দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে নতুন পদ ‘আরবরিকালচার অফিসার’

নিয়োগ দেয়া হয়েছে, যোগ দেবেন শীঘ্রই

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি) পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষার্থে ও সৌন্দর্য বর্ধনে বিভিন্ন প্রজাতির লক্ষাধিক গাছ লাগাবে। আর এইসব গাছ নির্বাচন, রোপন ও পরিচর্যার পরামর্শের জন্য নতুন একটি স্থায়ী পদ সৃষ্টি করেছে ডিএসসিসি। সেই পদের নাম ‘আরবরিকালচার অফিসার’ বা উদ্ভিদ তত্ত্ববিদ কর্মকর্তা। এই পদে নিয়োগও দেয়া হয়েছে।

ডিএসসিসির তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী (পরিবেশ, জলবায়ু ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা) মো. খায়রুল বাকের সংবাদকে জানান, ‘আমাদের এই পদ ছিল না, এখন নতুন করে তৈরি হয়েছে। অর্গানোগ্রাম এ যোগ হয়েছে। অনুমোদন পেয়ে গেছি। সেই পদে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এখনও যোগদান করেনি।’

নতুন এই পদ অস্থায়ী না স্থায়ী, আর যোগদান কবে জানতে চাইলে তিনি আরও বলেন, পদটি স্থায়ী। কিছুদিনের মধ্যে যোগদান করবেন।

আরবরিকালচার অফিসার বা উদ্ভিদ তত্ত্ববিদ কর্মকর্তার কাজ কি জানতে চাইলে খায়রুল বাকের বলেন, ‘কোন আলোতে, কোন পরিবেশে, কি ধরনের গাছ লাগানো হবে তার পরামর্শ দেয়া ও তদারকি করা।’

তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী আরও জানান, ‘ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন এলাকায় ২০২৩ সালের আগস্ট-সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যে ২০ হাজার গাছ লাগানো হচ্ছে। এরমধ্যে যেখানে যা প্রয়োজন গাছ লাগানো হবে। পলাশ-শিমুল- বকুল-কৃষ্ণচূড়া-রাধাচূড়া-কদম-জারুল এই প্রজাতির গাছসহ ভালো ভালো ফুলের গাছও লাগাবো। মৌসুমী ফুলের গাছও লাগানো হবে। পাশাপাশি আম, জাম, কাঁঠালসহ যে গাছে পাখি বসে এমন গাছ লাগানো হবে।’

তিনি জানান বৃষ্টি শুরু হলেই এসব গাছ রাস্তার মাঝে (মিডিয়ামে), বাগান, খালেরপাড়-মাঠ-ধানমন্ডি লেকের ধারসহ বিভিন্ন চত্বরে লাগানো হবে।

খায়রুল বাকের জানান, ‘কাকরাইল থেকে সচিবালায় পর্যন্ত, বিভিন্ন চত্বর ও যেসব ফুটপাতে খালি জায়গা আছে সেখানেও গাছ লাগানো হবে। মিডিয়ামেও গাছ লাগানো হবে। যেগুলো স্বল্প হাইটের হয়। এছাড়া কিছু কিছু মশক প্রতিরোধক গাছও লাগানো হবে। টেন্ডার হয়ে আছে।’

তিনি বলেন এ বছরের অক্টোবর মাস খাল জলাশয়, লেকের পাড়সহ ৩০ কিলোমিটার এলাকায় লক্ষাধিক গাছ লাগানো হবে ডিএসসিসির একটি নিজস্ব প্রজেক্টের আওতায়। ‘বৃক্ষ বিশারদের পরমর্শ অনুযায়ী যেখানে যে ধরনের গাছ লাগানো দরকার সেখানে সে ধরনের গাছ লাগানো হবে,’ বলেন বাকের।

শুক্রবার, ১৯ মে ২০২৩ , ০৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩০, ২৮ শাওয়াল ১৪৪৪

দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে নতুন পদ ‘আরবরিকালচার অফিসার’

নিয়োগ দেয়া হয়েছে, যোগ দেবেন শীঘ্রই

আমিরুল মোমিনিন সাগর

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি) পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষার্থে ও সৌন্দর্য বর্ধনে বিভিন্ন প্রজাতির লক্ষাধিক গাছ লাগাবে। আর এইসব গাছ নির্বাচন, রোপন ও পরিচর্যার পরামর্শের জন্য নতুন একটি স্থায়ী পদ সৃষ্টি করেছে ডিএসসিসি। সেই পদের নাম ‘আরবরিকালচার অফিসার’ বা উদ্ভিদ তত্ত্ববিদ কর্মকর্তা। এই পদে নিয়োগও দেয়া হয়েছে।

ডিএসসিসির তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী (পরিবেশ, জলবায়ু ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা) মো. খায়রুল বাকের সংবাদকে জানান, ‘আমাদের এই পদ ছিল না, এখন নতুন করে তৈরি হয়েছে। অর্গানোগ্রাম এ যোগ হয়েছে। অনুমোদন পেয়ে গেছি। সেই পদে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এখনও যোগদান করেনি।’

নতুন এই পদ অস্থায়ী না স্থায়ী, আর যোগদান কবে জানতে চাইলে তিনি আরও বলেন, পদটি স্থায়ী। কিছুদিনের মধ্যে যোগদান করবেন।

আরবরিকালচার অফিসার বা উদ্ভিদ তত্ত্ববিদ কর্মকর্তার কাজ কি জানতে চাইলে খায়রুল বাকের বলেন, ‘কোন আলোতে, কোন পরিবেশে, কি ধরনের গাছ লাগানো হবে তার পরামর্শ দেয়া ও তদারকি করা।’

তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী আরও জানান, ‘ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন এলাকায় ২০২৩ সালের আগস্ট-সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যে ২০ হাজার গাছ লাগানো হচ্ছে। এরমধ্যে যেখানে যা প্রয়োজন গাছ লাগানো হবে। পলাশ-শিমুল- বকুল-কৃষ্ণচূড়া-রাধাচূড়া-কদম-জারুল এই প্রজাতির গাছসহ ভালো ভালো ফুলের গাছও লাগাবো। মৌসুমী ফুলের গাছও লাগানো হবে। পাশাপাশি আম, জাম, কাঁঠালসহ যে গাছে পাখি বসে এমন গাছ লাগানো হবে।’

তিনি জানান বৃষ্টি শুরু হলেই এসব গাছ রাস্তার মাঝে (মিডিয়ামে), বাগান, খালেরপাড়-মাঠ-ধানমন্ডি লেকের ধারসহ বিভিন্ন চত্বরে লাগানো হবে।

খায়রুল বাকের জানান, ‘কাকরাইল থেকে সচিবালায় পর্যন্ত, বিভিন্ন চত্বর ও যেসব ফুটপাতে খালি জায়গা আছে সেখানেও গাছ লাগানো হবে। মিডিয়ামেও গাছ লাগানো হবে। যেগুলো স্বল্প হাইটের হয়। এছাড়া কিছু কিছু মশক প্রতিরোধক গাছও লাগানো হবে। টেন্ডার হয়ে আছে।’

তিনি বলেন এ বছরের অক্টোবর মাস খাল জলাশয়, লেকের পাড়সহ ৩০ কিলোমিটার এলাকায় লক্ষাধিক গাছ লাগানো হবে ডিএসসিসির একটি নিজস্ব প্রজেক্টের আওতায়। ‘বৃক্ষ বিশারদের পরমর্শ অনুযায়ী যেখানে যে ধরনের গাছ লাগানো দরকার সেখানে সে ধরনের গাছ লাগানো হবে,’ বলেন বাকের।