ফরিদপুরের চরাঞ্চলের স্কুলগুলোতে শিক্ষকদের অনিয়মিত উপস্থিতিতে কমছে শিক্ষার্থী

ফরিদপুরের জেলার সদরপুর উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়নের অধিকাংশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে শিক্ষক-শিক্ষিকারা নিয়মিত ও যথাসময়ে উপস্থিত না হলেও হাজিরা খাতায় নির্ধারিত সময়ের উপস্থিতি স্বাক্ষর দিয়ে থাকেন। বিশেষ করে উপজেলার চরাঞ্চালের স্কুলগুলোতে শিক্ষকদের উপস্থিতি একে বারেই কম।

এসব তথ্য জানতে গতকাল সরোজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ১২৪নং হকিয়তপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৪ জন শিক্ষক ও শিক্ষার্থী কেউ উপস্থিত নেই। এটা প্রতিদিনের ঘটনা বলেই জানায় স্থানীরা। ৮৮নং হাজি মফিজ উদ্দিনের কান্দি বিদ্যালয়ে ৪ জন শিক্ষকের নাম খাতায় থাকলেও নিয়মিত কোন শিক্ষক উপস্থিত নেই। মাঝে-মধ্যে পালাক্রমে ২-১ জন উপস্থিত থাকেন। এই স্কুলের সহকারী শিক্ষিকা ইসরাত জাহান (সেতু) স্বামীর সঙ্গে ঢাকায় থাকেন। তিনি কখন কবে আসেন কেউ জানেন না। ৭২নং ফকিরকান্দি স্কুলে বেশিরভাগ সময় শিক্ষক থাকেন না। ৫২নং চর নাছিরপুর, ৫৮নং জামাল সিকদারের কান্দি, ১৩০নং ছোট কোল, ১০৭ দঃ চরডুবাইলের হেড মাস্টার ও সহকারি হায়দার হোসেন স্কুলে তেমন একটা উপস্থিত থাকে না। যদিও থাকে বেলা ১১টার পর উপস্থিত হলেও চলে যায় ১টার পর। এটিও জিল্লুর রহমানের সঙ্গে এই নিয়ে ফোনে কথা হলে, তিনি বলেন, চরের স্কুলে টিচাররা তেমন একটা উপস্থিত থাকে না। অনেক টিচার আমার কথাও মানেন না। জানা যায় চরাঞ্চালের স্কুলগুলোতে শিক্ষক উপস্থিতি না থাকায় সংবাদে সংবাদ প্রকাশিত হওয়ায়, শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন এলাকা পরিদর্শন করতে এসে এর সত্যতা পাওয়ার পরও এ অঞ্চলের বিদ্যালয়গুলোতে নিয়মিত শিক্ষকরা দায়িত্ব পালনে অনিহা প্রদর্শন করেই যাচ্ছে।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সদানন্দ পাল বলেন, বিদ্যালয় গুলোতে টিচার অনুউপস্থিত থাকার কথা নয়, যদি এমন হয়ে থাকে তাহলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। সদরপুর উপজেলার প্রাথমিক শিক্ষা ব্যবস্থার মান উন্নয়নে আমরা অবশ্যই সচেষ্ট ভূমিকা পালন করব।

image
আরও খবর
দশমিনায় সড়কের দুই পাশে মরা গাছ, আতঙ্কে পথচারীরা
অবরোধকারীদের আগুনে পুড়ল ট্রাক, অটোরিকশা
রাজশাহীতে অস্ত্রড্যান্স, আরও ৪ যুবক গ্রেপ্তার
দিরাইয়ে দুই গ্রামে সংঘর্ষ, আহত ৫৪
কেরানীগঞ্জে কৃতী শিক্ষার্থীরা সংবর্ধিত
সিরাজগঞ্জে ট্রাকে আগুন
চাঁপাইনবাবগঞ্জে বাল্যবিয়ে রোধে মতবিনিময়
মুন্সীগঞ্জে আগুনে পুড়ে ঘুমন্ত যুবকের মৃত্যু
শিবগঞ্জে কৃষকের মরদেহ উদ্ধার
নৌকায় সিল মারার ঘটনায় ইসির তদন্ত শুরু
কাঠালিয়ার রেকর্ডীয় খাল দখল করে বাগান, শতাধিক পরিবারে পানিসংকট
চিকিৎসকের পছন্দের সেন্টারের টেস্ট, রিপোর্ট ছাড়া রোগীদের সেবা দেয়া হয় না
পঞ্চগড়ের তাপমাত্রা নিম্নগামী
দেওয়ানগঞ্জে মাদ্রাসা সুপারের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ

শুক্রবার, ১০ নভেম্বর ২০২৩ , ২৪ কার্তিক ১৪৩০, ২৪ রবিউস সানি ১৪৪৫

ফরিদপুরের চরাঞ্চলের স্কুলগুলোতে শিক্ষকদের অনিয়মিত উপস্থিতিতে কমছে শিক্ষার্থী

প্রতিনিধি, সদরপুর (ফরিদপুর)

image

ফরিদপুরের জেলার সদরপুর উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়নের অধিকাংশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোতে শিক্ষক-শিক্ষিকারা নিয়মিত ও যথাসময়ে উপস্থিত না হলেও হাজিরা খাতায় নির্ধারিত সময়ের উপস্থিতি স্বাক্ষর দিয়ে থাকেন। বিশেষ করে উপজেলার চরাঞ্চালের স্কুলগুলোতে শিক্ষকদের উপস্থিতি একে বারেই কম।

এসব তথ্য জানতে গতকাল সরোজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ১২৪নং হকিয়তপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৪ জন শিক্ষক ও শিক্ষার্থী কেউ উপস্থিত নেই। এটা প্রতিদিনের ঘটনা বলেই জানায় স্থানীরা। ৮৮নং হাজি মফিজ উদ্দিনের কান্দি বিদ্যালয়ে ৪ জন শিক্ষকের নাম খাতায় থাকলেও নিয়মিত কোন শিক্ষক উপস্থিত নেই। মাঝে-মধ্যে পালাক্রমে ২-১ জন উপস্থিত থাকেন। এই স্কুলের সহকারী শিক্ষিকা ইসরাত জাহান (সেতু) স্বামীর সঙ্গে ঢাকায় থাকেন। তিনি কখন কবে আসেন কেউ জানেন না। ৭২নং ফকিরকান্দি স্কুলে বেশিরভাগ সময় শিক্ষক থাকেন না। ৫২নং চর নাছিরপুর, ৫৮নং জামাল সিকদারের কান্দি, ১৩০নং ছোট কোল, ১০৭ দঃ চরডুবাইলের হেড মাস্টার ও সহকারি হায়দার হোসেন স্কুলে তেমন একটা উপস্থিত থাকে না। যদিও থাকে বেলা ১১টার পর উপস্থিত হলেও চলে যায় ১টার পর। এটিও জিল্লুর রহমানের সঙ্গে এই নিয়ে ফোনে কথা হলে, তিনি বলেন, চরের স্কুলে টিচাররা তেমন একটা উপস্থিত থাকে না। অনেক টিচার আমার কথাও মানেন না। জানা যায় চরাঞ্চালের স্কুলগুলোতে শিক্ষক উপস্থিতি না থাকায় সংবাদে সংবাদ প্রকাশিত হওয়ায়, শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন এলাকা পরিদর্শন করতে এসে এর সত্যতা পাওয়ার পরও এ অঞ্চলের বিদ্যালয়গুলোতে নিয়মিত শিক্ষকরা দায়িত্ব পালনে অনিহা প্রদর্শন করেই যাচ্ছে।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সদানন্দ পাল বলেন, বিদ্যালয় গুলোতে টিচার অনুউপস্থিত থাকার কথা নয়, যদি এমন হয়ে থাকে তাহলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। সদরপুর উপজেলার প্রাথমিক শিক্ষা ব্যবস্থার মান উন্নয়নে আমরা অবশ্যই সচেষ্ট ভূমিকা পালন করব।