ওবায়দুল কাদের পরিবহন খাতে ব্যর্থ

অভিযোগ চুন্নুর, জবাব রাঙ্গার

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের পরিবহন ব্যবস্থাপনায় পুরোপুরি ব্যর্থ বলে জাতীয় সংসদে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির (জাপা) মহাসচিব ও সংসদ সদস্য মুজিবুল হক চুন্নু। রাজধানীতে সম্প্রতি বেশ কয়েকটি সড়ক দুর্ঘটনার কথা তুলে ধরে বাস মালিক সমিতিরও সমালোচনা করেন তিনি।

সংসদে চুন্নুর সমালোচনার জবাব দেন জাপার সাবেক মহাসচিব ও বর্তমান সংসদ সদস্য মসিউর রহমান রাঙ্গা। এর আগে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের বৈঠক শুরু হয়।

শেখ হাসিনার মন্ত্রিসভার সাবেক সদস্য মুজিবুল হক চুন্নু সংসদে বলেন, ‘ফ্লাইওভারে দুর্ঘটনায় নর্থসাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী নিহত হয়েছেন। একজন ছাত্রী স্কুটি নিয়ে যখন ফ্লাইওভারে ওঠে তখন একটি গাড়ির ধাক্কায় মারা যায়। গত বুধবার কামরুন্নেসা স্কুলের শিক্ষার্থীকে আনতে গিয়ে তার মা পুরনো লক্কড়- ঝক্কড় ব্রেকহীন বাসের ধাক্কায় মেয়েটির সামনে গাড়ির চাকার নিচে পড়ে মারা যায়। এর আগে মঙ্গলবার মিরপুরে বাসের ধাক্কায় প্রাণ হারায় সাবিনা ইয়াসমিন।’

জাপা মহাসচিব বলেন, ‘বর্তমান সরকার অনেক উন্নয়নের দাবিদার। উন্নয়ন অনেক করেছে। কিন্তু রাজধানী শহর ঢাকায় ট্রান্সপোর্টের একটি নীতিমালা, সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা চোখে পড়ছে না। ঢাকা শহরে ঘর থেকে বের হওয়ার কোন উপায় নেই। এখানে যেসব বাস চলে তার বেশির ভাগই পুরনো। লাইসেন্স নেই। কোন আইন মানে না। রাস্তায় যেখানে সেখানে পার্ক করে রাখে।’

চুন্নু তার পাশের আসনে বসা নিজ দলের সংসদ সদস্য রাঙ্গাকে ইঙ্গিত করে বলেন, ‘আমার পাশে বসেছেন বাংলাদেশ বাস ওনার্স মালিক সমিতির সভাপতি। ওনাদেরকে বলবো আপনারা মানুষের প্রতি দরদি হন। যে সমস্ত গাড়ির ব্রেক নেই, পুরনো ইঞ্জিন, রঙ নেই এগুলো সরকারের কেউ দেখে না। আপনারা সরকারের সঙ্গে যোগসাজসে জনগণকে কষ্ট দিচ্ছেন?’

মুজিবুল হক চুন্নু বলেন, ‘সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী পদ্মা ব্রিজসহ অনেক উন্নয়ন করেন, কিন্তু ট্রান্সপোর্টেশনের বিষয়ে টোটালি ফেল। ২৪ লাখ ড্রাইভিং লাইসেন্স আটকা পড়ে আছে। ঢাকা শহরে আজকে গাড়ি চলে না। ভালো বাস নেই। ঢাকায় নতুন ৫০০ থেকে ১০০০ বাস নামানোর সক্ষমতা কি সরকারের পক্ষে সম্ভব নয়? মানুষ নিজের টাকা দিয়ে টিকেট কিনে গাড়িতে যাবে। কিন্তু লাইনের পর লাইন। টিকেট কিনে ওঠার কোন বাস নেই। এত অপ্রতুল পরিবহন।’

নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম বৃদ্ধির প্রসঙ্গ উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘তথ্যমন্ত্রী বললেন- আমি নাকি অসত্য কথা বলেছি। অসত্য কথা বলার কোন প্রয়োজন নেই। আমরা ব্যবসা করি না। মার্কেটে যাই। এক সপ্তাহ আগে যে বেগুনের দাম ছিলো ৪০ টাকা পরশুদিন বাজারে গিয়ে দেখি ৭০ টাকা। ৩০ টাকার শসা ১০০ টাকা কেজি। ৩০ টাকা পেঁয়াজের কেজি ৩৫ টাকা। চিনির দাম বেড়েছে কেজিতে ৫ টাকা। ৬৩০ টাকার গরুর গোশত ৬৫০ টাকা। শুধু সয়বিন তেলের দাম কমেছে।’

পয়েন্ট অব অর্ডারে (অনির্ধারিত আলোচনায়) দাঁড়িয়ে চুন্নুর সমালোচনার জবাবে মাসিউর রহমান রাঙ্গা বলেন, ‘আমার কলিগ আমার ওপরে ক্ষোভের কারণে বললেন কি-না জানি না। আমি তার আগে জাতীয় পার্টির মহাসচিব ছিলাম দুই বছর। এটাই তার ক্ষোভের কারণ কি-না।’

সংসদে রাঙ্গা বলেন, ‘ঢাকায় যানজটের কারণে এখন একটি বাস তিনটির বেশি ট্রিপ দিতে পারে না। আয় আগের তুলনায় কমে গেছে। বাসের ফিটনেস আছে কি-না, সেটা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও বিআরটিএ দেখে। ফিটনেস না থাকলে জরিমানা করা হয়, বাস ডাম্প করা হয়।’ রাঙ্গা বলেন, ‘কোন গাড়ির বিরুদ্ধে অভিযোগ থাকলে, সেটা তাকে জানালে সংসদে বসেই তিনি জরুরি ব্যবস্থা নিতে পারতেন।’

সোমবার, ০৪ এপ্রিল ২০২২ , ২১ চৈত্র ১৪২৮ ০১ রমাদ্বান ১৪৪৩

ওবায়দুল কাদের পরিবহন খাতে ব্যর্থ

অভিযোগ চুন্নুর, জবাব রাঙ্গার

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের পরিবহন ব্যবস্থাপনায় পুরোপুরি ব্যর্থ বলে জাতীয় সংসদে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির (জাপা) মহাসচিব ও সংসদ সদস্য মুজিবুল হক চুন্নু। রাজধানীতে সম্প্রতি বেশ কয়েকটি সড়ক দুর্ঘটনার কথা তুলে ধরে বাস মালিক সমিতিরও সমালোচনা করেন তিনি।

সংসদে চুন্নুর সমালোচনার জবাব দেন জাপার সাবেক মহাসচিব ও বর্তমান সংসদ সদস্য মসিউর রহমান রাঙ্গা। এর আগে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের বৈঠক শুরু হয়।

শেখ হাসিনার মন্ত্রিসভার সাবেক সদস্য মুজিবুল হক চুন্নু সংসদে বলেন, ‘ফ্লাইওভারে দুর্ঘটনায় নর্থসাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী নিহত হয়েছেন। একজন ছাত্রী স্কুটি নিয়ে যখন ফ্লাইওভারে ওঠে তখন একটি গাড়ির ধাক্কায় মারা যায়। গত বুধবার কামরুন্নেসা স্কুলের শিক্ষার্থীকে আনতে গিয়ে তার মা পুরনো লক্কড়- ঝক্কড় ব্রেকহীন বাসের ধাক্কায় মেয়েটির সামনে গাড়ির চাকার নিচে পড়ে মারা যায়। এর আগে মঙ্গলবার মিরপুরে বাসের ধাক্কায় প্রাণ হারায় সাবিনা ইয়াসমিন।’

জাপা মহাসচিব বলেন, ‘বর্তমান সরকার অনেক উন্নয়নের দাবিদার। উন্নয়ন অনেক করেছে। কিন্তু রাজধানী শহর ঢাকায় ট্রান্সপোর্টের একটি নীতিমালা, সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা চোখে পড়ছে না। ঢাকা শহরে ঘর থেকে বের হওয়ার কোন উপায় নেই। এখানে যেসব বাস চলে তার বেশির ভাগই পুরনো। লাইসেন্স নেই। কোন আইন মানে না। রাস্তায় যেখানে সেখানে পার্ক করে রাখে।’

চুন্নু তার পাশের আসনে বসা নিজ দলের সংসদ সদস্য রাঙ্গাকে ইঙ্গিত করে বলেন, ‘আমার পাশে বসেছেন বাংলাদেশ বাস ওনার্স মালিক সমিতির সভাপতি। ওনাদেরকে বলবো আপনারা মানুষের প্রতি দরদি হন। যে সমস্ত গাড়ির ব্রেক নেই, পুরনো ইঞ্জিন, রঙ নেই এগুলো সরকারের কেউ দেখে না। আপনারা সরকারের সঙ্গে যোগসাজসে জনগণকে কষ্ট দিচ্ছেন?’

মুজিবুল হক চুন্নু বলেন, ‘সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী পদ্মা ব্রিজসহ অনেক উন্নয়ন করেন, কিন্তু ট্রান্সপোর্টেশনের বিষয়ে টোটালি ফেল। ২৪ লাখ ড্রাইভিং লাইসেন্স আটকা পড়ে আছে। ঢাকা শহরে আজকে গাড়ি চলে না। ভালো বাস নেই। ঢাকায় নতুন ৫০০ থেকে ১০০০ বাস নামানোর সক্ষমতা কি সরকারের পক্ষে সম্ভব নয়? মানুষ নিজের টাকা দিয়ে টিকেট কিনে গাড়িতে যাবে। কিন্তু লাইনের পর লাইন। টিকেট কিনে ওঠার কোন বাস নেই। এত অপ্রতুল পরিবহন।’

নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম বৃদ্ধির প্রসঙ্গ উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘তথ্যমন্ত্রী বললেন- আমি নাকি অসত্য কথা বলেছি। অসত্য কথা বলার কোন প্রয়োজন নেই। আমরা ব্যবসা করি না। মার্কেটে যাই। এক সপ্তাহ আগে যে বেগুনের দাম ছিলো ৪০ টাকা পরশুদিন বাজারে গিয়ে দেখি ৭০ টাকা। ৩০ টাকার শসা ১০০ টাকা কেজি। ৩০ টাকা পেঁয়াজের কেজি ৩৫ টাকা। চিনির দাম বেড়েছে কেজিতে ৫ টাকা। ৬৩০ টাকার গরুর গোশত ৬৫০ টাকা। শুধু সয়বিন তেলের দাম কমেছে।’

পয়েন্ট অব অর্ডারে (অনির্ধারিত আলোচনায়) দাঁড়িয়ে চুন্নুর সমালোচনার জবাবে মাসিউর রহমান রাঙ্গা বলেন, ‘আমার কলিগ আমার ওপরে ক্ষোভের কারণে বললেন কি-না জানি না। আমি তার আগে জাতীয় পার্টির মহাসচিব ছিলাম দুই বছর। এটাই তার ক্ষোভের কারণ কি-না।’

সংসদে রাঙ্গা বলেন, ‘ঢাকায় যানজটের কারণে এখন একটি বাস তিনটির বেশি ট্রিপ দিতে পারে না। আয় আগের তুলনায় কমে গেছে। বাসের ফিটনেস আছে কি-না, সেটা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও বিআরটিএ দেখে। ফিটনেস না থাকলে জরিমানা করা হয়, বাস ডাম্প করা হয়।’ রাঙ্গা বলেন, ‘কোন গাড়ির বিরুদ্ধে অভিযোগ থাকলে, সেটা তাকে জানালে সংসদে বসেই তিনি জরুরি ব্যবস্থা নিতে পারতেন।’