সূচকের সঙ্গে লেনদেনও কমেছে শেয়ারবাজারে

সপ্তাহের তৃতীয় কার্যদিবস গতকাল উত্থানে শুরু হলেও পতনে শেষ হয়েছে শেয়ারবাজারের লেনদেন। এদিন শেয়ারবাজারের সব সূচক কমেছে। একই সঙ্গে কমেছে টাকার পরিমাণে লেনদেন এবং বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর। এদিন বস্ত্র খাতের সুবাদে বড় পতন থেকে রক্ষা পেল শেয়ারবাজার।

গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ১৯.৬৭ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ১০৫.৭৩ পয়েন্টে। ডিএসইর অপর সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ১.২৬ পয়েন্ট এবং ডিএসই-৩০ সূচক ১৫.১৮ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ১ হাজার ৩০৪.৩০ পয়েন্টে এবং ২ হাজার ২০৫.৭০ পয়েন্টে।

গতকাল ডিএসইতে টাকার পরিমাণে লেনদেন ২ হাজার ১৭ কোটি ৫৬ লাখ টাকার যা আগের দিন থেকে ২৫ কোটি ৯২ লাখ টাকা কম। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ২ হাজার ৪৩ কোটি ৪৮ লাখ টাকার। ডিএসইতে গতকাল ৩৬৯টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ১৩৪টির বা ৩৬.৩২ শতাংশের, শেয়ার দর কমেছে ২০৪টির বা ৫৫.২৮ শতাংশের এবং ৩১টির বা ৮.৪০ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর অপরিবর্তিত রয়েছে।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৬.৭১ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৭ হাজার ৭৫৫.৮২ পয়েন্টে। সিএসইতে গতকাল ৩১৬টি প্রতিষ্ঠান লেনদেনে অংশ নিয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১৩১টির দর বেড়েছে, কমেছে ১৫৬টির আর ২৯টির দর অপরিবর্তিত রয়েছে। সিএসইতে ১০২ কোটি ৫৯ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

গতকাল ডিএসই’র ব্লক মার্কেটে ৪৮টি কোম্পানির ৭৪ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে মাত্র চার কোম্পানির লেনদেন হয়েছে ৫৬ কোটি টাকার বা ৭৬ শতাংশ। কোম্পানিগুলোর ৯০ লাখ ৩৪ হাজার ৯৪০টি শেয়ার ৮৫ বার হাত বদল হয়েছে। এর মাধ্যমে কোম্পানিগুলোর ৭৪ কোটি ১২ লাখ ৮৪ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে। কোম্পানিগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি অর্থাৎ ২৫ কোটি ৭১ লাখ ৪৪ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে স্কয়ার ফার্মার। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৭ কোটি ৭৯ লাখ ২৬ হাজার টাকার স্ট্যান্ডার্ড ইন্স্যুরেন্সের এবং তৃতীয় সর্বোচ্চ ৬ কোটি ৬৩ লাখ ৮৯ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে জেনেক্সের।

বুধবার, ২৩ জুন ২০২১ , ৯ আষাঢ় ১৪২৮ ১১ জিলকদ ১৪৪২

সূচকের সঙ্গে লেনদেনও কমেছে শেয়ারবাজারে

সপ্তাহের তৃতীয় কার্যদিবস গতকাল উত্থানে শুরু হলেও পতনে শেষ হয়েছে শেয়ারবাজারের লেনদেন। এদিন শেয়ারবাজারের সব সূচক কমেছে। একই সঙ্গে কমেছে টাকার পরিমাণে লেনদেন এবং বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর। এদিন বস্ত্র খাতের সুবাদে বড় পতন থেকে রক্ষা পেল শেয়ারবাজার।

গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ১৯.৬৭ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ১০৫.৭৩ পয়েন্টে। ডিএসইর অপর সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ১.২৬ পয়েন্ট এবং ডিএসই-৩০ সূচক ১৫.১৮ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ১ হাজার ৩০৪.৩০ পয়েন্টে এবং ২ হাজার ২০৫.৭০ পয়েন্টে।

গতকাল ডিএসইতে টাকার পরিমাণে লেনদেন ২ হাজার ১৭ কোটি ৫৬ লাখ টাকার যা আগের দিন থেকে ২৫ কোটি ৯২ লাখ টাকা কম। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ২ হাজার ৪৩ কোটি ৪৮ লাখ টাকার। ডিএসইতে গতকাল ৩৬৯টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ১৩৪টির বা ৩৬.৩২ শতাংশের, শেয়ার দর কমেছে ২০৪টির বা ৫৫.২৮ শতাংশের এবং ৩১টির বা ৮.৪০ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর অপরিবর্তিত রয়েছে।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৬.৭১ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৭ হাজার ৭৫৫.৮২ পয়েন্টে। সিএসইতে গতকাল ৩১৬টি প্রতিষ্ঠান লেনদেনে অংশ নিয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১৩১টির দর বেড়েছে, কমেছে ১৫৬টির আর ২৯টির দর অপরিবর্তিত রয়েছে। সিএসইতে ১০২ কোটি ৫৯ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

গতকাল ডিএসই’র ব্লক মার্কেটে ৪৮টি কোম্পানির ৭৪ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে মাত্র চার কোম্পানির লেনদেন হয়েছে ৫৬ কোটি টাকার বা ৭৬ শতাংশ। কোম্পানিগুলোর ৯০ লাখ ৩৪ হাজার ৯৪০টি শেয়ার ৮৫ বার হাত বদল হয়েছে। এর মাধ্যমে কোম্পানিগুলোর ৭৪ কোটি ১২ লাখ ৮৪ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে। কোম্পানিগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি অর্থাৎ ২৫ কোটি ৭১ লাখ ৪৪ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে স্কয়ার ফার্মার। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৭ কোটি ৭৯ লাখ ২৬ হাজার টাকার স্ট্যান্ডার্ড ইন্স্যুরেন্সের এবং তৃতীয় সর্বোচ্চ ৬ কোটি ৬৩ লাখ ৮৯ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে জেনেক্সের।