‘শোক থেকে শক্তির অভ্যুদয়, স্বপ্ন পূরণের দৃঢ় প্রত্যয়’ অনুষ্ঠান শুরু

শিল্পকলা একাডেমির আয়োজনে শোকাবহ আগস্ট উপলক্ষে একাডেমির জাতীয় সংগীত ও নৃত্যকলাকেন্দ্র মিলনায়তনে মাসব্যাপী ‘শোক থেকে শক্তির অভ্যুদয়, স্বপ্ন পূরণের দৃঢ় প্রত্যয়’ শিরোনামে অনুষ্ঠিত শুরু হয়েছে। গতকাল সন্ধ্যায় এই অনুষ্ঠান শুরু হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আবুল মনসুর। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন একুশে ও স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত দেশবরেণ্য কবি নির্মলেন্দু গুণ এবং একুশে ও স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত বিশিষ্ট নাট্যজন মঞ্চসারথি আতাউর রহমান। একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকীর সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য রাখেন একাডেমির প্রযোজনা বিভাগের পরিচালক সোহাইলা আফসানা ইকো এবং ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন সংগীত, নৃত্য ও আবৃত্তি বিভাগের পরিচালক কাজী আফতাব উদ্দিন হাবলু।

শোকের মাস উপলক্ষে বাঁশির করুণ সুরে গভীর শোকের আবহ তৈরি হয় সব দর্শকদের মাঝে। অনুষ্ঠানের শুরুতে জয়ন্ত চট্রোপাধ্যায় আবৃত্তি করেন কবি হাবিবুল্লাহ সিরাজীর কবিতা ‘আমি অপেক্ষায় আছি’ এবং কবি নির্মলেন্দু গুণ আবৃত্তি করেন ‘সেই রাত্রির কল্পকাহিনী’ কবিতা। আলোচনা পর্বের পর শুরু হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে শিল্পীদের সংগীত ও আবৃত্তিতে ফুটে উঠে এক মহানায়ক জাতীর পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের গল্প। শুরুতেই একাডেমির প্রতিশ্রুতিশীল শিল্পীদের কণ্ঠে পরিবেশিত হয় সমবেত সংগীত ‘ এই লাশ আমরা রাখবো কোথায়’ এবং জয় জয় জয় রে ও ভাই জয় বাংলার জয়’।

পর্যায়ক্রমে চলে একক সংগীত , আবৃত্তি এবং একক শিশু সংগীত। হৈমন্তি রক্ষিত এর ‘বঙ্গবন্ধু ফিরে এলে’; সোহানুর রহমান সোহান এর ‘মুজিব মানে আর কিছু না’; হিরক সরদার এর ‘ভুলি নাইগো জাতির পিতা’; ফরিদা পারভীন এর ‘খাঁচার ভিতর অচিন পাখি’; শরীফ সাধুর ‘মুজিব বাইয়া যাওরে’; রোকসানা আক্তার রূপসার ‘আমি বঙ্গবন্ধুর লাগিয়া’; আকরামুল ইসলাম এর ‘ও আমার দেশের সোনা ফলবে দেশের অঙ্গে’; আবিদা রহমান সেতুর ‘বঙ্গবন্ধু আছে সবার হৃদয়ে’।

এছাড়া শামছুল হুদার ‘জন্মের ঋণে করে গেছো ঋণি’; তৌহিদুল আলম প্রতীক এর ‘আমি যুদ্ধে যাবো মা’; শারমিন আক্তার শাওন এর ‘এই বাংলার মাটিতে’; নাফিস নিয়াজ খানের ‘আর কোথা নয় মাগো’; সাবরিনা নওশিন টুশির ‘দোয়েল শ্যামা বলে মুজিব’ এবং সুজানা হোসেন রুপার কণ্ঠে পরিবেশিত হয় ‘বঙ্গবন্ধু তুমি আজও মর নাই’ শিরোনামে একক সংগীত। প্রত্যয় এর পরিবেশনায় ‘শোন একটি মুজিবরের থেকে...’ শিরোনামে একক শিশু সংগীত। লায়লা আফরোজের কণ্ঠে আবৃত্তি হয় মহম্মদ নূরুল হুদার ‘১৫ই আগস্ট’ কবিতা।

মঙ্গলবার, ০২ আগস্ট ২০২২ , ১৮ শ্রাবণ ১৪২৯ ৩ মহররম ১৪৪৪

‘শোক থেকে শক্তির অভ্যুদয়, স্বপ্ন পূরণের দৃঢ় প্রত্যয়’ অনুষ্ঠান শুরু

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

শিল্পকলা একাডেমির আয়োজনে শোকাবহ আগস্ট উপলক্ষে একাডেমির জাতীয় সংগীত ও নৃত্যকলাকেন্দ্র মিলনায়তনে মাসব্যাপী ‘শোক থেকে শক্তির অভ্যুদয়, স্বপ্ন পূরণের দৃঢ় প্রত্যয়’ শিরোনামে অনুষ্ঠিত শুরু হয়েছে। গতকাল সন্ধ্যায় এই অনুষ্ঠান শুরু হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আবুল মনসুর। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন একুশে ও স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত দেশবরেণ্য কবি নির্মলেন্দু গুণ এবং একুশে ও স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত বিশিষ্ট নাট্যজন মঞ্চসারথি আতাউর রহমান। একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকীর সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য রাখেন একাডেমির প্রযোজনা বিভাগের পরিচালক সোহাইলা আফসানা ইকো এবং ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন সংগীত, নৃত্য ও আবৃত্তি বিভাগের পরিচালক কাজী আফতাব উদ্দিন হাবলু।

শোকের মাস উপলক্ষে বাঁশির করুণ সুরে গভীর শোকের আবহ তৈরি হয় সব দর্শকদের মাঝে। অনুষ্ঠানের শুরুতে জয়ন্ত চট্রোপাধ্যায় আবৃত্তি করেন কবি হাবিবুল্লাহ সিরাজীর কবিতা ‘আমি অপেক্ষায় আছি’ এবং কবি নির্মলেন্দু গুণ আবৃত্তি করেন ‘সেই রাত্রির কল্পকাহিনী’ কবিতা। আলোচনা পর্বের পর শুরু হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে শিল্পীদের সংগীত ও আবৃত্তিতে ফুটে উঠে এক মহানায়ক জাতীর পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের গল্প। শুরুতেই একাডেমির প্রতিশ্রুতিশীল শিল্পীদের কণ্ঠে পরিবেশিত হয় সমবেত সংগীত ‘ এই লাশ আমরা রাখবো কোথায়’ এবং জয় জয় জয় রে ও ভাই জয় বাংলার জয়’।

পর্যায়ক্রমে চলে একক সংগীত , আবৃত্তি এবং একক শিশু সংগীত। হৈমন্তি রক্ষিত এর ‘বঙ্গবন্ধু ফিরে এলে’; সোহানুর রহমান সোহান এর ‘মুজিব মানে আর কিছু না’; হিরক সরদার এর ‘ভুলি নাইগো জাতির পিতা’; ফরিদা পারভীন এর ‘খাঁচার ভিতর অচিন পাখি’; শরীফ সাধুর ‘মুজিব বাইয়া যাওরে’; রোকসানা আক্তার রূপসার ‘আমি বঙ্গবন্ধুর লাগিয়া’; আকরামুল ইসলাম এর ‘ও আমার দেশের সোনা ফলবে দেশের অঙ্গে’; আবিদা রহমান সেতুর ‘বঙ্গবন্ধু আছে সবার হৃদয়ে’।

এছাড়া শামছুল হুদার ‘জন্মের ঋণে করে গেছো ঋণি’; তৌহিদুল আলম প্রতীক এর ‘আমি যুদ্ধে যাবো মা’; শারমিন আক্তার শাওন এর ‘এই বাংলার মাটিতে’; নাফিস নিয়াজ খানের ‘আর কোথা নয় মাগো’; সাবরিনা নওশিন টুশির ‘দোয়েল শ্যামা বলে মুজিব’ এবং সুজানা হোসেন রুপার কণ্ঠে পরিবেশিত হয় ‘বঙ্গবন্ধু তুমি আজও মর নাই’ শিরোনামে একক সংগীত। প্রত্যয় এর পরিবেশনায় ‘শোন একটি মুজিবরের থেকে...’ শিরোনামে একক শিশু সংগীত। লায়লা আফরোজের কণ্ঠে আবৃত্তি হয় মহম্মদ নূরুল হুদার ‘১৫ই আগস্ট’ কবিতা।