পুত্র ফারদিনের প্রজেক্টে সানী-মৌসুমী

চলচ্চিত্রের তারকা দম্পতি ওমর সানী-মৌসুমী। তাদের প্রথম সন্তান ফারদিন। বাবা মায়ের অনুপ্রেরণায় ফারদিন দেশের বাইরে থেকে চলচ্চিত্র নির্মাণের উচ্চশিক্ষা গ্রহণ করেছেন। ফারদিন এরমধ্যে বেশ কয়েকটিট নাটক-টেলিফিল্মও নির্মাণ করেছেন। তবে তার ইচ্ছে চলচ্চিত্র নির্মাণের। তার আগেই অনেক বড় দায়িত্ব অর্পিত হয়েছে তার ওপর। শিগগিরই কক্সবাজারে নির্মাণকাজ শুরু হতে যাচ্ছে পাঁচ তারকা হোটেল ‘স্যান্ডি ল্যান্ড’র কাজ। এটি নির্মাণ করতে যাচ্ছে ‘এহসান গ্রুপ অব কোম্পানিজ’ ও ‘সমুদ্র সোহাগ প্রাইভেট লিমিটেড’ যৌথ উদ্যোগে। ফারদিনকে এই প্রজেক্টের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর ও সিইও হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। আর পুত্রের এই প্রজেক্টে চেয়ারপারসন ও ডিরেক্টরের পদে রেখেছেন তার বাবা মাকে। অর্থাৎ ফারদিন তার মা মৌসুমীকে চেয়ারপারসন এবং বাবা ওমর সানীকে ডিরেক্টর হিসেবে রেখেছেন। ফারদিন বলেন, ‘শিগগিরই কক্সবাজারে স্যান্ডি ল্যান্ড’র কাজ শুরু হবে। একটি পাঁচ তারকা হোটেলে যত ধরনের সুযোগ সুবিধা থাকা তার সর্বোচ্চটুকু রাখার চেষ্টা করা হবে,’ ওমর সানী বলেন, ‘দেখতে দেখতে ফারদিন বড় হয়ে গেল। এখন তার ওপর অনেক দায়িত্ব। তার ওপর অর্পিত দায়িত্ব যেন সে যথাযথভাবে পালন করতে পারে।’ মৌসুমী বলেন, ‘আমাকে চেয়ারপারসন হিসেবে রাখায় ভীষণ সম্মানীত বোধ করছি। তবে ভীষণ ভালো লাগার বিষয় হচ্ছে যে, আমার সন্তানের প্রজেক্টের চেয়ারপারসন হিসেবে নিযুক্ত হয়েছি। এটা যে কতোটা গর্বের, আনন্দের তা ভাষায় প্রকাশের নয়।’

রবিবার, ০৯ জানুয়ারী ২০২২ , ২৫ পৌষ ১৪২৮ ৫ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

পুত্র ফারদিনের প্রজেক্টে সানী-মৌসুমী

image

চলচ্চিত্রের তারকা দম্পতি ওমর সানী-মৌসুমী। তাদের প্রথম সন্তান ফারদিন। বাবা মায়ের অনুপ্রেরণায় ফারদিন দেশের বাইরে থেকে চলচ্চিত্র নির্মাণের উচ্চশিক্ষা গ্রহণ করেছেন। ফারদিন এরমধ্যে বেশ কয়েকটিট নাটক-টেলিফিল্মও নির্মাণ করেছেন। তবে তার ইচ্ছে চলচ্চিত্র নির্মাণের। তার আগেই অনেক বড় দায়িত্ব অর্পিত হয়েছে তার ওপর। শিগগিরই কক্সবাজারে নির্মাণকাজ শুরু হতে যাচ্ছে পাঁচ তারকা হোটেল ‘স্যান্ডি ল্যান্ড’র কাজ। এটি নির্মাণ করতে যাচ্ছে ‘এহসান গ্রুপ অব কোম্পানিজ’ ও ‘সমুদ্র সোহাগ প্রাইভেট লিমিটেড’ যৌথ উদ্যোগে। ফারদিনকে এই প্রজেক্টের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর ও সিইও হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। আর পুত্রের এই প্রজেক্টে চেয়ারপারসন ও ডিরেক্টরের পদে রেখেছেন তার বাবা মাকে। অর্থাৎ ফারদিন তার মা মৌসুমীকে চেয়ারপারসন এবং বাবা ওমর সানীকে ডিরেক্টর হিসেবে রেখেছেন। ফারদিন বলেন, ‘শিগগিরই কক্সবাজারে স্যান্ডি ল্যান্ড’র কাজ শুরু হবে। একটি পাঁচ তারকা হোটেলে যত ধরনের সুযোগ সুবিধা থাকা তার সর্বোচ্চটুকু রাখার চেষ্টা করা হবে,’ ওমর সানী বলেন, ‘দেখতে দেখতে ফারদিন বড় হয়ে গেল। এখন তার ওপর অনেক দায়িত্ব। তার ওপর অর্পিত দায়িত্ব যেন সে যথাযথভাবে পালন করতে পারে।’ মৌসুমী বলেন, ‘আমাকে চেয়ারপারসন হিসেবে রাখায় ভীষণ সম্মানীত বোধ করছি। তবে ভীষণ ভালো লাগার বিষয় হচ্ছে যে, আমার সন্তানের প্রজেক্টের চেয়ারপারসন হিসেবে নিযুক্ত হয়েছি। এটা যে কতোটা গর্বের, আনন্দের তা ভাষায় প্রকাশের নয়।’