এসএসসি পরীক্ষার নতুন সূচি ঠিক হয়নি

স্থগিত হওয়া এসএসসি পরীক্ষার নতুন সূচি এখনও ঠিক হয়নি। তবে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দেয়ার দুই সপ্তাহ পর এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা শুরু হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। মন্ত্রী গতকাল সচিবালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়ে বলেন, ‘দেশের বিভিন্ন জেলায় বন্যা হওয়ায় আমরা এসএসসি-সমমান পরীক্ষা স্থগিত করেছি। বর্তমানে অনেক এলাকায় পানি নেমে গেছে, অনেক জায়গায় এখনও পানি রয়েছে।’

যেসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে পানি নেমে গেছে সেগুলোতে কী ধরনের ক্ষতি হয়েছে তা নিরূপণ করা হচ্ছে জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, বন্যায় অনেক শিক্ষার্থী তাদের বই হারিয়ে ফেলেছে বা নষ্ট হয়ে গেছে। কতজন শিক্ষার্থীর বই নষ্ট হয়েছে সেই তালিকা তৈরি করা হচ্ছে। তালিকা পাওয়ার পর পাঠ্যবইয়ের বাড়তি মজুদ থেকে তাদের বই দেয়া হবে।

বাড়তি বই বিতরণের পরও যদি বইয়ের সংকট দেখা দেয় তাহলে নতুন বই ছাপানো হবে জানিয়ে দীপু মনি বলেন, ‘তবে বন্যা পরিস্থিতি কবে নাগাদ স্বাভাবিক হবে তা এখনও বলা যাচ্ছে না। ফলে কবে থেকে এ পরীক্ষা নেয়া সম্ভব হবে তা বলা যাচ্ছে না।’

এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা গত ১৯ জুন শুরু হওয়ার কথা ছিল। সিলেট, সুনামগঞ্জসহ বিভিন্ন এলাকায় ভয়াবহ বন্যার কারণে গত ১৭ জুন এসএসসি পরীক্ষা স্থগিতের ঘোষণা দেয় শিক্ষা প্রশাসন।

১১টি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এবার এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার্থীয় ২০ লাখ ২১ হাজার ৮৬৮ জন শিক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে; যা গতবছরের তুলনায় দুই লাখ ২১ হাজার ৩৮৬ জন কম।

ধর্ম শিক্ষা নিয়ে বিতর্ক

এক প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, অনেকে প্রশ্ন তুলছেন যে নতুন কারিকুলামে ধর্ম শিক্ষা তুলে দেয়া হয়েছে। যারা এমনটি বলছেন, তারা না বুঝেই বিতর্ক করছেন। নতুন কারিকুলামে ধর্ম শিক্ষা বাদ দেয়া হয়নি, কখনো বাদ দেয়া হবেও না নতুন কারিকুলামে ধর্ম শিক্ষাকে ‘অনেক বেশি’ গুরুত্ব দেয়া হয়েছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘নতুন কারিকুলাম পড়ে শিক্ষার্থীরা নিজ নিজ ধর্মের মর্মবাণী অনুধাবন করতে পারবে। শিক্ষার্থীরা ব্যক্তি জীবনে যাতে ধর্মচর্চা করতে শেখে সেভাবেই এ কারিকুলাম তৈরি করা হয়েছে। অন্যায়ভাবে মানুষকে উসকে দিতে একটি মহল অপপ্রচার চালাচ্ছে। কোন বিষয়ে অভিযোগ তোলার আগে সেটি ভালো করে দেখা দরকার।’

বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২ , ২৩ আষাড় ১৪২৮ ২৭ জিলহজ ১৪৪৩

এসএসসি পরীক্ষার নতুন সূচি ঠিক হয়নি

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

স্থগিত হওয়া এসএসসি পরীক্ষার নতুন সূচি এখনও ঠিক হয়নি। তবে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দেয়ার দুই সপ্তাহ পর এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা শুরু হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। মন্ত্রী গতকাল সচিবালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়ে বলেন, ‘দেশের বিভিন্ন জেলায় বন্যা হওয়ায় আমরা এসএসসি-সমমান পরীক্ষা স্থগিত করেছি। বর্তমানে অনেক এলাকায় পানি নেমে গেছে, অনেক জায়গায় এখনও পানি রয়েছে।’

যেসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে পানি নেমে গেছে সেগুলোতে কী ধরনের ক্ষতি হয়েছে তা নিরূপণ করা হচ্ছে জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, বন্যায় অনেক শিক্ষার্থী তাদের বই হারিয়ে ফেলেছে বা নষ্ট হয়ে গেছে। কতজন শিক্ষার্থীর বই নষ্ট হয়েছে সেই তালিকা তৈরি করা হচ্ছে। তালিকা পাওয়ার পর পাঠ্যবইয়ের বাড়তি মজুদ থেকে তাদের বই দেয়া হবে।

বাড়তি বই বিতরণের পরও যদি বইয়ের সংকট দেখা দেয় তাহলে নতুন বই ছাপানো হবে জানিয়ে দীপু মনি বলেন, ‘তবে বন্যা পরিস্থিতি কবে নাগাদ স্বাভাবিক হবে তা এখনও বলা যাচ্ছে না। ফলে কবে থেকে এ পরীক্ষা নেয়া সম্ভব হবে তা বলা যাচ্ছে না।’

এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা গত ১৯ জুন শুরু হওয়ার কথা ছিল। সিলেট, সুনামগঞ্জসহ বিভিন্ন এলাকায় ভয়াবহ বন্যার কারণে গত ১৭ জুন এসএসসি পরীক্ষা স্থগিতের ঘোষণা দেয় শিক্ষা প্রশাসন।

১১টি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এবার এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার্থীয় ২০ লাখ ২১ হাজার ৮৬৮ জন শিক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে; যা গতবছরের তুলনায় দুই লাখ ২১ হাজার ৩৮৬ জন কম।

ধর্ম শিক্ষা নিয়ে বিতর্ক

এক প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, অনেকে প্রশ্ন তুলছেন যে নতুন কারিকুলামে ধর্ম শিক্ষা তুলে দেয়া হয়েছে। যারা এমনটি বলছেন, তারা না বুঝেই বিতর্ক করছেন। নতুন কারিকুলামে ধর্ম শিক্ষা বাদ দেয়া হয়নি, কখনো বাদ দেয়া হবেও না নতুন কারিকুলামে ধর্ম শিক্ষাকে ‘অনেক বেশি’ গুরুত্ব দেয়া হয়েছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘নতুন কারিকুলাম পড়ে শিক্ষার্থীরা নিজ নিজ ধর্মের মর্মবাণী অনুধাবন করতে পারবে। শিক্ষার্থীরা ব্যক্তি জীবনে যাতে ধর্মচর্চা করতে শেখে সেভাবেই এ কারিকুলাম তৈরি করা হয়েছে। অন্যায়ভাবে মানুষকে উসকে দিতে একটি মহল অপপ্রচার চালাচ্ছে। কোন বিষয়ে অভিযোগ তোলার আগে সেটি ভালো করে দেখা দরকার।’