পটুয়াখালী আইনজীবী চত্বর থেকে যুবক অপহরণ

মামলায় হাজিরা দিতে এসেছিলেন

পটুয়াখালীর জজ কোর্ট আইনজীবী এনেক্স ভবন সংলগ্ন সড়ক থেকে বিপ্লব মিস্ত্রী (৩২) নামে এক যুবক অপহরণ হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজিরা দিয়ে বের হওয়ার পর বিপ্লব মিস্ত্রী নামে ওই যুবক অপহৃত হয়। গতকাল দুপুর ১টার দিকে প্রকাশ্য দিবালোকে পটুয়াখালী জজ কোর্টের পূর্ব পাশে আইনজীবী এনেক্স ভবন সংলগ্ন সড়কে এমন ঘটনায় হতবিহ্বল হয়ে পড়ে প্রত্যক্ষদর্শীরা। অপহৃত যুবক বাউফল উপজেলার পশ্চিম গোসিংগা গ্রামের বাসিন্দা বিমল মিস্ত্রী ছেলে।

পটুয়াখালী জজ কোর্টের জ্যেষ্ঠ আইনজীবী কমল দত্ত বলেন, নারী ও শিশু নির্যাতন একটি মামলায় বিপ্লব মিস্ত্রী প্রধান আসামি। ওই মামলার গতকাল হাজিরার তারিখ ছিল। দুপুরে চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলি আদালতে হাজিরা শেষে তার ভগ্নিপতি সবুজ কবিরাজকে সঙ্গে নিয়ে বাড়ি ফেরার জন্য আমার চেম্বার থেকে বের হয়। আইনজীবী এনেক্স ভবন সংলগ্ন চৌরাস্তা হয়ে দক্ষিণ দিকে টিসিবির পরিবেশক ফোরকান মৃধার দোকানের সামনে গেলে একদল যুবক জোর করে বিপ্লবকে টেনে হেঁচড়ে অটোরিকশায় তুলে নিয়ে যায়। এ সময় বিপ্লব ডাক-চিৎকার করলে উপস্থিত লোকজন এগিয়ে গেলেও তাকে রক্ষা করতে পারেনি।

আইনজীবী আরও বলেন, কিছুদিন আগে একটি মুসলিম মেয়েকে ধর্মান্তরিত করে বিয়ে করে বিপ্লব মিস্ত্রী। এ ঘটনায় মেয়ের বাবা শাহ আলম রাঢ়ী বাদী হয়ে বাউফল থানায় মামলা করে। ওই মামলায় পুলিশি তদন্তে অভিযোগপত্র থেকে বিপ্লব অব্যাহতি পায়। এছাড়া বিপ্লবের স্ত্রী নিলুফাকে তার বাবা-মা জোর করে তাদের বাড়ি নিয়ে গেলেও নিলুফা পালিয়ে আবার বিপ্লবের কাছে ফিরে আসে। ঘটনাস্থলে উপস্থিত ফোরকান মৃধা বলেন, হঠাৎ করে ১০-১২ জনের একটি দল জোর করে এক যুবককে অটোরিকশায় টেনে তুলতে দেখে এগিয়ে যাই। সম্ভবত মেয়ের বাবা এবং স্থানীয় ইউপি সদস্য ছিল। তারা বলেছে এটা পারিবারিক। পরে শুনি এটা অপহরণ।

এদিকে অপহরণের ঘটনার পরপর বিপ্লব অ্যাড. কমল দত্তকে কল দিয়ে ঘটনা অবহিত করেন। কলটি অনুসন্ধান করে দেখা গেছে বাউফল উপজেলার বাউফল ইউনিয়নের মৃত রশিদ শিকদারের ছেলে দুলাল শিকদারের। অন্যদিকে দুলাল শিকদার অপহরণের সঙ্গে জড়িত বলে নিশ্চিত করেছেন বিপ্লবের মামা কমল অধিকারী।

এদিকে পটুয়াখালী সদর থানার ওসি মো. মনিরুজ্জামান জানান, দুপুরে পরে জেলা আইনজীবী সমিতি এলাকায় মামলায় হাজিরা দিতে আসা বাউফলের বিপ্লব মিস্ত্রী নামে এক যুবকের অপহরণের একটি খবর পেয়ে থানা পুলিশের দুটি টিম শহরের বিভিন্ন এলাকায় তল্লাশির জন্য পাঠানো হয়েছে। এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত ওই যুবককে উদ্ধার করা যায়নি। এ প্রসঙ্গে বাউফল সার্কেল সহকারী পুলিশ সুপার সাহেদ চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেন, এরকম একটি অভিযোগ পেয়েছি। আমরা তদন্ত করে সত্যতা যাচাই করছি এবং ভিকটিমকে উদ্ধারের চেষ্টা চালাচ্ছি।

সোমবার, ০৯ মে ২০২২ , ২৬ বৈশাখ ১৪২৮ ০৬ শাওয়াল ১৪৪৩

পটুয়াখালী আইনজীবী চত্বর থেকে যুবক অপহরণ

মামলায় হাজিরা দিতে এসেছিলেন

পটুয়াখালীর জজ কোর্ট আইনজীবী এনেক্স ভবন সংলগ্ন সড়ক থেকে বিপ্লব মিস্ত্রী (৩২) নামে এক যুবক অপহরণ হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজিরা দিয়ে বের হওয়ার পর বিপ্লব মিস্ত্রী নামে ওই যুবক অপহৃত হয়। গতকাল দুপুর ১টার দিকে প্রকাশ্য দিবালোকে পটুয়াখালী জজ কোর্টের পূর্ব পাশে আইনজীবী এনেক্স ভবন সংলগ্ন সড়কে এমন ঘটনায় হতবিহ্বল হয়ে পড়ে প্রত্যক্ষদর্শীরা। অপহৃত যুবক বাউফল উপজেলার পশ্চিম গোসিংগা গ্রামের বাসিন্দা বিমল মিস্ত্রী ছেলে।

পটুয়াখালী জজ কোর্টের জ্যেষ্ঠ আইনজীবী কমল দত্ত বলেন, নারী ও শিশু নির্যাতন একটি মামলায় বিপ্লব মিস্ত্রী প্রধান আসামি। ওই মামলার গতকাল হাজিরার তারিখ ছিল। দুপুরে চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলি আদালতে হাজিরা শেষে তার ভগ্নিপতি সবুজ কবিরাজকে সঙ্গে নিয়ে বাড়ি ফেরার জন্য আমার চেম্বার থেকে বের হয়। আইনজীবী এনেক্স ভবন সংলগ্ন চৌরাস্তা হয়ে দক্ষিণ দিকে টিসিবির পরিবেশক ফোরকান মৃধার দোকানের সামনে গেলে একদল যুবক জোর করে বিপ্লবকে টেনে হেঁচড়ে অটোরিকশায় তুলে নিয়ে যায়। এ সময় বিপ্লব ডাক-চিৎকার করলে উপস্থিত লোকজন এগিয়ে গেলেও তাকে রক্ষা করতে পারেনি।

আইনজীবী আরও বলেন, কিছুদিন আগে একটি মুসলিম মেয়েকে ধর্মান্তরিত করে বিয়ে করে বিপ্লব মিস্ত্রী। এ ঘটনায় মেয়ের বাবা শাহ আলম রাঢ়ী বাদী হয়ে বাউফল থানায় মামলা করে। ওই মামলায় পুলিশি তদন্তে অভিযোগপত্র থেকে বিপ্লব অব্যাহতি পায়। এছাড়া বিপ্লবের স্ত্রী নিলুফাকে তার বাবা-মা জোর করে তাদের বাড়ি নিয়ে গেলেও নিলুফা পালিয়ে আবার বিপ্লবের কাছে ফিরে আসে। ঘটনাস্থলে উপস্থিত ফোরকান মৃধা বলেন, হঠাৎ করে ১০-১২ জনের একটি দল জোর করে এক যুবককে অটোরিকশায় টেনে তুলতে দেখে এগিয়ে যাই। সম্ভবত মেয়ের বাবা এবং স্থানীয় ইউপি সদস্য ছিল। তারা বলেছে এটা পারিবারিক। পরে শুনি এটা অপহরণ।

এদিকে অপহরণের ঘটনার পরপর বিপ্লব অ্যাড. কমল দত্তকে কল দিয়ে ঘটনা অবহিত করেন। কলটি অনুসন্ধান করে দেখা গেছে বাউফল উপজেলার বাউফল ইউনিয়নের মৃত রশিদ শিকদারের ছেলে দুলাল শিকদারের। অন্যদিকে দুলাল শিকদার অপহরণের সঙ্গে জড়িত বলে নিশ্চিত করেছেন বিপ্লবের মামা কমল অধিকারী।

এদিকে পটুয়াখালী সদর থানার ওসি মো. মনিরুজ্জামান জানান, দুপুরে পরে জেলা আইনজীবী সমিতি এলাকায় মামলায় হাজিরা দিতে আসা বাউফলের বিপ্লব মিস্ত্রী নামে এক যুবকের অপহরণের একটি খবর পেয়ে থানা পুলিশের দুটি টিম শহরের বিভিন্ন এলাকায় তল্লাশির জন্য পাঠানো হয়েছে। এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত ওই যুবককে উদ্ধার করা যায়নি। এ প্রসঙ্গে বাউফল সার্কেল সহকারী পুলিশ সুপার সাহেদ চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেন, এরকম একটি অভিযোগ পেয়েছি। আমরা তদন্ত করে সত্যতা যাচাই করছি এবং ভিকটিমকে উদ্ধারের চেষ্টা চালাচ্ছি।