বৈদেশিক মুদ্রা আয়ে অবদান রাখছে ‘মেহেরপুর টিটিসি’

মেহেরপুরে তরুণ প্রজন্মের সুন্দর ও সচ্ছল জীবন গড়তে কাজ করছে কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র (টিটিসি)। বিশেষ করে যারা কারিগরি শিক্ষা নিয়ে ভবিষ্যতের জীবিকার উৎস তৈরী করতে চান তাদের জন্য । মেহেরপুর-কুষ্টিয়া সড়কের পাশে বিসিক সংলগ্ন এলাকায় মেহেরপুর গণপূর্ত বিভাগ ২৩ কোটি ৬২ লাখ টাকা ব্যয়ে কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রটি (টিটিসি) ২০১৪ সাল থেকে শুরু করে ২০১৭ সালে শেষ করেছে নির্মাণ। উদ্বোধনের পর থেকে শুরু হয়েছে বিদেশগামী কর্মীদের প্রশিক্ষণ কার্যক্রম। যে কার্যক্রমের আওতায় ২০১৭ সাল থেকে এ পর্যন্ত ২২ হাজার জন বিদেশগামী কর্মী প্রশিক্ষণ নিয়েছে বলে দাপ্তরিক সূত্রে জানা যায়। এছাড়াও ২০১৭ সাল থেকে ৭টি ট্রেডে মোট ১ হাজার ৮শ ৩২ জন প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। সেইপ প্রকল্পের অধিনে আরও ২৭০ জন প্রশিক্ষণ নিয়ে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে কর্মরত আছেন। যা থেকে বছরে প্রায় ১৩২ কোটি বৈদেশিক মুদ্রা অর্জিত হচ্ছে। বর্তমানে চলমান কোর্সে ৩শ জন বিভিন্ন ট্রেডে প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন। কম্পিউটার অপারেশন, ইলেকট্রিক্যাল, মেকানিক্যাল, সিভিল কন্সট্রাকশন, ইলেকট্রনিক্স, গার্মেন্টস, ড্রাইভিং উইথ অটোমেকানিক্স ও জাপানি ভাষা প্রশিক্ষণ কোর্স মিলে মোট ৮টি ট্রেডে প্রশিক্ষণ দেয়া হচ্ছে। সরেজমিনে দেখা গেছে, টিটিসির তিনটি ভবনের একটি একাডেমিক, একটি ডরমিটরি, একটি প্রিন্সিপাল ও ভাইস প্রিন্সিপালের কোয়ার্টার্স ও হোস্টেল। একাডেমিক ভবনটিতে ক্লাস হচ্ছে। বিভিন্ন প্রশিক্ষণার্থীরা বিভিন্ন বিষয়ে হাতে কলমে প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন। আছে মূল্যবান সব যন্ত্র। যে গুলো ব্যবহার করে দক্ষ জনশক্তি তৈরির চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন প্রশিক্ষকরা।

ড্রাইভিং ট্রেডে প্রশিক্ষণ নেওয়া বাদশা মিয়া বলেন, কারিগরি প্রশিক্ষণ থেকে আমি ড্রাইভিং কোর্সে প্রশিক্ষণ নিয়ে বর্তমানে একজন দক্ষ ড্রাইভার হিসেবে গাড়ি চালাচ্ছি। আমার বড় ভাই রাজু মিয়া সেও ড্রাইভিং শিখে সৌদি আরবে গাড়ি চালকের কাজ করছে। ইতোমধ্যে আমি নিজেও একটা গাড়ি কিনেছি এবং আমি স্বাবলম্বী হয়েছি।

মেহেরপুর কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের প্রশিক্ষক ওহিদুজ্জামান বলেন, আমরা দক্ষ মানব শক্তি তৈরি করছি। বিদেশে দক্ষ কর্মী পাঠানো ও দেশেই বিষয়ভিত্তিক হাতের কাজ করতে পারবে তারা। এছাড়াও উত্তীর্ণ ছাত্রছাত্রীদের ডাটাবেজ তৈরি করছে বিএমইটি। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে কোনো দেশে কর্মী পাঠানোর চাহিদা পেলে ডাটাবেজ অন্তর্গতরা অগ্রাধিকার পাবে। আরেক প্রশিক্ষক শিখা খানম বলেন, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অধীনে কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের বিভিন্ন কোর্সে আমরা প্রশিক্ষণ দিয়ে আস?ছি। যেমন মোটর ড্রাইভিং, ইলেকট্রিক্যাল, ইলেকট্রনিক্স, কম্পিউটার, গার্মেন্টস, বিভিন্ন ভাষায় অসংখ্য ছাত্র-ছাত্রীদের বিনামূল্যে প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকি। এ বছর আমাদের উল্লেখযোগ্য পরিমাণ ছাত্র-ছাত্রী বিআরটিএর মাধ্যমে ড্রাইভিং লাইসেন্স পেতে সক্ষম হয়েছে। এছাড়াও যোগাযোগ ব্যবস্থা দুর্গম হাওয়ায় প্রশিক্ষণার্থীদের হোস্টেলে থেকে প্রশিক্ষণ নেওয়ার সুযোগ রয়েছে।

মেহেরপুর কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের অধ্যক্ষ আরিফ হোসেন তালুদার বলেন, এই টিটিসি দেশে-বিদেশে দক্ষ জনশক্তির চাহিদা মেটাবে। ইতিমধ্যে সব মিলিয়ে প্রায় ২৩ হাজার জন এই টিটিসি থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে কর্মরত আছে।

এছাড়াও স্বল্প, মধ্যম ও দীর্ঘমেয়াদি প্রশিক্ষণ নিয়ে উপকৃত হচ্ছে অনেকেই। যদি একজন মানুষ দক্ষ হয় তাহলে তার কাজের কোনো অভাব হয় না। তিনি আরও বলেন, এই টিটিসি থেকে প্রশিক্ষণ নেওয়ার পরে কাউকে কাজের পেছনে দৌড়াতে হবে না। দক্ষ কর্মী হিসেবে গড়ে উঠলে কাজই তাদের পেছনে দৌড়াবে।

image

মেহেরপুর : তরুণ প্রজন্মের সুন্দর ও সচ্ছল জীবন গড়তে কাজ করছে কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র টিটিসি -সংবাদ

আরও খবর
বাগাতিপাড়ায় ঝুঁকিপূর্ণ তমালতলা ব্রিজ
ডাক পার্সোনালিটি অ্যাওয়ার্ড পেলেন সাংবাদিক হাবিব
পাথরঘাটায় খাস পুকুর রক্ষা ও পানির ফিল্টার নির্মাণ দাবিতে মানববন্ধন
সব ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করে প্রধানমন্ত্রী দেশকে খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ করেছেন
রামগড় থানা পুলিশের অবহিতকরণ সভা
উল্লাপাড়ায় সাব-রেজিস্ট্রার ও টিসি মহরার বিরুদ্ধে কোটি টাকা লোপাটের অভিযোগ
দুমকিতে খানাখন্দে ভরা সড়ক, দুর্ভোগ চরমে
খাসেরচরে মার্কেটে আগুন : ২০ লাখ টাকার ক্ষতি
গোবিন্দগঞ্জে কবর থেকে কঙ্কাল চুরি!
আম পাড়তে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে মৃত্যু যুবকের

সোমবার, ২২ মে ২০২৩ , ০৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩০, ০২ জিলক্বদ শাওয়াল ১৪৪৪

বৈদেশিক মুদ্রা আয়ে অবদান রাখছে ‘মেহেরপুর টিটিসি’

প্রতিনিধি, মেহেরপুর

image

মেহেরপুর : তরুণ প্রজন্মের সুন্দর ও সচ্ছল জীবন গড়তে কাজ করছে কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র টিটিসি -সংবাদ

মেহেরপুরে তরুণ প্রজন্মের সুন্দর ও সচ্ছল জীবন গড়তে কাজ করছে কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র (টিটিসি)। বিশেষ করে যারা কারিগরি শিক্ষা নিয়ে ভবিষ্যতের জীবিকার উৎস তৈরী করতে চান তাদের জন্য । মেহেরপুর-কুষ্টিয়া সড়কের পাশে বিসিক সংলগ্ন এলাকায় মেহেরপুর গণপূর্ত বিভাগ ২৩ কোটি ৬২ লাখ টাকা ব্যয়ে কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রটি (টিটিসি) ২০১৪ সাল থেকে শুরু করে ২০১৭ সালে শেষ করেছে নির্মাণ। উদ্বোধনের পর থেকে শুরু হয়েছে বিদেশগামী কর্মীদের প্রশিক্ষণ কার্যক্রম। যে কার্যক্রমের আওতায় ২০১৭ সাল থেকে এ পর্যন্ত ২২ হাজার জন বিদেশগামী কর্মী প্রশিক্ষণ নিয়েছে বলে দাপ্তরিক সূত্রে জানা যায়। এছাড়াও ২০১৭ সাল থেকে ৭টি ট্রেডে মোট ১ হাজার ৮শ ৩২ জন প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। সেইপ প্রকল্পের অধিনে আরও ২৭০ জন প্রশিক্ষণ নিয়ে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে কর্মরত আছেন। যা থেকে বছরে প্রায় ১৩২ কোটি বৈদেশিক মুদ্রা অর্জিত হচ্ছে। বর্তমানে চলমান কোর্সে ৩শ জন বিভিন্ন ট্রেডে প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন। কম্পিউটার অপারেশন, ইলেকট্রিক্যাল, মেকানিক্যাল, সিভিল কন্সট্রাকশন, ইলেকট্রনিক্স, গার্মেন্টস, ড্রাইভিং উইথ অটোমেকানিক্স ও জাপানি ভাষা প্রশিক্ষণ কোর্স মিলে মোট ৮টি ট্রেডে প্রশিক্ষণ দেয়া হচ্ছে। সরেজমিনে দেখা গেছে, টিটিসির তিনটি ভবনের একটি একাডেমিক, একটি ডরমিটরি, একটি প্রিন্সিপাল ও ভাইস প্রিন্সিপালের কোয়ার্টার্স ও হোস্টেল। একাডেমিক ভবনটিতে ক্লাস হচ্ছে। বিভিন্ন প্রশিক্ষণার্থীরা বিভিন্ন বিষয়ে হাতে কলমে প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন। আছে মূল্যবান সব যন্ত্র। যে গুলো ব্যবহার করে দক্ষ জনশক্তি তৈরির চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন প্রশিক্ষকরা।

ড্রাইভিং ট্রেডে প্রশিক্ষণ নেওয়া বাদশা মিয়া বলেন, কারিগরি প্রশিক্ষণ থেকে আমি ড্রাইভিং কোর্সে প্রশিক্ষণ নিয়ে বর্তমানে একজন দক্ষ ড্রাইভার হিসেবে গাড়ি চালাচ্ছি। আমার বড় ভাই রাজু মিয়া সেও ড্রাইভিং শিখে সৌদি আরবে গাড়ি চালকের কাজ করছে। ইতোমধ্যে আমি নিজেও একটা গাড়ি কিনেছি এবং আমি স্বাবলম্বী হয়েছি।

মেহেরপুর কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের প্রশিক্ষক ওহিদুজ্জামান বলেন, আমরা দক্ষ মানব শক্তি তৈরি করছি। বিদেশে দক্ষ কর্মী পাঠানো ও দেশেই বিষয়ভিত্তিক হাতের কাজ করতে পারবে তারা। এছাড়াও উত্তীর্ণ ছাত্রছাত্রীদের ডাটাবেজ তৈরি করছে বিএমইটি। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে কোনো দেশে কর্মী পাঠানোর চাহিদা পেলে ডাটাবেজ অন্তর্গতরা অগ্রাধিকার পাবে। আরেক প্রশিক্ষক শিখা খানম বলেন, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অধীনে কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের বিভিন্ন কোর্সে আমরা প্রশিক্ষণ দিয়ে আস?ছি। যেমন মোটর ড্রাইভিং, ইলেকট্রিক্যাল, ইলেকট্রনিক্স, কম্পিউটার, গার্মেন্টস, বিভিন্ন ভাষায় অসংখ্য ছাত্র-ছাত্রীদের বিনামূল্যে প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকি। এ বছর আমাদের উল্লেখযোগ্য পরিমাণ ছাত্র-ছাত্রী বিআরটিএর মাধ্যমে ড্রাইভিং লাইসেন্স পেতে সক্ষম হয়েছে। এছাড়াও যোগাযোগ ব্যবস্থা দুর্গম হাওয়ায় প্রশিক্ষণার্থীদের হোস্টেলে থেকে প্রশিক্ষণ নেওয়ার সুযোগ রয়েছে।

মেহেরপুর কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের অধ্যক্ষ আরিফ হোসেন তালুদার বলেন, এই টিটিসি দেশে-বিদেশে দক্ষ জনশক্তির চাহিদা মেটাবে। ইতিমধ্যে সব মিলিয়ে প্রায় ২৩ হাজার জন এই টিটিসি থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে কর্মরত আছে।

এছাড়াও স্বল্প, মধ্যম ও দীর্ঘমেয়াদি প্রশিক্ষণ নিয়ে উপকৃত হচ্ছে অনেকেই। যদি একজন মানুষ দক্ষ হয় তাহলে তার কাজের কোনো অভাব হয় না। তিনি আরও বলেন, এই টিটিসি থেকে প্রশিক্ষণ নেওয়ার পরে কাউকে কাজের পেছনে দৌড়াতে হবে না। দক্ষ কর্মী হিসেবে গড়ে উঠলে কাজই তাদের পেছনে দৌড়াবে।