সিরাজগঞ্জে ঠাণ্ডা-সর্দি-জ্বরে আক্রান্ত শিশু রোগী বাড়ছে

ঋতু পরিবর্তনের কারণে শ্বাসকষ্ট , সর্দি জ্বর , নিউমোনিয়া, ডায়রিয়া, পেটের পিড়াসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে শিশুসহ বিভিন্ন বয়সী মানুষ জেলার বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন । সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতাল , নর্থ বেঙ্গল মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, বেসরকরি হাসপাতল আভিসিনা, মেডিনোভা, কমিউনিটি হাসপাতাল, মইন উদ্দিন হাসপাতাল, শাখাওয়াত এইচ মেমোরিয়ালসহ বিভিন্ন হাসপাতল সূত্রে জানা যায় যে , প্রতিদিনই এ সব হাসপাতালে উল্লেখিত রোগে আক্রান্ত শিশু ও বয়স্ক রোগী ভর্তির হার বৃদ্ধি পাচ্ছে। হাসপাতল কর্তৃপক্ষের প্রতিদিন নতুন রোগীর চাপ সামলাতে বেগ পেতে হচ্ছে। এ অবস্থায় শিশুর যতœ নিতে অভিভাবকের আরও নজর ও মনযোগী হওয়ার পরামর্শ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা । সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতলে চিকিৎসা নিতে আশা পৌর এলাকার সুইজ গেইট মহল্লার মোবারক আলী জানান, তার ৯ মাসের শিশু মেঘলাকে ১১ দিন যাবত ঠাণ্ডা ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে ভর্তি রয়েছে। প্রায় ৪০ থেকে ৫০ জন শিশু সিরাজগঞ্জ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালের পুরাতন ভবনের ৪র্থ তলার শিশু বিভাগে চিকিৎসা নিচ্ছে বলে হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে। সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের দায়িত্বরত ডা. ফয়সাল আহমেদ ও শামিমুল ইসলাম বলেন, ঋতু পরিবর্তনের কারণে শ্বাসকষ্ট , সর্দি জ্বর, নিউমোনিয়া , ডায়রিয়া, পেটের পিড়াসহ বিভিন্ন রোগে আত্রান্ত হচ্ছে শিশুসহ বৃদ্ধরা। আগের থেকে ৩ গুণ বেশি রোগী ভর্তি হচ্ছে। এ হাসপাতালের শিশু বিভাগের মেডিকেল অফিসার ডা. সুমনা লায়লা বলেন, ঋতু পরিবর্তনের কারণে এই রোগগুলোয় বেশিরভাগ আক্রান্ত হয় বৃদ্ধ ও শিশুরা। ছোট্ট এই শিশুদের মায়ের বুকের দুধ, তরল জাতীয় খাবার দিতে হবে। যেসব বাচ্চা খেতে পারে তাদের কে ভিটামিন যুক্ত খাবার দিতে হবে। এসি থেকে দূরে রাখতে হবে। ভয়ের কারণ নেই। এছাড়াও নিয়মিত ডাক্তারের সঙ্গে পরামর্শ করার জন্য তিনি বলেন।

মঙ্গলবার, ১২ অক্টোবর ২০২১ , ২৭ আশ্বিন ১৪২৮ ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

সিরাজগঞ্জে ঠাণ্ডা-সর্দি-জ্বরে আক্রান্ত শিশু রোগী বাড়ছে

image

ঋতু পরিবর্তনের কারণে শ্বাসকষ্ট , সর্দি জ্বর , নিউমোনিয়া, ডায়রিয়া, পেটের পিড়াসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে শিশুসহ বিভিন্ন বয়সী মানুষ জেলার বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন । সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতাল , নর্থ বেঙ্গল মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, বেসরকরি হাসপাতল আভিসিনা, মেডিনোভা, কমিউনিটি হাসপাতাল, মইন উদ্দিন হাসপাতাল, শাখাওয়াত এইচ মেমোরিয়ালসহ বিভিন্ন হাসপাতল সূত্রে জানা যায় যে , প্রতিদিনই এ সব হাসপাতালে উল্লেখিত রোগে আক্রান্ত শিশু ও বয়স্ক রোগী ভর্তির হার বৃদ্ধি পাচ্ছে। হাসপাতল কর্তৃপক্ষের প্রতিদিন নতুন রোগীর চাপ সামলাতে বেগ পেতে হচ্ছে। এ অবস্থায় শিশুর যতœ নিতে অভিভাবকের আরও নজর ও মনযোগী হওয়ার পরামর্শ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা । সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতলে চিকিৎসা নিতে আশা পৌর এলাকার সুইজ গেইট মহল্লার মোবারক আলী জানান, তার ৯ মাসের শিশু মেঘলাকে ১১ দিন যাবত ঠাণ্ডা ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে ভর্তি রয়েছে। প্রায় ৪০ থেকে ৫০ জন শিশু সিরাজগঞ্জ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালের পুরাতন ভবনের ৪র্থ তলার শিশু বিভাগে চিকিৎসা নিচ্ছে বলে হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে। সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের দায়িত্বরত ডা. ফয়সাল আহমেদ ও শামিমুল ইসলাম বলেন, ঋতু পরিবর্তনের কারণে শ্বাসকষ্ট , সর্দি জ্বর, নিউমোনিয়া , ডায়রিয়া, পেটের পিড়াসহ বিভিন্ন রোগে আত্রান্ত হচ্ছে শিশুসহ বৃদ্ধরা। আগের থেকে ৩ গুণ বেশি রোগী ভর্তি হচ্ছে। এ হাসপাতালের শিশু বিভাগের মেডিকেল অফিসার ডা. সুমনা লায়লা বলেন, ঋতু পরিবর্তনের কারণে এই রোগগুলোয় বেশিরভাগ আক্রান্ত হয় বৃদ্ধ ও শিশুরা। ছোট্ট এই শিশুদের মায়ের বুকের দুধ, তরল জাতীয় খাবার দিতে হবে। যেসব বাচ্চা খেতে পারে তাদের কে ভিটামিন যুক্ত খাবার দিতে হবে। এসি থেকে দূরে রাখতে হবে। ভয়ের কারণ নেই। এছাড়াও নিয়মিত ডাক্তারের সঙ্গে পরামর্শ করার জন্য তিনি বলেন।