গাড়ি কিনতে পারবে না ব্যাংক

বিশ্ব অর্থনীতির বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনায় ব্যাংকের সব ধরনের যানবাহন কেনায় নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। পাশাপাশি আপ্যায়ন, ভ্রমণ, কম্পিউটার ও আনুষঙ্গিক, বৈদ্যুতিক সরঞ্জামাদি, আসবাবপত্র ও অন্যান্য মনিহারি ব্যয় ৫০ শতাংশ কমাতে বলেছে। গতকাল বাংলাদেশ ব্যাংক ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ এ সংক্রান্ত নির্দেশনা দিয়েছে।

নির্দেশনায় বলা হয়েছে, বর্তমান বৈশ্বিক অর্থনৈতিক অবস্থার প্রেক্ষাপটে ব্যাংকগুলোকে চলতি বছরের জুলাই থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত এবং আগামী বছরের প্রথম ছয় মাসে (জানুয়ারি-জুন) বেশ কিছু খাতের পরিচালন ও উন্নয়ন ব্যয় স্থগিত ও কমাতে হবে। নতুন প্রতিস্থাপক হিসেবে সব ধরনের যানবাহন কেনা বন্ধ থাকবে। শুধুমাত্র জরুরি ও অপরিহার্য ক্ষেত্র বিবেচনায় আপ্যায়ন, ভ্রমণ, কম্পিউটার ও আনুষঙ্গিক, বৈদ্যুতিক সরঞ্জামাদি, আসবাবপত্র ও অন্যান্য মনিহারি খাতে বরাদ্দ করা অর্থের সর্বোচ্চ ৫০ শতাংশ ব্যয় করা যাবে। ব্যয় কমা?নোর তথ্য ও দলিলাদি ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ে সংরক্ষণ করতে হবে এবং সংশ্লিষ্ট ব্যাংক পরিদর্শনকালে নিরীক্ষার নিমিত্তে বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিদর্শকদের চাহিদার পরিপ্রেক্ষিতে সরবরাহ করতে হবে।

নির্দেশনার ক্ষেত্রে চল?তি বছ?রের জুলাই থে?কে ডিসেম্বর পর্যন্ত সময়ের ব্যয়িত অর্থ ডিসেম্বর ২০২২ এর আর্থিক বিবরণী এবং ২০২৩ সা?লের জানুয়ারি থে?কে জুন পর্যন্ত সময়ের ব্যয়িত অর্থ ডিসেম্বর ২০২৩ এর আর্থিক বিবরণীতে যুক্ত কর?তে হবে।

বৃহস্পতিবার, ২৮ জুলাই ২০২২ , ১৩ শ্রাবণ ১৪২৯ ২৯ জিলহজ ১৪৪৩

গাড়ি কিনতে পারবে না ব্যাংক

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

বিশ্ব অর্থনীতির বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনায় ব্যাংকের সব ধরনের যানবাহন কেনায় নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। পাশাপাশি আপ্যায়ন, ভ্রমণ, কম্পিউটার ও আনুষঙ্গিক, বৈদ্যুতিক সরঞ্জামাদি, আসবাবপত্র ও অন্যান্য মনিহারি ব্যয় ৫০ শতাংশ কমাতে বলেছে। গতকাল বাংলাদেশ ব্যাংক ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ এ সংক্রান্ত নির্দেশনা দিয়েছে।

নির্দেশনায় বলা হয়েছে, বর্তমান বৈশ্বিক অর্থনৈতিক অবস্থার প্রেক্ষাপটে ব্যাংকগুলোকে চলতি বছরের জুলাই থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত এবং আগামী বছরের প্রথম ছয় মাসে (জানুয়ারি-জুন) বেশ কিছু খাতের পরিচালন ও উন্নয়ন ব্যয় স্থগিত ও কমাতে হবে। নতুন প্রতিস্থাপক হিসেবে সব ধরনের যানবাহন কেনা বন্ধ থাকবে। শুধুমাত্র জরুরি ও অপরিহার্য ক্ষেত্র বিবেচনায় আপ্যায়ন, ভ্রমণ, কম্পিউটার ও আনুষঙ্গিক, বৈদ্যুতিক সরঞ্জামাদি, আসবাবপত্র ও অন্যান্য মনিহারি খাতে বরাদ্দ করা অর্থের সর্বোচ্চ ৫০ শতাংশ ব্যয় করা যাবে। ব্যয় কমা?নোর তথ্য ও দলিলাদি ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ে সংরক্ষণ করতে হবে এবং সংশ্লিষ্ট ব্যাংক পরিদর্শনকালে নিরীক্ষার নিমিত্তে বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিদর্শকদের চাহিদার পরিপ্রেক্ষিতে সরবরাহ করতে হবে।

নির্দেশনার ক্ষেত্রে চল?তি বছ?রের জুলাই থে?কে ডিসেম্বর পর্যন্ত সময়ের ব্যয়িত অর্থ ডিসেম্বর ২০২২ এর আর্থিক বিবরণী এবং ২০২৩ সা?লের জানুয়ারি থে?কে জুন পর্যন্ত সময়ের ব্যয়িত অর্থ ডিসেম্বর ২০২৩ এর আর্থিক বিবরণীতে যুক্ত কর?তে হবে।