বিশ্বায়নের এই যুগে শক্তিশালী আঞ্চলিক ভ্যালু চেইন খুব গুরুত্বপূর্ণ : বিজিএমইএ

বিজিএমইএ সভাপতি ফারুক হাসান ভারত মহাসাগরের আশপাশের দেশগুলোর মধ্যে একটি সহযোগিতামূলক সাপ্লাই চেইন গড়ে তোলার ওপর গুরুত্বারোপ করে বলেছেন, ‘শক্তিশালী আঞ্চলিক ভ্যালু চেইন পারস্পরিক সুবিধা অর্জনে সহায়তা করবে।’ গত শুক্রবার ঢাকায় ষষ্ঠ ভারত মহাসার সম্মেলন উপলক্ষে আয়োজিত এক অধিবেশনে ফারুক হাসান এ কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, ‘এটি আমাদের সক্ষমতা ও শক্তির পরিপূরক হবে এবং আমাদের একসঙ্গে বিকশিত হতে সহায়তা করবে। বিশ্বায়নের এই যুগে শক্তিশালী আঞ্চলিক ভ্যালু চেইন খুবই গুরুত্বপূর্ণ। পশ্চিমা বিশ্বে উন্নত দেশগুলো জোট গঠন করছে এবং পারস্পরিকভাবে লাভবান হচ্ছে। আমাদেরও এখন সময় এসেছে আমাদের শক্তি ভাগ করে নেয়ার। এটি পরস্পরকে সংশ্লিষ্ট খাতে প্রতিযোগী সক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করবে। টেকসই এবং অন্তর্ভুক্তিমূলক প্রবৃদ্ধি এবং উন্নয়নের জন্য এই অঞ্চলের মধ্যে জ্ঞান, দক্ষতা এবং প্রযুক্তির বিনিময় অপরিহার্য।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের অঞ্চলের দেশগুলোর প্রত্যেকেরই কিছু কিছু ক্ষেত্রে সুনির্দিষ্ট দক্ষতা রয়েছে এবং আমরা সেই দৃষ্টিকোণ থেকে একে অন্যকে সাহায্য করতে পারি। উদাহরণস্বরূপ, আমি যদি ভারতের কথা বলি, যে দেশটি বাংলাদেশের অন্যতম বৃহৎ বাণিজ্য অংশীদার- আমাদের পারস্পরিক বাণিজ্য সম্ভাবনা অন্বেষণ করার মতো পর্যাপ্ত সহযোগিতার ক্ষেত্র রয়েছে।’ বিজিএমইএ সভাপতি বলেন, ‘ভারত আপস্ট্রিম সেগমেন্টে বিশেষজ্ঞ এবং সিল্ক, তুলা, সুতা এবং ফেব্রিক্সের মতো কাঁচামাল বাংলাদেশে সরবরাহ করে। অন্যদিকে, বাংলাদেশ ডাউনস্ট্রিম ফাইনাল অ্যাপারেল সেগমেন্টে বিশেষজ্ঞ। তাই সহযোগিতার মাধ্যমে আমারা পারস্পরিক বাণিজ্য সুবিধা পাই।’

ইন্দো-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে অর্থনৈতিকভাবে টেকসই ভবিষ্যতের জন্য পথ নকশা শিরোনামের অধিবেশনে বক্তা হিসেবে আরও উপস্থিত ছিলেন অ্যালি হুসাম এল-দিন এল হেফনি, সেক্রেটারি জেনারেল, ইজিপশিয়ান কাউন্সিল ফর ফরেন অ্যাফেয়ার্স : লুজাইনা মহসিন হায়দার, চেয়ারপারসন ফর ইনফাস্ট্রাকচার, টেকনোলজি, ইন্ডাস্ট্রিয়াল অ্যান্ড কনজিউমার সলিউশনস, ওমান এবং প্রসাদ কারিওয়াসাম, সাবেক পররাষ্ট্র সচিব, শ্রীলঙ্কা।

বাংলাদেশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং ইন্ডিয়া ফাউন্ডেশনের যৌথ উদ্যোগে ভারত মহাসাগরীয় অঞ্চলের দেশগুলো কীভাবে অর্থনৈতিক উন্নয়ন করতে পারে, তা নিয়ে আলোচনার জন্য ১২-১৩ মে ঢাকায় অনুষ্ঠিত হচ্ছে ষষ্ঠ ভারত মহাসাগর সম্মেলন।

রবিবার, ১৪ মে ২০২৩ , ৩১ বৈশাখ ১৪৩০, ২৩ শাওয়াল ১৪৪৪

বিশ্বায়নের এই যুগে শক্তিশালী আঞ্চলিক ভ্যালু চেইন খুব গুরুত্বপূর্ণ : বিজিএমইএ

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

বিজিএমইএ সভাপতি ফারুক হাসান ভারত মহাসাগরের আশপাশের দেশগুলোর মধ্যে একটি সহযোগিতামূলক সাপ্লাই চেইন গড়ে তোলার ওপর গুরুত্বারোপ করে বলেছেন, ‘শক্তিশালী আঞ্চলিক ভ্যালু চেইন পারস্পরিক সুবিধা অর্জনে সহায়তা করবে।’ গত শুক্রবার ঢাকায় ষষ্ঠ ভারত মহাসার সম্মেলন উপলক্ষে আয়োজিত এক অধিবেশনে ফারুক হাসান এ কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, ‘এটি আমাদের সক্ষমতা ও শক্তির পরিপূরক হবে এবং আমাদের একসঙ্গে বিকশিত হতে সহায়তা করবে। বিশ্বায়নের এই যুগে শক্তিশালী আঞ্চলিক ভ্যালু চেইন খুবই গুরুত্বপূর্ণ। পশ্চিমা বিশ্বে উন্নত দেশগুলো জোট গঠন করছে এবং পারস্পরিকভাবে লাভবান হচ্ছে। আমাদেরও এখন সময় এসেছে আমাদের শক্তি ভাগ করে নেয়ার। এটি পরস্পরকে সংশ্লিষ্ট খাতে প্রতিযোগী সক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করবে। টেকসই এবং অন্তর্ভুক্তিমূলক প্রবৃদ্ধি এবং উন্নয়নের জন্য এই অঞ্চলের মধ্যে জ্ঞান, দক্ষতা এবং প্রযুক্তির বিনিময় অপরিহার্য।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের অঞ্চলের দেশগুলোর প্রত্যেকেরই কিছু কিছু ক্ষেত্রে সুনির্দিষ্ট দক্ষতা রয়েছে এবং আমরা সেই দৃষ্টিকোণ থেকে একে অন্যকে সাহায্য করতে পারি। উদাহরণস্বরূপ, আমি যদি ভারতের কথা বলি, যে দেশটি বাংলাদেশের অন্যতম বৃহৎ বাণিজ্য অংশীদার- আমাদের পারস্পরিক বাণিজ্য সম্ভাবনা অন্বেষণ করার মতো পর্যাপ্ত সহযোগিতার ক্ষেত্র রয়েছে।’ বিজিএমইএ সভাপতি বলেন, ‘ভারত আপস্ট্রিম সেগমেন্টে বিশেষজ্ঞ এবং সিল্ক, তুলা, সুতা এবং ফেব্রিক্সের মতো কাঁচামাল বাংলাদেশে সরবরাহ করে। অন্যদিকে, বাংলাদেশ ডাউনস্ট্রিম ফাইনাল অ্যাপারেল সেগমেন্টে বিশেষজ্ঞ। তাই সহযোগিতার মাধ্যমে আমারা পারস্পরিক বাণিজ্য সুবিধা পাই।’

ইন্দো-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে অর্থনৈতিকভাবে টেকসই ভবিষ্যতের জন্য পথ নকশা শিরোনামের অধিবেশনে বক্তা হিসেবে আরও উপস্থিত ছিলেন অ্যালি হুসাম এল-দিন এল হেফনি, সেক্রেটারি জেনারেল, ইজিপশিয়ান কাউন্সিল ফর ফরেন অ্যাফেয়ার্স : লুজাইনা মহসিন হায়দার, চেয়ারপারসন ফর ইনফাস্ট্রাকচার, টেকনোলজি, ইন্ডাস্ট্রিয়াল অ্যান্ড কনজিউমার সলিউশনস, ওমান এবং প্রসাদ কারিওয়াসাম, সাবেক পররাষ্ট্র সচিব, শ্রীলঙ্কা।

বাংলাদেশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং ইন্ডিয়া ফাউন্ডেশনের যৌথ উদ্যোগে ভারত মহাসাগরীয় অঞ্চলের দেশগুলো কীভাবে অর্থনৈতিক উন্নয়ন করতে পারে, তা নিয়ে আলোচনার জন্য ১২-১৩ মে ঢাকায় অনুষ্ঠিত হচ্ছে ষষ্ঠ ভারত মহাসাগর সম্মেলন।