বিকাশ এজেন্টের আড়াই লাখ টাকা ব্যালেন্সসহ মোবাইল ছিনতাই, আটক-৪

গাজীপুরের কাপাসিয়ার দুর্গাপুর ইউনিয়নের রানীগঞ্জ বাজারের ‘হক টেলিকম’ নামে এক বিকাশ এজেন্টের দোকানে ঢুকে আড়াই লাখ টাকা ব্যালেন্সসহ মোবাইল ছিনতাই করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনার পর প্রায় ৮ কি.মি দূর থেকে চার ছিনতাইকারীকে আটক করেছে স্থানীয় জনতা। পরে ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ একটি প্রাইভেটকার ও ৭ টি মোবাইল ফোনসহ তাদেরকে আটক করেছে। ওই দোকান মালিক মো. নূরুল হক জানান, গতকাল রোববার দুপুরে তার দোকানে হঠাৎ করে এক নারীসহ চারজন লোক ঢুকে একই সাথেএকজন পাঁচশত টাকা বিকাশের কথা বলে, অন্যজন নগদে কিছু টাকা ক্যাশ আউটের কথা বলে, অপরজন একটি মোবাইল ফোন দেখতে চায়, আরেকজন একটি চার্জার দেখতে চায়।এভাবে একসাথে তাকে ব্যস্ত রাখার এক পর্যায়ে হঠাৎ করে একজন তার বিকাশ এজেন্টের মোবাইল ফোনটি নিয়ে দৌড়ে সামনের একটি প্রাইভেটকারে আরোহন করে। বাকীরাও সেই গাড়িতে ওঠার সাথে সাথেই দ্রুত তা পালিয়ে যায়। এ সময় একটি মোটর সাইকেল নিয়ে রানীগঞ্জ-গাজীপুর সড়কে তাদের পিছু ধাওয়া করে প্রায় ৮ কি.মি দূরে চাঁদপুর বাজারে স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় ব্যারিকেট দিয়ে এক নারীসহ চার ছিনতাইকারীকে আটক করা হয়। পরে তাদের কাছ থেকে বিকাশ এজেন্টের মোবাইল ফোনটি উদ্ধার করে ব্যালেন্স চেক করে দেখা যায়, ইতোমধ্যে সমস্ত টাকা ট্রান্সফার করে নেওয়া হয়েছে। পরে পুলিশে খবর দিলে তাদেরকে কাপাসিয়া থানায় নিয়ে আসে। আটকরা হলো শেরপুর জেলার শ্রীবরর্দী উপজেলার মৃত সুরুজ মিয়ার ছেলে আকিল হাসান (২৫), একই উপজেলার দষ্টিপাড়া গ্রামের মহিজুল ইসলামের ছেলে সোহাগ হোসেন (২৬) , দদি মন্ডলের ছেলে সফিকুল ইসলাম (২৮) ও গাইবান্দা জেলার পলাশবাড়ি শিবরামপুর গ্রামের নজরুল ইসলামের মেয়ে নিলুফা আক্তার (২০)। এ বিষয়ে কাপাসিয়া থানার ওসি এএইচএম লুৎফুল কবীর ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, আটকদের জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মঙ্গলবার, ১৬ মে ২০২৩ , ০২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩০, ২৫ শাওয়াল ১৪৪৪

বিকাশ এজেন্টের আড়াই লাখ টাকা ব্যালেন্সসহ মোবাইল ছিনতাই, আটক-৪

প্রতিনিধি, কাপাসিয়া (গাজীপুর)

গাজীপুরের কাপাসিয়ার দুর্গাপুর ইউনিয়নের রানীগঞ্জ বাজারের ‘হক টেলিকম’ নামে এক বিকাশ এজেন্টের দোকানে ঢুকে আড়াই লাখ টাকা ব্যালেন্সসহ মোবাইল ছিনতাই করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনার পর প্রায় ৮ কি.মি দূর থেকে চার ছিনতাইকারীকে আটক করেছে স্থানীয় জনতা। পরে ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ একটি প্রাইভেটকার ও ৭ টি মোবাইল ফোনসহ তাদেরকে আটক করেছে। ওই দোকান মালিক মো. নূরুল হক জানান, গতকাল রোববার দুপুরে তার দোকানে হঠাৎ করে এক নারীসহ চারজন লোক ঢুকে একই সাথেএকজন পাঁচশত টাকা বিকাশের কথা বলে, অন্যজন নগদে কিছু টাকা ক্যাশ আউটের কথা বলে, অপরজন একটি মোবাইল ফোন দেখতে চায়, আরেকজন একটি চার্জার দেখতে চায়।এভাবে একসাথে তাকে ব্যস্ত রাখার এক পর্যায়ে হঠাৎ করে একজন তার বিকাশ এজেন্টের মোবাইল ফোনটি নিয়ে দৌড়ে সামনের একটি প্রাইভেটকারে আরোহন করে। বাকীরাও সেই গাড়িতে ওঠার সাথে সাথেই দ্রুত তা পালিয়ে যায়। এ সময় একটি মোটর সাইকেল নিয়ে রানীগঞ্জ-গাজীপুর সড়কে তাদের পিছু ধাওয়া করে প্রায় ৮ কি.মি দূরে চাঁদপুর বাজারে স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় ব্যারিকেট দিয়ে এক নারীসহ চার ছিনতাইকারীকে আটক করা হয়। পরে তাদের কাছ থেকে বিকাশ এজেন্টের মোবাইল ফোনটি উদ্ধার করে ব্যালেন্স চেক করে দেখা যায়, ইতোমধ্যে সমস্ত টাকা ট্রান্সফার করে নেওয়া হয়েছে। পরে পুলিশে খবর দিলে তাদেরকে কাপাসিয়া থানায় নিয়ে আসে। আটকরা হলো শেরপুর জেলার শ্রীবরর্দী উপজেলার মৃত সুরুজ মিয়ার ছেলে আকিল হাসান (২৫), একই উপজেলার দষ্টিপাড়া গ্রামের মহিজুল ইসলামের ছেলে সোহাগ হোসেন (২৬) , দদি মন্ডলের ছেলে সফিকুল ইসলাম (২৮) ও গাইবান্দা জেলার পলাশবাড়ি শিবরামপুর গ্রামের নজরুল ইসলামের মেয়ে নিলুফা আক্তার (২০)। এ বিষয়ে কাপাসিয়া থানার ওসি এএইচএম লুৎফুল কবীর ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, আটকদের জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।