আইপিও’র শেয়ার বরাদ্দের নতুন নিয়ম কার্যকর ১ এপ্রিল

প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) শেয়ার আনুপাতিক হারে বরাদ্দ দেয়ার জন্য নতুন নিয়ম আগামী ১ এপ্রিল থেকে বাস্তবায়নে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই), চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই) ও সেন্ট্রাল ডিপোজিটরি বাংলাদেশকে (সিডিবিএল) নির্দেশ দিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড একচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। সম্প্রতি বিএসইসির চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম সাক্ষরিত এ সংক্রান্ত নির্দেশ জারি করা হয়েছে।

আগামী ১ এপ্রিল এই নতুন নিয়ম চালু করার জন্য ডিএসই, সিএসই ও সিডিবিএলকে ৩১ মার্চের মধ্যে ইলেকট্রনিক সাবস্ক্রিপশন সিস্টেমটি (ইএসএস) প্রস্তুত রাখারও নির্দেশ দিয়েছে বিএসইসি। তবে এই নতুন নিয়ম চালুতে আরও সময় প্রয়োজন বলে মনে করে এ সংক্রান্ত গঠিত কমিটি। এই উদ্যোগ বাস্তবায়নে ইএসএস আধুনিকায়নের জন্য জুন পর্যন্ত সময় দরকার বলে মনে করে কমিটি। এ নিয়ে গত ১০ জানুয়ারি বিএসইসিতে এ সংক্রান্ত গঠিত কমিটির সভায় সময়ের বিষয়টি উঠে আসে।

উল্লেখ্য, বিএসইসি গত ৩১ ডিসেম্বর কমিশন সভায় আইপিওতে আসা কোম্পানির শেয়ারের আনুপাতিক হারে বরাদ্দ দেয়ার সিদ্ধান্ত জানিয়ে নির্দেশনা জারি করে। ওই নির্দেশনায় বলা হয়, আইপিওতে আবেদন করা সবাই আনুপাতিক হারে শেয়ার পাবে। তবে আবেদনের জন্য সাধারণ বিনিয়োগকারীদের শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানিতে ন্যূনতম ২০ হাজার টাকা বিনিয়োগ থাকতে হবে। এছাড়া আইপিওতে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কমপক্ষে ১০ হাজার টাকার বা উহার গুণিতক আবেদন করতে হবে বলে জানানো হয়। কমিশনের এসব সিদ্ধান্ত আগামী ১ এপ্রিল থেকে কার্যকর হবে বলে ওইদিন জানানো হয়। কিন্তু ইএসএস প্রক্রিয়া সময় সাপেক্ষ্য হওয়ায় দ্রুত সময়ে তা বাস্তবায়ন করা ঝুঁকিপূর্ণ বলে ১০ জানুয়ারির সভায় আলোচনা করে কমিটি। দ্রুত সময়ে বাস্তবায়ন করতে গেলে কারিগরি জটিলতা দেখা দিতে পারে বলে মনে করা হয়।

শনিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২১ , ৯ মাঘ ১৪২৭, ৯ জমাদিউস সানি ১৪৪২

আইপিও’র শেয়ার বরাদ্দের নতুন নিয়ম কার্যকর ১ এপ্রিল

image

প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) শেয়ার আনুপাতিক হারে বরাদ্দ দেয়ার জন্য নতুন নিয়ম আগামী ১ এপ্রিল থেকে বাস্তবায়নে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই), চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই) ও সেন্ট্রাল ডিপোজিটরি বাংলাদেশকে (সিডিবিএল) নির্দেশ দিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড একচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। সম্প্রতি বিএসইসির চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম সাক্ষরিত এ সংক্রান্ত নির্দেশ জারি করা হয়েছে।

আগামী ১ এপ্রিল এই নতুন নিয়ম চালু করার জন্য ডিএসই, সিএসই ও সিডিবিএলকে ৩১ মার্চের মধ্যে ইলেকট্রনিক সাবস্ক্রিপশন সিস্টেমটি (ইএসএস) প্রস্তুত রাখারও নির্দেশ দিয়েছে বিএসইসি। তবে এই নতুন নিয়ম চালুতে আরও সময় প্রয়োজন বলে মনে করে এ সংক্রান্ত গঠিত কমিটি। এই উদ্যোগ বাস্তবায়নে ইএসএস আধুনিকায়নের জন্য জুন পর্যন্ত সময় দরকার বলে মনে করে কমিটি। এ নিয়ে গত ১০ জানুয়ারি বিএসইসিতে এ সংক্রান্ত গঠিত কমিটির সভায় সময়ের বিষয়টি উঠে আসে।

উল্লেখ্য, বিএসইসি গত ৩১ ডিসেম্বর কমিশন সভায় আইপিওতে আসা কোম্পানির শেয়ারের আনুপাতিক হারে বরাদ্দ দেয়ার সিদ্ধান্ত জানিয়ে নির্দেশনা জারি করে। ওই নির্দেশনায় বলা হয়, আইপিওতে আবেদন করা সবাই আনুপাতিক হারে শেয়ার পাবে। তবে আবেদনের জন্য সাধারণ বিনিয়োগকারীদের শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানিতে ন্যূনতম ২০ হাজার টাকা বিনিয়োগ থাকতে হবে। এছাড়া আইপিওতে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কমপক্ষে ১০ হাজার টাকার বা উহার গুণিতক আবেদন করতে হবে বলে জানানো হয়। কমিশনের এসব সিদ্ধান্ত আগামী ১ এপ্রিল থেকে কার্যকর হবে বলে ওইদিন জানানো হয়। কিন্তু ইএসএস প্রক্রিয়া সময় সাপেক্ষ্য হওয়ায় দ্রুত সময়ে তা বাস্তবায়ন করা ঝুঁকিপূর্ণ বলে ১০ জানুয়ারির সভায় আলোচনা করে কমিটি। দ্রুত সময়ে বাস্তবায়ন করতে গেলে কারিগরি জটিলতা দেখা দিতে পারে বলে মনে করা হয়।