শাটলে শিক্ষার্থীদের দুর্ভোগ দূর হোক

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের যাতায়াতের ভোগান্তি দূর করতে ১৯৮০ সালে শাটল ট্রেনের ব্যবস্থা করা হয়। বর্তমান শাটল ট্রেনের অবস্থা খাপছাড়া। প্রতিদিন ১৫ হাজারেরও বেশি শিক্ষার্থী আসা-যাওয়া করে শাটল ট্রেনের মাধ্যমে।

কিন্তু শাটল ট্রেনে স্বস্তি পাচ্ছে না শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীর সংখ্যা বাড়লেও শাটল ট্রেনের সংখ্যা বাড়েনি। প্রত্যেক বগিতে পাখা আছে কিন্তু পাখা চলার ব্যবস্থা নাই। ফলে প্রচন্ড গরমে অস্বস্তিকর অবস্থায় যাতায়াত করতে হয়। সবচেয়ে বড় সমস্যা হলো শাটল ট্রেনের সময়সূচি নিয়ে। এটা সঠিক সময় অনুযায়ী চলে না কোনোদিন নির্দিষ্ট সময়ের পূর্বেই শাটল ট্রেন গন্তব্যের উদ্দেশ্যে চলতে শুরু করে, আবার কোনোদিন ট্রেন ছাড়ার নির্দিষ্ট সময় অতিক্রম হওয়ায় পরও ট্রেন থেমে থাকে।

দীর্ঘ এক ঘণ্টার যাতায়াতে ট্রেনের ভিতরে বিশেষ করে ছাঁদে টোকাই সমস্যা বর্তমানে খুবই নেতিবাচক প্রভাব ফেলছে। টোকাইদের কিছু অংশ ভালো হলেও একটা অংশ মাদকাসক্ত চুরি বা ছিনতাই মামলার আসামি। মাঝেমধ্যে শিক্ষার্থীদের মোবাইল ছিনতাই হচ্ছে। এতে আমাদের মতো সাধারণ শিক্ষার্থীদের শারীরিক ও মানসিক চিন্তার কারণ হয়। শাটল ট্রেনের সমস্যা এইভাবে চলছে বছরের পর বছর।

শাটল টেনের ভোগান্তি দূর করতে সঠিক পদক্ষেপ নেওয়া জরুরি। এ ব্যাপারে যথাযথ কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

সুমন চৌধুরী

বুধবার, ১৫ মার্চ ২০২৩ , ৩০ ফাল্গুন ১৪২৯, ২২ শবান ১৪৪৪

শাটলে শিক্ষার্থীদের দুর্ভোগ দূর হোক

image

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের যাতায়াতের ভোগান্তি দূর করতে ১৯৮০ সালে শাটল ট্রেনের ব্যবস্থা করা হয়। বর্তমান শাটল ট্রেনের অবস্থা খাপছাড়া। প্রতিদিন ১৫ হাজারেরও বেশি শিক্ষার্থী আসা-যাওয়া করে শাটল ট্রেনের মাধ্যমে।

কিন্তু শাটল ট্রেনে স্বস্তি পাচ্ছে না শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীর সংখ্যা বাড়লেও শাটল ট্রেনের সংখ্যা বাড়েনি। প্রত্যেক বগিতে পাখা আছে কিন্তু পাখা চলার ব্যবস্থা নাই। ফলে প্রচন্ড গরমে অস্বস্তিকর অবস্থায় যাতায়াত করতে হয়। সবচেয়ে বড় সমস্যা হলো শাটল ট্রেনের সময়সূচি নিয়ে। এটা সঠিক সময় অনুযায়ী চলে না কোনোদিন নির্দিষ্ট সময়ের পূর্বেই শাটল ট্রেন গন্তব্যের উদ্দেশ্যে চলতে শুরু করে, আবার কোনোদিন ট্রেন ছাড়ার নির্দিষ্ট সময় অতিক্রম হওয়ায় পরও ট্রেন থেমে থাকে।

দীর্ঘ এক ঘণ্টার যাতায়াতে ট্রেনের ভিতরে বিশেষ করে ছাঁদে টোকাই সমস্যা বর্তমানে খুবই নেতিবাচক প্রভাব ফেলছে। টোকাইদের কিছু অংশ ভালো হলেও একটা অংশ মাদকাসক্ত চুরি বা ছিনতাই মামলার আসামি। মাঝেমধ্যে শিক্ষার্থীদের মোবাইল ছিনতাই হচ্ছে। এতে আমাদের মতো সাধারণ শিক্ষার্থীদের শারীরিক ও মানসিক চিন্তার কারণ হয়। শাটল ট্রেনের সমস্যা এইভাবে চলছে বছরের পর বছর।

শাটল টেনের ভোগান্তি দূর করতে সঠিক পদক্ষেপ নেওয়া জরুরি। এ ব্যাপারে যথাযথ কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

সুমন চৌধুরী