নওগাঁর মান্দায় নির্বাচনী সহিংসতায় আহত যুবকের মৃত্যু

নওগাঁর মান্দায় আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী এবং স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর কর্মী সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় এমরান হোসেন রানা(৩৮) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার সকালে তার মৃত্যু হয়। রানা উপজেলার গনেশপুর ইউনিয়নের শ্রীরামপুর গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম নাসির উদ্দিনের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত শুক্রবার রাত সাড়ে সাতটার দিকে উপজেলার গনেশপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী শফিকুল ইসলাম চৌধুরী বাবুলের সমর্থক মসজিদের ইমাম ও মাদ্রাসা শিক্ষক শ্রীরামপুর গ্রামের আবদুস সালামের ছেলে মাওলানা সাইফুল ইসলাম শান্ত(৩৫)-এর উপর অতর্কিত হামলা চালায় আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী হানিফ উদ্দিন মন্ডলের কর্মী সমর্থকরা।

এ ঘটনায় স্বতন্ত্র প্রার্থী শফিকুল ইসলাম চৌধুরী বাবুল তার কর্মী সমর্থককে মারপিটের প্রতিবাদে সমর্থকদের নিয়ে সতীহাট বাসস্ট্যান্ডে অবস্থান নিলে পুনরায় হামলার ঘটনা ঘটে। এতে উভয়পক্ষের কর্মী-সমর্থকরা সংঘর্ষে জড়ালে উভয়পক্ষের আহত হন ৮ জন।

এ সময় স্বতন্ত্রপ্রার্থী শফিকুল ইসলাম চৌধুরী বাবুলের সমর্থক এমরান হোসেন রানার অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে প্রথমে নওগাঁ সদর হাসপাতালে ও পরবর্তীতে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়।

এদিকে এমরান হোসেন রানা মারা যাওয়ার খবরে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। স্থানীয়রা সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।

মান্দা থানার ওসি শাহিনুর রহমান জানান, এই ঘটনায় রানা নামে একজনের মৃত্যুর খবর জেনেছি। তবে এখন পর্যন্ত এ বিষয়ে কেউ লিখিত অভিযোগ দায়ের করেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শুক্রবার, ১৯ নভেম্বর ২০২১ , ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ ১৩ রবিউস সানি ১৪৪৩

নওগাঁর মান্দায় নির্বাচনী সহিংসতায় আহত যুবকের মৃত্যু

image

নির্বাচনী সহিংসতায় আহত নওগাঁর মান্দায় এমরান হোসেন রানা (ইনসেটে) গতকাল মারা গেছে, স্বজনের আহজারি -সংবাদ

নওগাঁর মান্দায় আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী এবং স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থীর কর্মী সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় এমরান হোসেন রানা(৩৮) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার সকালে তার মৃত্যু হয়। রানা উপজেলার গনেশপুর ইউনিয়নের শ্রীরামপুর গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম নাসির উদ্দিনের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত শুক্রবার রাত সাড়ে সাতটার দিকে উপজেলার গনেশপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী শফিকুল ইসলাম চৌধুরী বাবুলের সমর্থক মসজিদের ইমাম ও মাদ্রাসা শিক্ষক শ্রীরামপুর গ্রামের আবদুস সালামের ছেলে মাওলানা সাইফুল ইসলাম শান্ত(৩৫)-এর উপর অতর্কিত হামলা চালায় আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী হানিফ উদ্দিন মন্ডলের কর্মী সমর্থকরা।

এ ঘটনায় স্বতন্ত্র প্রার্থী শফিকুল ইসলাম চৌধুরী বাবুল তার কর্মী সমর্থককে মারপিটের প্রতিবাদে সমর্থকদের নিয়ে সতীহাট বাসস্ট্যান্ডে অবস্থান নিলে পুনরায় হামলার ঘটনা ঘটে। এতে উভয়পক্ষের কর্মী-সমর্থকরা সংঘর্ষে জড়ালে উভয়পক্ষের আহত হন ৮ জন।

এ সময় স্বতন্ত্রপ্রার্থী শফিকুল ইসলাম চৌধুরী বাবুলের সমর্থক এমরান হোসেন রানার অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে প্রথমে নওগাঁ সদর হাসপাতালে ও পরবর্তীতে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়।

এদিকে এমরান হোসেন রানা মারা যাওয়ার খবরে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। স্থানীয়রা সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।

মান্দা থানার ওসি শাহিনুর রহমান জানান, এই ঘটনায় রানা নামে একজনের মৃত্যুর খবর জেনেছি। তবে এখন পর্যন্ত এ বিষয়ে কেউ লিখিত অভিযোগ দায়ের করেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।