করোনা মোকাবিলায় দক্ষিণ এশিয়ায় শীর্ষে বাংলাদেশ, বিশ্বে পঞ্চম

করোনাভাইরাস মহামারী মোকাবিলায় দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান শীর্ষে। বিশ্বে পঞ্চম। গত বৃহস্পতিবার জাপানভিত্তিক নিক্কেই এশিয়ার প্রকাশিত ‘নিক্কেই কোভিড-১৯ রিকভারি সূচকে’ এই তথ্য উঠে এসেছে।

মূলত করোনা মহামারীর শুরু থেকে চলতি বছরের ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত বিশ্বের শতাধিক দেশের কোভিড-১৯ মোকাবিলার এই পরিসংখ্যান নিক্কেই এশিয়ার সূচকে তুলে ধরা হয়েছে। সূচকে বিশ্বের ১২১টি দেশের মধ্যে রিকভারি ইনডেক্সে শীর্ষস্থানে রয়েছে কাতার। তালিকার দ্বিতীয়, তৃতীয় ও চতুর্থ অবস্থানে রয়েছে যথাক্রমে সংযুক্ত আরব আমিরাত (ইউএই), কম্বোডিয়া ও রুয়ান্ডা। এরপরই পঞ্চম অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ।

নিক্কেই এশিয়া বলছে, করোনা সংক্রমণ ব্যবস্থাপনা, ভাইরাস প্রতিরোধী টিকাদান এবং এ সংক্রান্ত সামাজিক তৎপরতার ওপর ভিত্তি করে তাদের এই ‘নিক্কেই কোভিড-১৯ রিকভারি সূচক’-এ দেশ ও অঞ্চলের মূল্যায়ন করা হয়েছে। সূচকে কোন দেশের অবস্থান যত ওপরে হবে, করোনা মোকাবিলায় দেশটির অবস্থান তত ভালো বলে বোঝা যাবে।

ওপরের র‌্যাংকিংয়ের দেশগুলোতে অন্যদের তুলনায় সংক্রমণের হার ও মৃত্যুহার কম এবং টিকাদানের পরিস্থিতি ভালো বলে বোঝানো হয়। এসব বিষয় বিবেচনায় ৮৭ পয়েন্ট নিয়ে সূচকের শীর্ষে রয়েছে কাতার। একই পরিমাণ পয়েন্ট নিয়ে তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত (ইউএই)। এছাড়া ৮৩ দশমিক ৫ ও ৮২ দশমিক ৫ পয়েন্ট নিয়ে যথাক্রমে তৃতীয় ও চতুর্থ অবস্থানে রয়েছে কম্বোডিয়া ও রুয়ান্ডা।

আর ৮০ পয়েন্ট নিয়ে সূচকের পঞ্চম অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশের এই অবস্থান দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যেও সর্বোচ্চ। বাংলাদেশের পরে ষষ্ঠ অবস্থানে রয়েছে নেপাল।

দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে দ্বিতীয় নেপালের পয়েন্ট ৭৯। এছাড়া শীর্ষ দশে থাকা অন্য চারটি দেশের নাম- ডমিনিকান রিপাবলিক, চিলি, কুয়েত ও এল সালভেদর। তাদের পয়েন্ট যথাক্রমে- ৭৮, ৭৬, ৭৬ ও ৭৪।

এদিকে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে পাকিস্তান। তবে বৈশ্বিকভাবে ২৩তম অবস্থানে থাকা এই দেশটির পয়েন্ট ৭০। একই পয়েন্ট নিয়ে পাকিস্তানের সঙ্গে যৌথভাবে ২৩তম অবস্থানে রয়েছে পেরু। এছাড়া ৬৮ পয়েন্ট নিয়ে সূচকে ৩১তম অবস্থানে রয়েছে শ্রীলঙ্কা।

বাংলাদেশের আরেক প্রতিবেশী মায়ানমার ৬৩ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার ৬২ নম্বরে। দক্ষিণ এশীয়ার আরেক প্রতিবেশী দেশ ভারত রয়েছে ৭০তম অবস্থানে। ক্যারিবীয় দেশ হাইতির সঙ্গে যৌথভাবে থাকা দেশ দুটির পয়েন্ট ৬২ দশমিক ৫। এর পাশাপাশি ৪৪ পয়েন্ট নিয়ে তালিকায় ১১৭ নম্বরে রয়েছে আফগানিস্তান।

রবিবার, ০৮ মে ২০২২ , ২৪ বৈশাখ ১৪২৮ ০৫ শাওয়াল ১৪৪৩

করোনা মোকাবিলায় দক্ষিণ এশিয়ায় শীর্ষে বাংলাদেশ, বিশ্বে পঞ্চম

করোনাভাইরাস মহামারী মোকাবিলায় দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান শীর্ষে। বিশ্বে পঞ্চম। গত বৃহস্পতিবার জাপানভিত্তিক নিক্কেই এশিয়ার প্রকাশিত ‘নিক্কেই কোভিড-১৯ রিকভারি সূচকে’ এই তথ্য উঠে এসেছে।

মূলত করোনা মহামারীর শুরু থেকে চলতি বছরের ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত বিশ্বের শতাধিক দেশের কোভিড-১৯ মোকাবিলার এই পরিসংখ্যান নিক্কেই এশিয়ার সূচকে তুলে ধরা হয়েছে। সূচকে বিশ্বের ১২১টি দেশের মধ্যে রিকভারি ইনডেক্সে শীর্ষস্থানে রয়েছে কাতার। তালিকার দ্বিতীয়, তৃতীয় ও চতুর্থ অবস্থানে রয়েছে যথাক্রমে সংযুক্ত আরব আমিরাত (ইউএই), কম্বোডিয়া ও রুয়ান্ডা। এরপরই পঞ্চম অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ।

নিক্কেই এশিয়া বলছে, করোনা সংক্রমণ ব্যবস্থাপনা, ভাইরাস প্রতিরোধী টিকাদান এবং এ সংক্রান্ত সামাজিক তৎপরতার ওপর ভিত্তি করে তাদের এই ‘নিক্কেই কোভিড-১৯ রিকভারি সূচক’-এ দেশ ও অঞ্চলের মূল্যায়ন করা হয়েছে। সূচকে কোন দেশের অবস্থান যত ওপরে হবে, করোনা মোকাবিলায় দেশটির অবস্থান তত ভালো বলে বোঝা যাবে।

ওপরের র‌্যাংকিংয়ের দেশগুলোতে অন্যদের তুলনায় সংক্রমণের হার ও মৃত্যুহার কম এবং টিকাদানের পরিস্থিতি ভালো বলে বোঝানো হয়। এসব বিষয় বিবেচনায় ৮৭ পয়েন্ট নিয়ে সূচকের শীর্ষে রয়েছে কাতার। একই পরিমাণ পয়েন্ট নিয়ে তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত (ইউএই)। এছাড়া ৮৩ দশমিক ৫ ও ৮২ দশমিক ৫ পয়েন্ট নিয়ে যথাক্রমে তৃতীয় ও চতুর্থ অবস্থানে রয়েছে কম্বোডিয়া ও রুয়ান্ডা।

আর ৮০ পয়েন্ট নিয়ে সূচকের পঞ্চম অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ। বাংলাদেশের এই অবস্থান দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যেও সর্বোচ্চ। বাংলাদেশের পরে ষষ্ঠ অবস্থানে রয়েছে নেপাল।

দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে দ্বিতীয় নেপালের পয়েন্ট ৭৯। এছাড়া শীর্ষ দশে থাকা অন্য চারটি দেশের নাম- ডমিনিকান রিপাবলিক, চিলি, কুয়েত ও এল সালভেদর। তাদের পয়েন্ট যথাক্রমে- ৭৮, ৭৬, ৭৬ ও ৭৪।

এদিকে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে পাকিস্তান। তবে বৈশ্বিকভাবে ২৩তম অবস্থানে থাকা এই দেশটির পয়েন্ট ৭০। একই পয়েন্ট নিয়ে পাকিস্তানের সঙ্গে যৌথভাবে ২৩তম অবস্থানে রয়েছে পেরু। এছাড়া ৬৮ পয়েন্ট নিয়ে সূচকে ৩১তম অবস্থানে রয়েছে শ্রীলঙ্কা।

বাংলাদেশের আরেক প্রতিবেশী মায়ানমার ৬৩ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার ৬২ নম্বরে। দক্ষিণ এশীয়ার আরেক প্রতিবেশী দেশ ভারত রয়েছে ৭০তম অবস্থানে। ক্যারিবীয় দেশ হাইতির সঙ্গে যৌথভাবে থাকা দেশ দুটির পয়েন্ট ৬২ দশমিক ৫। এর পাশাপাশি ৪৪ পয়েন্ট নিয়ে তালিকায় ১১৭ নম্বরে রয়েছে আফগানিস্তান।