আওয়ামী লীগ জাতিকে বিভক্ত করে ফেলেছে

মির্জা ফখরুল

‘আওয়ামী লীগ গত ১৫ বছরে জাতিকে বিভক্ত করে ফেলেছে, সমাজকে একেবারে নষ্ট করে ফেলেছে তারা। এটা তো শুধু আজকে করছে তা নয়, ’৭২ সালের পরে যখন তারা ক্ষমতায় এসেছিল তখনি এই কাজটি করেছিল। এখন আবার গত ১৫ বছরে গোটা জাতিকে বিভক্ত করে ফেলেছে তারা’ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

ফখরুল বলেন, আজকে বাংলাদেশের রাজনৈতিক কাঠামো ভেঙে পড়েছে। নির্বাচনের মাধ্যমে যে একটি পার্লামেন্ট গঠন হবে, সরকার গঠন হবে- সেই নির্বাচনে জনগণ অংশ নিতে পারে না, তবে সেটা কিসের নির্বাচন?

গতকাল ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে ড. মোশাররফ ফাউন্ডেশনের আয়োজনে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য এবং গীতিকার, চলচ্চিত্র পরিচালক ও প্রযোজক গাজী মাজহারুল আনোয়ারের মৃত্যুতে স্মরণ সভায় এমন মন্তব্য করেন মির্জা ফখরুল।

ফখরুল বলেন, ‘আপনি বিচারালয়ে গিয়ে বিচার পাবেন না, আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে যাবেন নিরাপত্তার জন্য পাবেন না। তারা শুনবে আপনি বিএনপি করেন, না কি আওয়ামী লীগ করেন? যদি শোনেন বিএনপি করে তাহলে উল্টো মামলা দিয়ে দিবে।’

‘দেশের বর্তমান অবস্থা থেকে রক্ষা করতে হবে’ উল্লেখ করে ফখরুল আরও বলেন, ‘এখন প্রশ্ন, এই অবস্থা থেকে রক্ষা করা কি শুধু বিএনপির দায়িত্ব। বিএনপি চেষ্টা করছে তার সব শক্তি দিয়ে, কিন্তু এ জন্য সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। বাংলাদেশের স্বাধীনতার যে স্বপ্ন, তা নষ্ট হচ্ছে। সামনে এগিয়ে যাওয়ার যে পথ নষ্ট হচ্ছে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য সুন্দর একটি সমাজ রাষ্ট্র তৈরি করতে পারছি না। এর জন্য সম্পূর্ণভাবে আওয়ামী লীগ দায়ী।’

গাজী মাজহারুল আনোয়ারকে নিয়ে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘গাজী মাজহারুল আমাদের মধ্যে একটি নক্ষত্রের মতো ছিলেন। তার ব্যবহার ছিল অমায়িক। কারও বিরুদ্ধে কখনও সমালোচনা করতে শুনিনি। চরম বেয়াদব মানুষ তার বিরুদ্ধে কখনও লেখালেখি করলেও তিনি উচ্চ বাক্যে তার বিরুদ্ধে কিছু বলেননি।’

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, সেলিমা রহমান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, আবদুস সালাম প্রমুখ।

রবিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ , ০৪ আশ্বিন ১৪২৯ ২০ সফর ১৪৪৪

আওয়ামী লীগ জাতিকে বিভক্ত করে ফেলেছে

মির্জা ফখরুল

নিজস্ব প্রতিবেদক

‘আওয়ামী লীগ গত ১৫ বছরে জাতিকে বিভক্ত করে ফেলেছে, সমাজকে একেবারে নষ্ট করে ফেলেছে তারা। এটা তো শুধু আজকে করছে তা নয়, ’৭২ সালের পরে যখন তারা ক্ষমতায় এসেছিল তখনি এই কাজটি করেছিল। এখন আবার গত ১৫ বছরে গোটা জাতিকে বিভক্ত করে ফেলেছে তারা’ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

ফখরুল বলেন, আজকে বাংলাদেশের রাজনৈতিক কাঠামো ভেঙে পড়েছে। নির্বাচনের মাধ্যমে যে একটি পার্লামেন্ট গঠন হবে, সরকার গঠন হবে- সেই নির্বাচনে জনগণ অংশ নিতে পারে না, তবে সেটা কিসের নির্বাচন?

গতকাল ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে ড. মোশাররফ ফাউন্ডেশনের আয়োজনে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য এবং গীতিকার, চলচ্চিত্র পরিচালক ও প্রযোজক গাজী মাজহারুল আনোয়ারের মৃত্যুতে স্মরণ সভায় এমন মন্তব্য করেন মির্জা ফখরুল।

ফখরুল বলেন, ‘আপনি বিচারালয়ে গিয়ে বিচার পাবেন না, আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে যাবেন নিরাপত্তার জন্য পাবেন না। তারা শুনবে আপনি বিএনপি করেন, না কি আওয়ামী লীগ করেন? যদি শোনেন বিএনপি করে তাহলে উল্টো মামলা দিয়ে দিবে।’

‘দেশের বর্তমান অবস্থা থেকে রক্ষা করতে হবে’ উল্লেখ করে ফখরুল আরও বলেন, ‘এখন প্রশ্ন, এই অবস্থা থেকে রক্ষা করা কি শুধু বিএনপির দায়িত্ব। বিএনপি চেষ্টা করছে তার সব শক্তি দিয়ে, কিন্তু এ জন্য সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। বাংলাদেশের স্বাধীনতার যে স্বপ্ন, তা নষ্ট হচ্ছে। সামনে এগিয়ে যাওয়ার যে পথ নষ্ট হচ্ছে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য সুন্দর একটি সমাজ রাষ্ট্র তৈরি করতে পারছি না। এর জন্য সম্পূর্ণভাবে আওয়ামী লীগ দায়ী।’

গাজী মাজহারুল আনোয়ারকে নিয়ে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘গাজী মাজহারুল আমাদের মধ্যে একটি নক্ষত্রের মতো ছিলেন। তার ব্যবহার ছিল অমায়িক। কারও বিরুদ্ধে কখনও সমালোচনা করতে শুনিনি। চরম বেয়াদব মানুষ তার বিরুদ্ধে কখনও লেখালেখি করলেও তিনি উচ্চ বাক্যে তার বিরুদ্ধে কিছু বলেননি।’

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, সেলিমা রহমান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, আবদুস সালাম প্রমুখ।