আজ থেকে রাজশাহীর বাজারে আসছে আম

বাজারে নিরাপদ ও পরিপক্ব আম নিশ্চিত করতে গাছ থেকে আম নামানোর সময়সূচি নির্ধারণ করেছে রাজশাহী জেলা প্রশাসন।

গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে তিনটায় জেলা প্রশাসকের সভাকক্ষে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক, কৃষি কর্মকর্তা, ও বিভিন্ন উপজেলার ইউএনও’র উপস্থিতিতে সংবাদ সম্মলনের মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রাজশাহী অতিরিক্ত জেল প্রশাসক শরিফুল ইসলাম।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, আজ ১৩ মে থেকে শুরু হয়ে আম নামানো মৌসুম চলবে ২০ আগস্ট পর্যন্ত।

মূলত ১৩ মে থেকে আঠি জাতের আম পাড়া যাবে। এরপর পর্যায়ক্রমে ২০ মে গোপালভোগ, ২৫ মে লক্ষনভোগ, ২৫ মে রাণিপছন্দ, ২৮ মে খিরসাপাত/হিমসাগর, ০৬ জুন ল্যাংড়া, ১৫ জুন আম্রপালি ও ফজলি, ১০ জুলাই বারি-৪ ও আশ্বিনা, ১৫ জুলাই গোলমতী, ২০ আগস্ট ইলমতি জাতের আম নামাতে পারবেন চাষিরা।

এ সময় সংবাদ সম্মলনে জেলা প্রশাসেনর উর্ধতন কর্মকর্তা ছাড়াও কৃষিবিদ, ফল গবেষক, চাষি ও ব্যবসায়ীরা উপস্থিত ছিলেন।

উল্যেখ্য রাজশাহীতে এ বছর ১৮ হাজার হেক্টর জমিতে থাকা বাগান থেকে দুই লাখ ১৬ হাজার মেট্রিক টন আম উৎপাদন হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

শুক্রবার, ১৩ মে ২০২২ , ৩০ বৈশাখ ১৪২৮ ১০ শাওয়াল ১৪৪৩

আজ থেকে রাজশাহীর বাজারে আসছে আম

বাজারে নিরাপদ ও পরিপক্ব আম নিশ্চিত করতে গাছ থেকে আম নামানোর সময়সূচি নির্ধারণ করেছে রাজশাহী জেলা প্রশাসন।

গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে তিনটায় জেলা প্রশাসকের সভাকক্ষে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক, কৃষি কর্মকর্তা, ও বিভিন্ন উপজেলার ইউএনও’র উপস্থিতিতে সংবাদ সম্মলনের মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রাজশাহী অতিরিক্ত জেল প্রশাসক শরিফুল ইসলাম।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, আজ ১৩ মে থেকে শুরু হয়ে আম নামানো মৌসুম চলবে ২০ আগস্ট পর্যন্ত।

মূলত ১৩ মে থেকে আঠি জাতের আম পাড়া যাবে। এরপর পর্যায়ক্রমে ২০ মে গোপালভোগ, ২৫ মে লক্ষনভোগ, ২৫ মে রাণিপছন্দ, ২৮ মে খিরসাপাত/হিমসাগর, ০৬ জুন ল্যাংড়া, ১৫ জুন আম্রপালি ও ফজলি, ১০ জুলাই বারি-৪ ও আশ্বিনা, ১৫ জুলাই গোলমতী, ২০ আগস্ট ইলমতি জাতের আম নামাতে পারবেন চাষিরা।

এ সময় সংবাদ সম্মলনে জেলা প্রশাসেনর উর্ধতন কর্মকর্তা ছাড়াও কৃষিবিদ, ফল গবেষক, চাষি ও ব্যবসায়ীরা উপস্থিত ছিলেন।

উল্যেখ্য রাজশাহীতে এ বছর ১৮ হাজার হেক্টর জমিতে থাকা বাগান থেকে দুই লাখ ১৬ হাজার মেট্রিক টন আম উৎপাদন হবে বলে আশা করা হচ্ছে।