পতেঙ্গায় পাঁচ শতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

চট্টগ্রাম মহানগরীর পতেঙ্গায় পাঁচ শতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করেছে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন। গত মঙ্গলবার সিমেন্ট ক্রসিং থেকে স্টিলমিল বাজার পর্যন্ত মূল সড়কের উভয় পাশ এবং খালপাড় রোড ও হাউজিং কলোনি রোডে এই উচ্ছেদ অভিযান চালানো হয়। সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত টানা ৪ ঘণ্টার এই অভিযান পরিচালনা করেন চসিকের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মারুফা বেগম নেলী। এ সময় মেয়রের একান্ত সচিব ও প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা মু. আবুল হাশেম ও ৪০ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল বারেক উপস্থিত ছিলেন। চসিকের প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা মু. আবুল হাশেম জানান, এখানে ফুটপাত ও রাস্তা অবৈধ দখলের কারণে গার্মেন্টস কর্মীদের যাতায়াতের প্রতিবন্ধকতার অভিযোগ দীর্ঘদিনের। সিমেন্ট ক্রসিং থেকে স্টিলমিল, হাউজিং কলোনি রোড ও খালপাড় রোডে ৫ শতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে।

কাউন্সিলর আব্দুল বারেক বলেন, সিমেন্ট ক্রসিং থেকে স্টিলমিল বাজার পর্যন্ত মূল সড়কের উভয় পাশ, খালপাড় রোড ও হাউজিং কলোনি রোডে উচ্ছেদ অভিযান চালানো হয়েছে। এখানে সকল প্রকার অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে।

আগামীতে কাঠগড়, মুসলিমাবাদ, পূর্ব কাঠগড় ও ডোমপাড়ায় উচ্ছেদ অভিযান চালানো হবে।

বৃহস্পতিবার, ১৭ নভেম্বর ২০২২ , ০২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ২১ রবিউস সানি ১৪৪৪

পতেঙ্গায় পাঁচ শতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

চট্টগ্রাম ব্যুরো

চট্টগ্রাম মহানগরীর পতেঙ্গায় পাঁচ শতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করেছে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন। গত মঙ্গলবার সিমেন্ট ক্রসিং থেকে স্টিলমিল বাজার পর্যন্ত মূল সড়কের উভয় পাশ এবং খালপাড় রোড ও হাউজিং কলোনি রোডে এই উচ্ছেদ অভিযান চালানো হয়। সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত টানা ৪ ঘণ্টার এই অভিযান পরিচালনা করেন চসিকের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মারুফা বেগম নেলী। এ সময় মেয়রের একান্ত সচিব ও প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা মু. আবুল হাশেম ও ৪০ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল বারেক উপস্থিত ছিলেন। চসিকের প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা মু. আবুল হাশেম জানান, এখানে ফুটপাত ও রাস্তা অবৈধ দখলের কারণে গার্মেন্টস কর্মীদের যাতায়াতের প্রতিবন্ধকতার অভিযোগ দীর্ঘদিনের। সিমেন্ট ক্রসিং থেকে স্টিলমিল, হাউজিং কলোনি রোড ও খালপাড় রোডে ৫ শতাধিক অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে।

কাউন্সিলর আব্দুল বারেক বলেন, সিমেন্ট ক্রসিং থেকে স্টিলমিল বাজার পর্যন্ত মূল সড়কের উভয় পাশ, খালপাড় রোড ও হাউজিং কলোনি রোডে উচ্ছেদ অভিযান চালানো হয়েছে। এখানে সকল প্রকার অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে।

আগামীতে কাঠগড়, মুসলিমাবাদ, পূর্ব কাঠগড় ও ডোমপাড়ায় উচ্ছেদ অভিযান চালানো হবে।