শেয়ারবাজারে উত্থান, লেনদেন প্রায় হাজার কোটি টাকা

শেয়ারের ফ্লোর প্রাইস নির্ধারনের পর গত রোববার বড় উত্থান হয়েছিল শেয়ারবাজারে। তবে গতকাল বড় উত্থান না হলেও সব সূচক বেড়েছে শেয়ারবাজারে। অধিকাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর বেড়েছে। আর টাকার পরিমাণে লেনদেন হাজার কোটি টাকার দিকে এগিয়েছে।

গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৩০.০৩ পয়েন্ট বা ০.৪৮ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ১৬৩.৯৯ পয়েন্টে। ডিএসইর অপর সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ৭.৬০ পয়েন্ট বা ০.৫৬ শতাংশ এবং ডিএসই-৩০ সূচক ১০.৬১ পয়েন্ট বা ০.৪৮ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে এক হাজার ৩৪৭.০৮ পয়েন্টে এবং দুই হাজার ২০৪.১৮ পয়েন্টে।

ডিএসইতে গতকাল টাকার পরিমাণে লেনদেন হয়েছে ৯২১ কোটি ৭৩ লাখ টাকার। যা আগের কার্যদিবস হতে ৩৫৩ কোটি ৭৮ টাকা বেশি। আগের কার্য দিবসে লেনদেন হয়েছিল ৫৬৭ কোটি ৯৫ লাখ টাকা। ডিএসইতে গতকাল ৩৮২টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ২০৩টির বা ৫৩.১৪ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর বেড়েছে। দর কমেছে ১০২টির বা ২৬.৭০ শতাংশের এবং ৭৭টির বা ২০.১৬ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর অপরিবর্তিত রয়েছে।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই এদিন ১৪১.০০ পয়েন্ট বা ০.৭৮ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৮ হাজার ১১৭.৬৬ পয়েন্টে। এদিন সিএসইতে হাত বদল হওয়া ২৮৬টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ১৭১টির কমেছে ৩৮টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৭৭টির দর। গতকাল সিএসইতে ১৮ কোটি ৪৪ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

গতকাল ডিএসই’র ব্লক মার্কেটে ৩০টি কোম্পানি লেনদেনে অংশ নিয়েছে। এসব কোম্পানির ৪১ কোটি টাকার লেনদেন হয়েছে।

জানা গেছে, কোম্পানিগুলোর ৮১ লাখ ০২ হাজার ৬৮২টি শেয়ার ৭১ বার হাত বদলের মাধ্যমে ৪১ কোটি ০৩ লাখ ০৬ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে। কোম্পানিগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি অর্থাৎ ১৭ কোটি ১৭ লাখ ৭৭ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে ফরচুন সুজের। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩ কোটি ৩ লাখ ১৮ হাজার টাকার ওরিয়ন ইনফিউশনের, তৃতীয় সর্বোচ্চ ২ কোটি ৯৯ লাখ ৬৬ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে বিকন ফার্মার।

গতকাল ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ২০৩ টির বা ৫৩.১৪ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর বেড়েছে। এদিন কোম্পানিগুলোর মধ্যে এস্কয়ার নিট কম্পোজিটের শেয়ারের প্রতি বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ ছিল সবচেয়ে বেশি।

আগের কার্যদিবস লেনদেন শেষে এস্কয়ার নিট কম্পোজিটের শেয়ারের ক্লোজিং দর ছিল ৩৬.১০ টাকায়। গতকাল লেনদেন শেষে এর শেয়ারের ক্লোজিং দর দাঁড়ায় ৩৯.৭০ টাকায়। অর্থাৎ কোম্পানিটির শেয়ার দর ৩.৬০ টাকা বা ৯.৯৭ শতাংশ বেড়েছে। এর মাধ্যমে এস্কয়ার নিট কম্পোজিট ডিএসইর টপটেন গেইনার তালিকার শীর্ষে উঠে আসে।

ডিএসইতে টপটেন গেইনার তালিকায় উঠে আসা অন্য কোম্পানিগুলোর মধ্যে হা-ওয়েল টেক্সটাইলের ৯.৮৯ শতাংশ, তশরিফার ৯.৩১ শতাংশ, এমবি ফার্মার ৮.৭৪ শতাংশ, শেফার্ডের ৭.৮৮ শতাংশ, জেএমআই হসপিটালের ৭.৭৩ শতাংশ, মালেক স্পিনিংয়ের ৬.৬৬ শতাংশ, ইবিএল এনআরবি মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ৫.৯৭ শতাংশ, সোনারগাঁও টেক্সটাইলের৫.৯৭ শতাংশ এবং পেপার প্রসেসিংয়ের শেয়ার দর ৫.৯৩ শতাংশ বেড়েছে।

গতকাল ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ১০২ টির বা ২৬.৭০ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিটের দর কমেছে। কোম্পানিগুলোর মধ্যে নিটল ইন্স্যুরেন্সের শেয়ারের প্রতি বিনিয়োগকারীদের অনাগ্রহ ছিল সবচেয়ে বেশি। আগের কার্যদিবস নিটল ইন্স্যুরেন্সের শেয়ারের ক্লোজিং দর ছিল ৪৫.৬০ টাকায়। গতকাল লেনদেন শেষে এর শেয়ারের ক্লোজিং দর দাঁড়ায় ৪৩.৪০ টাকায়। অর্থাৎ গতকাল কোম্পানিটির শেয়ার দর ২.২০ টাকা বা ৪.৮২ শতাংশ কমেছে। এর মাধ্যমে নিটল ইন্স্যুরেন্স ডিএসইর টপটেন লুজার তালিকার শীর্ষে উঠে আসে।

এদিন ডিএসইতে টপটেন লুজার তালিকায় উঠে আসা অন্য কোম্পানিগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ ন্যাশনাল ইন্স্যুরেন্সের ৪.৬৮ শতাংশ, জনতা ইন্স্যুরেন্সের ৪.০১ শতাংশ, ফনিক্স ইন্স্যুরেন্সের ৩.৯৯ শতাংশ, এক্সপ্রেস ইন্স্যুরেন্সের ৩.৯৩ শতাংশ, পাইওনিয়ার ইন্স্যুরেন্সের ৩.৮৯ শতাংশ, ইউনাইটেড ইন্স্যুরেন্সের ৩.৮১ শতাংশ, ইসলামী ইন্স্যুরেন্সের ৩.৬২ শতাংশ, গ্রীণ ডেল্টা ইন্স্যুরেন্সের ৩.৫০ শতাংশ এবং মেঘনা ইন্স্যুরেন্সের শেয়ার দর ৩.৪১ শতাংশ কমেছে।

মঙ্গলবার, ০২ আগস্ট ২০২২ , ১৮ শ্রাবণ ১৪২৯ ৩ মহররম ১৪৪৪

শেয়ারবাজারে উত্থান, লেনদেন প্রায় হাজার কোটি টাকা

image

শেয়ারের ফ্লোর প্রাইস নির্ধারনের পর গত রোববার বড় উত্থান হয়েছিল শেয়ারবাজারে। তবে গতকাল বড় উত্থান না হলেও সব সূচক বেড়েছে শেয়ারবাজারে। অধিকাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর বেড়েছে। আর টাকার পরিমাণে লেনদেন হাজার কোটি টাকার দিকে এগিয়েছে।

গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৩০.০৩ পয়েন্ট বা ০.৪৮ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ১৬৩.৯৯ পয়েন্টে। ডিএসইর অপর সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ৭.৬০ পয়েন্ট বা ০.৫৬ শতাংশ এবং ডিএসই-৩০ সূচক ১০.৬১ পয়েন্ট বা ০.৪৮ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে এক হাজার ৩৪৭.০৮ পয়েন্টে এবং দুই হাজার ২০৪.১৮ পয়েন্টে।

ডিএসইতে গতকাল টাকার পরিমাণে লেনদেন হয়েছে ৯২১ কোটি ৭৩ লাখ টাকার। যা আগের কার্যদিবস হতে ৩৫৩ কোটি ৭৮ টাকা বেশি। আগের কার্য দিবসে লেনদেন হয়েছিল ৫৬৭ কোটি ৯৫ লাখ টাকা। ডিএসইতে গতকাল ৩৮২টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ২০৩টির বা ৫৩.১৪ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর বেড়েছে। দর কমেছে ১০২টির বা ২৬.৭০ শতাংশের এবং ৭৭টির বা ২০.১৬ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর অপরিবর্তিত রয়েছে।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই এদিন ১৪১.০০ পয়েন্ট বা ০.৭৮ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৮ হাজার ১১৭.৬৬ পয়েন্টে। এদিন সিএসইতে হাত বদল হওয়া ২৮৬টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ১৭১টির কমেছে ৩৮টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৭৭টির দর। গতকাল সিএসইতে ১৮ কোটি ৪৪ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

গতকাল ডিএসই’র ব্লক মার্কেটে ৩০টি কোম্পানি লেনদেনে অংশ নিয়েছে। এসব কোম্পানির ৪১ কোটি টাকার লেনদেন হয়েছে।

জানা গেছে, কোম্পানিগুলোর ৮১ লাখ ০২ হাজার ৬৮২টি শেয়ার ৭১ বার হাত বদলের মাধ্যমে ৪১ কোটি ০৩ লাখ ০৬ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে। কোম্পানিগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি অর্থাৎ ১৭ কোটি ১৭ লাখ ৭৭ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে ফরচুন সুজের। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩ কোটি ৩ লাখ ১৮ হাজার টাকার ওরিয়ন ইনফিউশনের, তৃতীয় সর্বোচ্চ ২ কোটি ৯৯ লাখ ৬৬ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে বিকন ফার্মার।

গতকাল ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ২০৩ টির বা ৫৩.১৪ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর বেড়েছে। এদিন কোম্পানিগুলোর মধ্যে এস্কয়ার নিট কম্পোজিটের শেয়ারের প্রতি বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ ছিল সবচেয়ে বেশি।

আগের কার্যদিবস লেনদেন শেষে এস্কয়ার নিট কম্পোজিটের শেয়ারের ক্লোজিং দর ছিল ৩৬.১০ টাকায়। গতকাল লেনদেন শেষে এর শেয়ারের ক্লোজিং দর দাঁড়ায় ৩৯.৭০ টাকায়। অর্থাৎ কোম্পানিটির শেয়ার দর ৩.৬০ টাকা বা ৯.৯৭ শতাংশ বেড়েছে। এর মাধ্যমে এস্কয়ার নিট কম্পোজিট ডিএসইর টপটেন গেইনার তালিকার শীর্ষে উঠে আসে।

ডিএসইতে টপটেন গেইনার তালিকায় উঠে আসা অন্য কোম্পানিগুলোর মধ্যে হা-ওয়েল টেক্সটাইলের ৯.৮৯ শতাংশ, তশরিফার ৯.৩১ শতাংশ, এমবি ফার্মার ৮.৭৪ শতাংশ, শেফার্ডের ৭.৮৮ শতাংশ, জেএমআই হসপিটালের ৭.৭৩ শতাংশ, মালেক স্পিনিংয়ের ৬.৬৬ শতাংশ, ইবিএল এনআরবি মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ৫.৯৭ শতাংশ, সোনারগাঁও টেক্সটাইলের৫.৯৭ শতাংশ এবং পেপার প্রসেসিংয়ের শেয়ার দর ৫.৯৩ শতাংশ বেড়েছে।

গতকাল ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ১০২ টির বা ২৬.৭০ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিটের দর কমেছে। কোম্পানিগুলোর মধ্যে নিটল ইন্স্যুরেন্সের শেয়ারের প্রতি বিনিয়োগকারীদের অনাগ্রহ ছিল সবচেয়ে বেশি। আগের কার্যদিবস নিটল ইন্স্যুরেন্সের শেয়ারের ক্লোজিং দর ছিল ৪৫.৬০ টাকায়। গতকাল লেনদেন শেষে এর শেয়ারের ক্লোজিং দর দাঁড়ায় ৪৩.৪০ টাকায়। অর্থাৎ গতকাল কোম্পানিটির শেয়ার দর ২.২০ টাকা বা ৪.৮২ শতাংশ কমেছে। এর মাধ্যমে নিটল ইন্স্যুরেন্স ডিএসইর টপটেন লুজার তালিকার শীর্ষে উঠে আসে।

এদিন ডিএসইতে টপটেন লুজার তালিকায় উঠে আসা অন্য কোম্পানিগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ ন্যাশনাল ইন্স্যুরেন্সের ৪.৬৮ শতাংশ, জনতা ইন্স্যুরেন্সের ৪.০১ শতাংশ, ফনিক্স ইন্স্যুরেন্সের ৩.৯৯ শতাংশ, এক্সপ্রেস ইন্স্যুরেন্সের ৩.৯৩ শতাংশ, পাইওনিয়ার ইন্স্যুরেন্সের ৩.৮৯ শতাংশ, ইউনাইটেড ইন্স্যুরেন্সের ৩.৮১ শতাংশ, ইসলামী ইন্স্যুরেন্সের ৩.৬২ শতাংশ, গ্রীণ ডেল্টা ইন্স্যুরেন্সের ৩.৫০ শতাংশ এবং মেঘনা ইন্স্যুরেন্সের শেয়ার দর ৩.৪১ শতাংশ কমেছে।