বিজিএমইএ’র নতুন লোগো উন্মোচন

টেকসই শিল্প নির্মাণের প্রত্যয় নিয়ে নতুন লোগো উন্মোচন করেছে পোশাক মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ। নতুন এই লোগোতে ৯টি অগ্রাধিকার সম্পন্ন বিষয় প্রকাশ করা হয়েছে। গতকাল পোশাক শিল্পের টেকসই উন্নয়ন ত্বরান্বিত করতে পোশাক শিল্পের জন্য নতুন রূপকল্প প্রণয়নের আনুষ্ঠানিক ঘোষণাকালে নতুন লোগোর উদ্বোধন করেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। বিজিএমইএ সভাপতি ফারুক হাসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সাবেক সভাপতি আবদুস সালাম মুর্শেদী ও বর্তমান নেতারা।

বিজিএমইএ সভাপতি ফারুক হাসান বলেন, ‘যেহেতু বিজিএমইএ আমাদের পোশাক শিল্পের মুখপাত্র, তাই এই শিল্পের এগিয়ে যাওয়া এবং ব্র্যান্ডিংয়ের জন্য বিজিএমইএ’র নিজস্ব ব্র্যান্ডিংও অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তাই আমরা বিজিএমইএ’র অতীত ঐতিহ্যকে অটুট রেখে আগামীর টেকসই শিল্প নির্মাণের প্রত্যয় নিয়ে বিজিএমইএ’র করপোরেট আইডেনটিটি অর্থাৎ লোগোতে পরিবর্তন এনেছি। আমরা মনে করি, বিজিএমইএ’র রিনিউড ভিশন বা নতুন প্রত্যয় সমগ্র পৃথিবীতে আমাদের পোশাক শিল্পের ভবিষ্যৎ অগ্রাধিকার সম্পর্কে একটি সুস্পষ্ট বার্তা প্রদান করবে। এটি একটি ডাইনামিক লোগো, যাতে ৯টি অগ্রাধিকার সম্পন্ন বিষয়কে ডটের মাধ্যমে প্রকাশ করা হয়েছে। এগুলোর প্রত্যেকটিরই স্বতন্ত্র অর্থ আছে।’

ফারুক হাসান লিখিত বক্তব্যে বলেন, ‘প্রযুক্তির ব্যাপক পরিবর্তনের সঙ্গে পোশাক শিল্প এমন একটি জায়গায় পৌঁছেছে যে শিল্পের প্রচলিত নিয়মগুলো খাটছে না, প্রায়শই চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হতে হচ্ছে। শিল্পকে আরও এগিয়ে নেয়ার জন্য পণ্যেও ডিজাইন পরিবর্তনের সঙ্গে খাপ খাইয়ে নেয়া, পিড টাইম কমানো হয়েছে, সর্বশেষ প্রযুক্তি গ্রহণ করা উৎপাদন ব্যয় হ্রাস করা এবং কারখানাগুলোকে আরও টেকসই করার কোন বিকল্প নেই। আর এ প্রচেষ্টাগুলো শুরু করার জন্য সংশ্লিষ্ট বিষয়গুলোতে জ্ঞানার্জন প্রতিষ্ঠা করেছি। এই কেন্দ্রের লক্ষ্য হচ্ছে পোশাক শিল্পের সক্ষমতা বৃদ্ধির সুযোগগুলো চিহ্নিত করে প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ ও ক্যাপাসিটি বিল্ডিং করা।’

পোশাক শিল্পের মুখপাত্র সংগঠন বিজিএমইএ। বিজিএমইএ শিল্পকে নেতৃত্ব দিচ্ছে এবং সময়ের প্রয়োজনে শিল্পকে এগিয়ে নিতে যখন যে উদ্যোগ নেয়া প্রয়োজন তাই নিচ্ছে। পোশাক শিল্পকে টেকসই উন্নয়নকে আরও এগিয়ে নেয়ার জন্য বিজিএমইএ শিল্পের জন্য একটি টেকসই শিল্পায়নে রোডম্যাপ তৈরি করতে যাচ্ছে, যা আমাদের সরকারের টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা বাস্তবায়নের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে তৈরি করা হচ্ছে।

বুধবার, ০৬ জুলাই ২০২২ , ২২ আষাড় ১৪২৮ ২৬ জিলহজ ১৪৪৩

বিজিএমইএ’র নতুন লোগো উন্মোচন

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

টেকসই শিল্প নির্মাণের প্রত্যয় নিয়ে নতুন লোগো উন্মোচন করেছে পোশাক মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ। নতুন এই লোগোতে ৯টি অগ্রাধিকার সম্পন্ন বিষয় প্রকাশ করা হয়েছে। গতকাল পোশাক শিল্পের টেকসই উন্নয়ন ত্বরান্বিত করতে পোশাক শিল্পের জন্য নতুন রূপকল্প প্রণয়নের আনুষ্ঠানিক ঘোষণাকালে নতুন লোগোর উদ্বোধন করেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। বিজিএমইএ সভাপতি ফারুক হাসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সাবেক সভাপতি আবদুস সালাম মুর্শেদী ও বর্তমান নেতারা।

বিজিএমইএ সভাপতি ফারুক হাসান বলেন, ‘যেহেতু বিজিএমইএ আমাদের পোশাক শিল্পের মুখপাত্র, তাই এই শিল্পের এগিয়ে যাওয়া এবং ব্র্যান্ডিংয়ের জন্য বিজিএমইএ’র নিজস্ব ব্র্যান্ডিংও অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তাই আমরা বিজিএমইএ’র অতীত ঐতিহ্যকে অটুট রেখে আগামীর টেকসই শিল্প নির্মাণের প্রত্যয় নিয়ে বিজিএমইএ’র করপোরেট আইডেনটিটি অর্থাৎ লোগোতে পরিবর্তন এনেছি। আমরা মনে করি, বিজিএমইএ’র রিনিউড ভিশন বা নতুন প্রত্যয় সমগ্র পৃথিবীতে আমাদের পোশাক শিল্পের ভবিষ্যৎ অগ্রাধিকার সম্পর্কে একটি সুস্পষ্ট বার্তা প্রদান করবে। এটি একটি ডাইনামিক লোগো, যাতে ৯টি অগ্রাধিকার সম্পন্ন বিষয়কে ডটের মাধ্যমে প্রকাশ করা হয়েছে। এগুলোর প্রত্যেকটিরই স্বতন্ত্র অর্থ আছে।’

ফারুক হাসান লিখিত বক্তব্যে বলেন, ‘প্রযুক্তির ব্যাপক পরিবর্তনের সঙ্গে পোশাক শিল্প এমন একটি জায়গায় পৌঁছেছে যে শিল্পের প্রচলিত নিয়মগুলো খাটছে না, প্রায়শই চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হতে হচ্ছে। শিল্পকে আরও এগিয়ে নেয়ার জন্য পণ্যেও ডিজাইন পরিবর্তনের সঙ্গে খাপ খাইয়ে নেয়া, পিড টাইম কমানো হয়েছে, সর্বশেষ প্রযুক্তি গ্রহণ করা উৎপাদন ব্যয় হ্রাস করা এবং কারখানাগুলোকে আরও টেকসই করার কোন বিকল্প নেই। আর এ প্রচেষ্টাগুলো শুরু করার জন্য সংশ্লিষ্ট বিষয়গুলোতে জ্ঞানার্জন প্রতিষ্ঠা করেছি। এই কেন্দ্রের লক্ষ্য হচ্ছে পোশাক শিল্পের সক্ষমতা বৃদ্ধির সুযোগগুলো চিহ্নিত করে প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ ও ক্যাপাসিটি বিল্ডিং করা।’

পোশাক শিল্পের মুখপাত্র সংগঠন বিজিএমইএ। বিজিএমইএ শিল্পকে নেতৃত্ব দিচ্ছে এবং সময়ের প্রয়োজনে শিল্পকে এগিয়ে নিতে যখন যে উদ্যোগ নেয়া প্রয়োজন তাই নিচ্ছে। পোশাক শিল্পকে টেকসই উন্নয়নকে আরও এগিয়ে নেয়ার জন্য বিজিএমইএ শিল্পের জন্য একটি টেকসই শিল্পায়নে রোডম্যাপ তৈরি করতে যাচ্ছে, যা আমাদের সরকারের টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা বাস্তবায়নের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে তৈরি করা হচ্ছে।