৩ জেলা থেকে কুরিয়ারে একই খরচে আম পরিবহনের প্রস্তাব

চাঁপাইনবাবগঞ্জ, রাজশাহী ও নওগাঁ থেকে কুরিয়ার সার্ভিসে একই খরচে আম পরিবহনের প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। একই খরচে পরিবহনের বিষয়ে তিন জেলার জেলা প্রশাসক একমত হয়েছেন। এ বিষয়ে কুরিয়ার সার্ভিসগুলোকে সিদ্ধান্ত জানাতে বলা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে চাঁপাইনবাবগঞ্জ, রাজশাহী ও নওগাঁ জেলা থেকে ১০ টাকা কেজি দরে আম পরিবহনের প্রস্তাব করা হয়েছে। গতকাল জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত আম পরিবহন সংক্রান্ত মতবিনিময় সভায় এ উদ্যোগের কথা জানান চাঁপাইনবাবগঞ্জের জেলা প্রশাসক একেএম গালিভ খান।

সভায় জেলা প্রশাসক আরও জানান, সড়কে আম পরিবহনে কোন ধরনের হয়রানি সহ্য করা হবে না। এমনকি কুরিয়ার সার্ভিস বা অন্যান্য গাড়িতে আম পরিবহনে বেশি ভাড়া নেয়া হলে বা সেবা গ্রহীতাদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করলে ভোক্তা সংরক্ষণ আইনে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জেলা প্রশাসক আরও বলেন, ‘কুরিয়ার বা অন্যান্য গাড়িতে আম পাঠানোর সময় কেউ জেলা থেকে যাতে কোন ধরনের অবৈধ কিছু পাঠাতে না পারে, তা নিশ্চিত করতে সব আম ব্যবসায়ী ও পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের সহযোগিতা প্রয়োজন। এছাড়া আম পরিবহন করা যানবহনে অবশ্যই একটি স্টিকার থাকবে, যাতে লেখা থাকবে, ‘আম পরিবহনকারী যান’।

মঙ্গলবার, ১৬ মে ২০২৩ , ০২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩০, ২৫ শাওয়াল ১৪৪৪

৩ জেলা থেকে কুরিয়ারে একই খরচে আম পরিবহনের প্রস্তাব

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

চাঁপাইনবাবগঞ্জ, রাজশাহী ও নওগাঁ থেকে কুরিয়ার সার্ভিসে একই খরচে আম পরিবহনের প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। একই খরচে পরিবহনের বিষয়ে তিন জেলার জেলা প্রশাসক একমত হয়েছেন। এ বিষয়ে কুরিয়ার সার্ভিসগুলোকে সিদ্ধান্ত জানাতে বলা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে চাঁপাইনবাবগঞ্জ, রাজশাহী ও নওগাঁ জেলা থেকে ১০ টাকা কেজি দরে আম পরিবহনের প্রস্তাব করা হয়েছে। গতকাল জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত আম পরিবহন সংক্রান্ত মতবিনিময় সভায় এ উদ্যোগের কথা জানান চাঁপাইনবাবগঞ্জের জেলা প্রশাসক একেএম গালিভ খান।

সভায় জেলা প্রশাসক আরও জানান, সড়কে আম পরিবহনে কোন ধরনের হয়রানি সহ্য করা হবে না। এমনকি কুরিয়ার সার্ভিস বা অন্যান্য গাড়িতে আম পরিবহনে বেশি ভাড়া নেয়া হলে বা সেবা গ্রহীতাদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করলে ভোক্তা সংরক্ষণ আইনে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জেলা প্রশাসক আরও বলেন, ‘কুরিয়ার বা অন্যান্য গাড়িতে আম পাঠানোর সময় কেউ জেলা থেকে যাতে কোন ধরনের অবৈধ কিছু পাঠাতে না পারে, তা নিশ্চিত করতে সব আম ব্যবসায়ী ও পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের সহযোগিতা প্রয়োজন। এছাড়া আম পরিবহন করা যানবহনে অবশ্যই একটি স্টিকার থাকবে, যাতে লেখা থাকবে, ‘আম পরিবহনকারী যান’।