মায়ানমার রাষ্ট্রদূতকে তলব করে কড়া প্রতিবাদ বাংলাদেশের

মায়ানমারের যুদ্ধবিমান থেকে দুটি গোলা বাংলাদেশ সীমান্তের জিরো পয়েন্টে পড়ার ঘটনায় দেশ?টির ঢাকায় নিযুক্ত রাষ্ট্রদূত উ অং কিয়াউ মো-কে তলব করে কড়া প্রতিবাদ জানিয়েছে ঢাকা।

গতকাল রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় মো-কে তলব করে এ বিষয়ে একটি কূটনৈতিক আনুষ্ঠানিক পত্র হস্তান্তর করা হয়।

সূত্রে জানা গেছে, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মায়ানমার অনুবিভাগের মহাপরিচালক মিয়া মো. মাইনুল কবির রাষ্ট্রদূতকে সমন করেন। তিনি রাষ্ট্রদূতের কাছে বাংলাদেশ ভূখ-ের গোলা পড়ার ঘটনায় ব্যাখ্যা চান।

এ ধরনের ঘটনার যেন আবারও পুনরাবৃত্তি না ঘটে, সে বিষয়ে সতর্ক করা হয় এবং গোলা পড়ার ঘটানায় তীব্র নিন্দা ও কড়া ভাষায় প্রতিবাদ জানা?নো হয়।

গত শনিবার সকাল সাড়ে ৯টায় মায়ানমারের যুদ্ধবিমান থেকে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম সীমান্ত এলাকার জিরো পয়েন্টে দুটি গোলা পড়ে। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুমের তুমব্রু সীমান্তের রেজু আমতলী বিজিবি বিওপির আওতাধীন সীমান্ত পিলার ৪০-৪১-এর মাঝামাঝি স্থানে মায়ানমার সীমান্তের ওপারে সেনাবাহিনীর দুটি যুদ্ধবিমান ও দুটি ফাইটিং হেলিকপ্টার টহল দিচ্ছিল। সে সময় তাদের যুদ্ধবিমান থেকে ৮ থেকে ১০টি গোলা ছোড়া হয়। এছাড়া হেলিকপ্টার গানশিপ থেকেও ৩০ থেকে ৩৫ রাউন্ড গুলি করে। এতে কোন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। তবে এ ঘটনায় স্থানীয়দের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

এর আগে গত ২০ ও ২৮ আগস্ট বিকেল ৩টার দিকে মায়ানমার থেকে নিক্ষেপ করা দুটি মর্টারশেল অবিস্ফোরিত অবস্থায় ঘুমধুমের তুমব্রু উত্তর মসজিদের কাছে পড়ে। পরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিশেষজ্ঞ দল সেগুলো নিষ্ক্রিয় করে।

সোমবার, ০৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ , ২১ ভাদ্র ১৪২৯ ৮ সফর ১৪৪৪

মায়ানমার রাষ্ট্রদূতকে তলব করে কড়া প্রতিবাদ বাংলাদেশের

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

মায়ানমারের যুদ্ধবিমান থেকে দুটি গোলা বাংলাদেশ সীমান্তের জিরো পয়েন্টে পড়ার ঘটনায় দেশ?টির ঢাকায় নিযুক্ত রাষ্ট্রদূত উ অং কিয়াউ মো-কে তলব করে কড়া প্রতিবাদ জানিয়েছে ঢাকা।

গতকাল রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় মো-কে তলব করে এ বিষয়ে একটি কূটনৈতিক আনুষ্ঠানিক পত্র হস্তান্তর করা হয়।

সূত্রে জানা গেছে, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মায়ানমার অনুবিভাগের মহাপরিচালক মিয়া মো. মাইনুল কবির রাষ্ট্রদূতকে সমন করেন। তিনি রাষ্ট্রদূতের কাছে বাংলাদেশ ভূখ-ের গোলা পড়ার ঘটনায় ব্যাখ্যা চান।

এ ধরনের ঘটনার যেন আবারও পুনরাবৃত্তি না ঘটে, সে বিষয়ে সতর্ক করা হয় এবং গোলা পড়ার ঘটানায় তীব্র নিন্দা ও কড়া ভাষায় প্রতিবাদ জানা?নো হয়।

গত শনিবার সকাল সাড়ে ৯টায় মায়ানমারের যুদ্ধবিমান থেকে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম সীমান্ত এলাকার জিরো পয়েন্টে দুটি গোলা পড়ে। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুমের তুমব্রু সীমান্তের রেজু আমতলী বিজিবি বিওপির আওতাধীন সীমান্ত পিলার ৪০-৪১-এর মাঝামাঝি স্থানে মায়ানমার সীমান্তের ওপারে সেনাবাহিনীর দুটি যুদ্ধবিমান ও দুটি ফাইটিং হেলিকপ্টার টহল দিচ্ছিল। সে সময় তাদের যুদ্ধবিমান থেকে ৮ থেকে ১০টি গোলা ছোড়া হয়। এছাড়া হেলিকপ্টার গানশিপ থেকেও ৩০ থেকে ৩৫ রাউন্ড গুলি করে। এতে কোন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। তবে এ ঘটনায় স্থানীয়দের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

এর আগে গত ২০ ও ২৮ আগস্ট বিকেল ৩টার দিকে মায়ানমার থেকে নিক্ষেপ করা দুটি মর্টারশেল অবিস্ফোরিত অবস্থায় ঘুমধুমের তুমব্রু উত্তর মসজিদের কাছে পড়ে। পরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিশেষজ্ঞ দল সেগুলো নিষ্ক্রিয় করে।