রোহিঙ্গা নেতা মহিবুল্লাহ হত্যা অনাকাক্সিক্ষত : পররাষ্ট্র সচিব

রোহিঙ্গাদের শীর্ষ নেতা মহিবুল্লাহ হত্যাকা- অনাকাক্সিক্ষত উল্লেখ করেন, পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন। তিনি বলেছেন, মাঠ পর্যায়ের পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে সরাসরি এখানে আসা হয়েছে। এ ঘটনায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একটি টিম কাজ করছে।

গতকাল সকালে কক্সবাজার বিমানবন্দর থেকে বের হয়ে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

পররাষ্ট্র সচিবের নেতৃত্বে চার সদস্যের প্রতিনিধিদল দু’দিনের সফরে কক্সবাজারে এসেছেন। সফরকালে উখিয়া-টেকনাফে জোরপূর্বক উদ্বাস্তু মায়ানমার নাগরিকদের ক্যাম্প পরিদর্শন এবং সংশ্লিষ্ট সরকারি কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে মিলিত হওয়ার কথা রয়েছে প্রতিনিধি দলটির।

উল্লেখ্য, গত ২৯ সেপ্টেম্বর রাতে অজ্ঞাত বন্দুকধারীদের হাতে নিহত হন রোহিঙ্গাদের শীর্ষ নেতা মুহিবুল্লাহ। নিজ অফিসে অস্ত্রধারীরা তাকে পাঁচ রাউন্ড গুলি করে। এ সময় তিন রাউন্ড গুলি তার বুকে লাগে। খবর পেয়ে এপিবিএন সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে ‘এমএসএফ’ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় নিহত মুহিবুল্লাহর ভাই হাবিবুল্লাহ বাদী হয়ে উখিয়া থানায় অজ্ঞাত আসামিদের বিরুদ্ধে মামলা করেন। এরপর পাঁচ আসামিকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তাদের রিমান্ডে নেয়া হয়েছে।

শনিবার, ০৯ অক্টোবর ২০২১ , ২৪ আশ্বিন ১৪২৮ ০১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

রোহিঙ্গা নেতা মহিবুল্লাহ হত্যা অনাকাক্সিক্ষত : পররাষ্ট্র সচিব

রোহিঙ্গাদের শীর্ষ নেতা মহিবুল্লাহ হত্যাকা- অনাকাক্সিক্ষত উল্লেখ করেন, পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন। তিনি বলেছেন, মাঠ পর্যায়ের পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে সরাসরি এখানে আসা হয়েছে। এ ঘটনায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একটি টিম কাজ করছে।

গতকাল সকালে কক্সবাজার বিমানবন্দর থেকে বের হয়ে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

পররাষ্ট্র সচিবের নেতৃত্বে চার সদস্যের প্রতিনিধিদল দু’দিনের সফরে কক্সবাজারে এসেছেন। সফরকালে উখিয়া-টেকনাফে জোরপূর্বক উদ্বাস্তু মায়ানমার নাগরিকদের ক্যাম্প পরিদর্শন এবং সংশ্লিষ্ট সরকারি কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে মিলিত হওয়ার কথা রয়েছে প্রতিনিধি দলটির।

উল্লেখ্য, গত ২৯ সেপ্টেম্বর রাতে অজ্ঞাত বন্দুকধারীদের হাতে নিহত হন রোহিঙ্গাদের শীর্ষ নেতা মুহিবুল্লাহ। নিজ অফিসে অস্ত্রধারীরা তাকে পাঁচ রাউন্ড গুলি করে। এ সময় তিন রাউন্ড গুলি তার বুকে লাগে। খবর পেয়ে এপিবিএন সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে ‘এমএসএফ’ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় নিহত মুহিবুল্লাহর ভাই হাবিবুল্লাহ বাদী হয়ে উখিয়া থানায় অজ্ঞাত আসামিদের বিরুদ্ধে মামলা করেন। এরপর পাঁচ আসামিকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তাদের রিমান্ডে নেয়া হয়েছে।