙ্গে সংপৃক্ততা পাওয়া গেলে গ্রেপ্তার করা হবে। এ ঘটনায় মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান ওসি।

আরও খবর
ভিন্নভাবে সক্ষম ব্যক্তি, অটিজমদের স্থায়ী বাসস্থান ও কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা হবে : প্রধানমন্ত্রী
দিল্লিতে ইন্দিরা-তাজউদ্দীন আলোচনা, টাঙ্গাইলে পাকিস্তান বাহিনীর গণহত্যা
অটিজম শিশুর মায়েদের বিষণ্ণতা ও জীবনযাত্রার মান উন্নয়ন আশাব্যঞ্জক
রমজানে পণ্যের মান নিয়ন্ত্রণে বিশেষ কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে : শিল্পমন্ত্রী
স্বাস্থ্য খাতে অব্যবস্থাপনা ও অনিয়মের সঙ্গে বাড়ছে বৈষম্য
প্রবাসীর স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়ার বলি একরামুল
ডিসেম্বরেই আ’লীগের জাতীয় সম্মেলন
অবশেষে মামলা নিল পুলিশ!
উন্নয়নের রাজনীতিতে বাধা দিলে রুখে দাঁড়াবো : আইভী
প্ররোচনাকারীদের শাস্তি দাবিতে মানববন্ধন

রবিবার, ০৩ এপ্রিল ২০২২ , ২০ চৈত্র ১৪২৮ ৩০ শাবান ১৪৪৩

রংপুরে পরকীয়ায় যুবককে বাসায় ডেকে হত্যা, দম্পতি আটক

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক, রংপুর

রংপুরের কাউনয়ায় উপজেলার টেপামধূপুর গ্রামে পরকীয়ায় জেরে সাইদুল ইসলাম (২২) নামে এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা করে ঘরের ভেতরে মাটি চাপা দেয়া অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় পুলিশ গৃহবধূ বুলবুলি বেগম ও তার স্বামী রফিকুল ইসলামকে আটক করেছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কাউনিয়া থানার ওসি মাসুমুর রহমান। পুলিশ জানিয়েছে কাউনিয়া উপজেলার টেপামধূপুর ইউনিয়নের আজম খাঁ গ্রামের অজিমুদ্দিনের ছেলে সাইদুল ইসলাম গত শুক্রবার সন্ধ্যায় বাসা থেকে বের হয়ে যায়। এরপর রাতে আর বাসায় ফেরেনি। স্বজনরা রাতে বিভিন্ন স্থানে খোজ করেও তার সন্ধান পায়নি। গতকাল বেলা ১১টার দিকে পার্শ্ববর্তী রফিকুল ইসলামের বাড়ির উঠানে রক্ত পড়ে থাকতে দেখে এলাকাবাসি ও স্বজনরা পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে রফিকুলের শোবার ঘরে মাটি চাপা অবস্থায় সাইদুলের লাশ উদ্ধার করে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ রফিকুল ইসলাম ও তার স্ত্রী বুলবুলি বেগমকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

পুলিশ জানায় লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। পুলিশ আরও জানায় নিহত সাইদুল ইসলামের ঘাড়ে ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে সাইদুলকে বাসায় ডেকে এনে কুপিয়ে হত্যা করে লাশ ঘরের মধ্যেই মাটি খুড়ে পুতে রাখা হয়েছে। এলাকাবাসি জানিয়েছে বুলবুলি বেগমের সঙ্গে নিহত সাইদুল ইসলামের পরকীয়া সম্পর্ক ছিল। বিষয়টি তার স্বামী রফিকুল ইসলাম জানতে পেরে তার স্ত্রী বুলবুলি বেগমকে দিয়ে মোবাইল ফোনে ডেকে এনে হত্যা করেছে। তাদের পরকীয়া প্রেমের বিষয়টি এলাকায় বেশ কিছুদিন ধরে সবার মুখে মুখেই ছিল। ফলে পরকীয়া প্রেমের কারণেই সাইদুলকে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে কাউনিয়া থানার ওসি মাসুমুর রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান প্রাথমিকভাবে পরকীয়া প্রেমের জেরে হত্যাকা-টি ঘটেছে বলে আমরা জেনেছি। ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে রফিকুল ইসলাম ও তার স্ত্রী বুলবুলি বেগমকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়। রফিকুল ইসলাম তার স্ত্রীর সঙ্গে অবৈধ সম্পর্ক গড়ে তোলার ঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে সাইদুলকে হত্যা করেছে বলে জানিয়েছে সে কারণে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তবে বুলবুলি বেগমকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে তার ঘটনার সঙ্গে সংপৃক্ততা পাওয়া গেলে গ্রেপ্তার করা হবে। এ ঘটনায় মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান ওসি।