সেঞ্চুরিতে শচিনকে টপকে চূড়ায় কোহলি

ইতিহাসের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে ওয়ানডেতে ৫০টি সেঞ্চুরি করলেন ভিরাট কোহলি। পেছনে ফেললেন স্বাদেশি কিংবদন্তি ব্যাটার শচিন টেন্ডলকারকে।

গতকাল ২০২৩ বিশ্বকাপের প্রথম সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ভারতের ইনিংসের ৪২তম ওভারে তিন অঙ্কের ম্যাজিকাল ফিগার স্পর্শ করেন কোহলি। কিউই পেসার লোকি ফার্গুসনের বল ডিপ মিডউইকেটে ঠেলে ডাবল নিয়ে ৯৮ থেকে একশতে পৌঁছান তিনি। সেঞ্চুরির জন্য তার লাগে ১০৬ বল। এরপর অবশ্য বেশিক্ষণ টেকেননি কোহলি। দুই ওভারের ব্যবধানে নিউজিল্যান্ডের আরেক পেসার টিম সাউদির শিকার হন।

উড়িয়ে মারতে গিয়ে ডেভন কনওয়ের দুর্দান্ত ক্যাচে থামেন ১১৭ রান করা কোহলি। ১১৩ বলের ইনিংসে ৯ চার ও ২ ছক্কা হাঁকান তিনি। ৩৫ বছর বয়সী ডানহাতি ব্যাটার কোহলি এই সংস্করণে এখন এককভাবে সর্বোচ্চ সেঞ্চুরির মালিক। তার পূর্বসূরি শচিনের নামের পাশে রয়েছে ৪৯টি সেঞ্চুরি।

গতকার এ ইনিংস খেলার পথে মোট তিনটি রেকর্ড গড়েছেন কোহলি। ৫০তম শতকের পাশাপাশি বাকি দুটি রেকর্ড হলো— বিশ্বকাপের এক আসরে সবচেয়ে বেশি রান (৭১১ রান) ও সবচেয়ে বেশি পঞ্চাশোর্ধ্ব ইনিংস (আটটি)।

এই রেকর্ড তিনটির সঙ্গে এতদিন জড়িয়ে ছিল শচিনের নাম। তিনটিই ভেঙে দিয়েছেন কোহলি। এক বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রানের আগের কীর্তি ছিল শচিনের।

২০০৩ সালের বিশ্বকাপে ৬৭৩ রান করেছিলেন তিনি। এছাড়া, ওই বিশ্বকাপেই সাতটি পঞ্চাশোর্ধ্ব রানের ইনিংস খেলেছিলেন। গত ২০১৯ বিশ্বকাপে বাংলাদেশের সাকিব আল হাসানও সাতটি পঞ্চাশোর্ধ্ব ইনিংসে শচিনের পাশে বসেছিলেন। এবার দুজনকেই ছাড়িয়ে গেছেন কোহলি।

শচিন-সাকিবের রেকর্ড

ভাঙেন কোহলি

ওয়ানডে বিশ্বকাপ ইতিহাসে এক আসরে সবচেয়ে বেশিবার পঞ্চাশোর্ধ রানের ইনিংস খেলার রেকর্ড গড়েছেন ভারতের সেরা ব্যাটার ভিরাট কোহলি। এক্ষেত্রে কোহলি ভেঙেছেন স্বদেশি শচীন টেন্ডুলকার ও বাংলাদেশের সাকিব আল হাসানের রেকর্ড।

গতকাল মুম্বাইয়ে ওয়ানডে বিশ^কাপে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম সেমিফাইনালে টেন্ডুলকার ও সাকিবের রেকর্ড ভাঙেন কোহলি।

বিশ^কাপের চলমান আসরে অষ্টমবারের মতো ৫০-এর বেশি রানের ইনিংস খেলেছেন কোহলি। বিশ^কাপে এক আসরে সাতটি করে ৫০এর বেশি রানের ইনিংস খেলেছেন টেন্ডুলকার ও সাকিব। ২০০৩ সালে টেন্ডুলকার ও ২০১৯ সালে সাকিব সাতবার করে ৫০এর বেশি রানের ইনিংস খেলেছিলেন। ২০০৩ সালের বিশ^কাপে টেন্ডুলকারের ইনিংসগুলো ছিল এমনÑ ৫২, ৩৬, ৮১, ১৫২, ৫০, ৯৮, ৫, ৯৭, ১৫, ৮৩ ও ৪। ২০১৯ সালে মেগা ইভেন্টে সাকিব খেলেছিলেনÑ ৭৫, ৬৪, ১২১, ১২৪*, ৪১, ৫১, ৬৬ ও ৬৪ রানের ইনিংস। এখন টেন্ডুলকার ও সাকিবের রেকর্ড দখলে নিয়ে নিলেন কোহলি।

বৃহস্পতিবার, ১৬ নভেম্বর ২০২৩ , ৩০ কার্তিক ১৪৩০, ৩০ রবিউস সানি ১৪৪৫

সেঞ্চুরিতে শচিনকে টপকে চূড়ায় কোহলি

ক্রীড়া বার্তা পরিবেশক

image

ইতিহাসের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে ওয়ানডেতে ৫০টি সেঞ্চুরি করলেন ভিরাট কোহলি। পেছনে ফেললেন স্বাদেশি কিংবদন্তি ব্যাটার শচিন টেন্ডলকারকে।

গতকাল ২০২৩ বিশ্বকাপের প্রথম সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ভারতের ইনিংসের ৪২তম ওভারে তিন অঙ্কের ম্যাজিকাল ফিগার স্পর্শ করেন কোহলি। কিউই পেসার লোকি ফার্গুসনের বল ডিপ মিডউইকেটে ঠেলে ডাবল নিয়ে ৯৮ থেকে একশতে পৌঁছান তিনি। সেঞ্চুরির জন্য তার লাগে ১০৬ বল। এরপর অবশ্য বেশিক্ষণ টেকেননি কোহলি। দুই ওভারের ব্যবধানে নিউজিল্যান্ডের আরেক পেসার টিম সাউদির শিকার হন।

উড়িয়ে মারতে গিয়ে ডেভন কনওয়ের দুর্দান্ত ক্যাচে থামেন ১১৭ রান করা কোহলি। ১১৩ বলের ইনিংসে ৯ চার ও ২ ছক্কা হাঁকান তিনি। ৩৫ বছর বয়সী ডানহাতি ব্যাটার কোহলি এই সংস্করণে এখন এককভাবে সর্বোচ্চ সেঞ্চুরির মালিক। তার পূর্বসূরি শচিনের নামের পাশে রয়েছে ৪৯টি সেঞ্চুরি।

গতকার এ ইনিংস খেলার পথে মোট তিনটি রেকর্ড গড়েছেন কোহলি। ৫০তম শতকের পাশাপাশি বাকি দুটি রেকর্ড হলো— বিশ্বকাপের এক আসরে সবচেয়ে বেশি রান (৭১১ রান) ও সবচেয়ে বেশি পঞ্চাশোর্ধ্ব ইনিংস (আটটি)।

এই রেকর্ড তিনটির সঙ্গে এতদিন জড়িয়ে ছিল শচিনের নাম। তিনটিই ভেঙে দিয়েছেন কোহলি। এক বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রানের আগের কীর্তি ছিল শচিনের।

২০০৩ সালের বিশ্বকাপে ৬৭৩ রান করেছিলেন তিনি। এছাড়া, ওই বিশ্বকাপেই সাতটি পঞ্চাশোর্ধ্ব রানের ইনিংস খেলেছিলেন। গত ২০১৯ বিশ্বকাপে বাংলাদেশের সাকিব আল হাসানও সাতটি পঞ্চাশোর্ধ্ব ইনিংসে শচিনের পাশে বসেছিলেন। এবার দুজনকেই ছাড়িয়ে গেছেন কোহলি।

শচিন-সাকিবের রেকর্ড

ভাঙেন কোহলি

ওয়ানডে বিশ্বকাপ ইতিহাসে এক আসরে সবচেয়ে বেশিবার পঞ্চাশোর্ধ রানের ইনিংস খেলার রেকর্ড গড়েছেন ভারতের সেরা ব্যাটার ভিরাট কোহলি। এক্ষেত্রে কোহলি ভেঙেছেন স্বদেশি শচীন টেন্ডুলকার ও বাংলাদেশের সাকিব আল হাসানের রেকর্ড।

গতকাল মুম্বাইয়ে ওয়ানডে বিশ^কাপে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম সেমিফাইনালে টেন্ডুলকার ও সাকিবের রেকর্ড ভাঙেন কোহলি।

বিশ^কাপের চলমান আসরে অষ্টমবারের মতো ৫০-এর বেশি রানের ইনিংস খেলেছেন কোহলি। বিশ^কাপে এক আসরে সাতটি করে ৫০এর বেশি রানের ইনিংস খেলেছেন টেন্ডুলকার ও সাকিব। ২০০৩ সালে টেন্ডুলকার ও ২০১৯ সালে সাকিব সাতবার করে ৫০এর বেশি রানের ইনিংস খেলেছিলেন। ২০০৩ সালের বিশ^কাপে টেন্ডুলকারের ইনিংসগুলো ছিল এমনÑ ৫২, ৩৬, ৮১, ১৫২, ৫০, ৯৮, ৫, ৯৭, ১৫, ৮৩ ও ৪। ২০১৯ সালে মেগা ইভেন্টে সাকিব খেলেছিলেনÑ ৭৫, ৬৪, ১২১, ১২৪*, ৪১, ৫১, ৬৬ ও ৬৪ রানের ইনিংস। এখন টেন্ডুলকার ও সাকিবের রেকর্ড দখলে নিয়ে নিলেন কোহলি।